ksrm

খেলার সময়সাদা পোশাকে লঙ্কানদের বিপক্ষে সফলতা-ব্যর্থতার খতিয়ান

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
২০০০ সালের ১০ নভেম্বর। ক্রিকেট আকাশে আভিজাত্যের সাদা পোষাকে সেদিন পরিচয় হয়েছিলো নতুন একটি দেশের, নাম বাংলাদেশ। নবম টেস্ট দল হিসেবে দীর্ঘ পথ চলায় সাফল্য ও ব্যর্থতার নানা মঞ্চেই আবির্ভূত হয়েছে লাল সবুজের প্রতিনিধিরা।
গেল বছর শ্রীলঙ্কার সঙ্গে খেলে এসেছে শততম টেস্ট ম্যাচ।
বছর ঘুরে আবারো টেস্ট সিরিজে সেই শ্রীলঙ্কার সঙ্গেই সাক্ষাত হচ্ছে বাংলাদেশ দলের। টেস্টে এখন পর্যন্ত লঙ্কানদের সঙ্গে পরিসংখ্যানটা বড্ড ম্লান সাকিব, মুশফিকদের। ২০০১ সালে কলম্বোতে শ্রীলঙ্কার সঙ্গে প্রথম টেস্ট খেলে বাংলাদেশ দল। শুরুটাতেই টাইগারদের ইনিংস ও ১৩৭ রানে হারের লজ্জা দেয় লঙ্কানরা।
তবে টাইগাররা হারলেও সে টেস্টে সিংহলিজ স্পোর্টস ক্লাব মাঠে বিশ্বের কনিষ্ঠতম ক্রিকেটার হিসেবে টেস্টে সেঞ্চুরি করেন মোহাম্মদ আশরাফুল। এখন পর্যন্ত ১৮টি টেস্ট ম্যাচ খেলে জয় পেয়েছে মাত্র একবার। দুই ড্র আর ১৫টি টেস্টেই টাইগারদের হারের লজ্জা দিয়েছে শ্রীলঙ্কা।
শুরুটায় হতাশা থাকলেও শেষটায় কিন্তু জয়ের সুখস্মৃতি আছে বাংলাদেশরই। গেলবছর মার্চে শততম টেস্টে পি সারা ওভালে তামিম ইকবালের অনবদ্য ৮২ রানের সুবাদে ৪ উইকেটের জয়ে পুরো জাতিকে এক সুতোয় বেঁধেছিলো টাইগাররা। লঙ্কানদের বিপক্ষে এটিই প্রথম জয় বাংলাদেশের। তাও আবার তাদের মাটিতেই। শততম টেস্টে চতুর্থ দল হিসেবে জয়ের কৃতিত্ব গড়ে মুশফিকরা।
লঙ্কানদের বিপক্ষে প্রথম ড্র'য়ের স্বাদ পায় টাইগাররা ২০১৩ সালে। নানা কারণে টাইগারদের ক্রিকেট রাজত্বে স্মরণীয় হয়ে থাকবে এই ম্যাচটি। এই টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ ১৯০ রানের রেকর্ড গড়েন মোহাম্মদ আশরাফুল। ডাবল সেঞ্চুরি করতে না পারলেও, সে আক্ষেপ ঘুচিয়ে দেন মুশফিক।
প্রথম বাংলাদেশি ও দ্বিতীয় উইকেট রক্ষক হিসেবে ডাবল সেঞ্চুরির কীর্তি গড়েন মুশি। এ দুজনের পথ ধরে ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি করেন নাসিরও। তিন ব্যাটসম্যানের অসাধারণ ব্যাটিংয়ে টেস্ট ক্রিকেটে সর্বোচ্চ ৬৩৮ রানের পুঁজি পায় বাংলাদেশ। এটিই এখন পর্যন্ত টেস্টে সর্বোচ্চ স্কোর বাংলাদেশের।
শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ব্যক্তিগত সাফল্যের কথা আসলে ঘুরে ফিরেই আসবে মোহাম্মদ আশরাফুলের নাম। এখন পর্যন্ত ১৩ টেস্টের ২৬ ইনিংসে আশরাফুলের সংগ্রহ ১০৯০ রান, সর্বোচ্চ ১৯০। ১১ টেস্টে ৭৭৫ রান নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে আছেন মুশফিক। ৭ টেস্টে তৃতীয় সেরা ৫২৭ রান সাকিবের থাকলেও, ইনজুরির কারণে প্রথম টেস্ট খেলছেন না বিশ্বসেরা এই অলরাউন্ডার।
৭ টেস্টে ২৯ উইকেট নিয়ে বোলারদের মধ্যে সবার ওপরে আছেন ওই সাকিবই। তারপরের অবস্থানে আছেন যথাক্রমে শাহাদাত, সৈয়দ রাসেল, সোহাগ গাজী ও মাশরাফি।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop