ksrm

শিক্ষা সময়প্রশ্নফাঁস করলে কেউ রেহাই পাবে না : শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষা সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের কোন প্রমাণ পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট পরীক্ষা বাতিল করা হবে। জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল দশটায় সারাদেশে একযোগে শুরু হয় এসএসসি, দাখিল ও সমমানের পরীক্ষা। ভালো ফলাফল প্রত্যাশা করছে পরীক্ষায় অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা। তবে শিক্ষামন্ত্রীর আশ্বাসের পরও প্রতিবারের মতো এবারও প্রশ্নফাঁস নিয়ে শংকা প্রকাশ করেছেন অভিভাবকরা।
পরীক্ষা শুরু হয় সকাল দশটায়। এসএসসিতে বাংলা প্রথম, দাখিলে কুরআন মাজিদ ও কারিগরি বোর্ডের বাংলা পরীক্ষা দিয়ে শুরু হয় প্রথম দিনের তিনঘন্টার পরীক্ষা। সকাল সাড়ে নয়টায় রাজধানীর ধানমণ্ডির একটি কেন্দ্রে প্রশ্নপত্র খুলে পরীক্ষা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন শিক্ষামন্ত্রী। প্রস্তুতি ভালো থাকায় পরীক্ষাও ভালো হবে বলে আশা শিক্ষার্থীদের।
পরীক্ষার হলে ৩০ মিনিট আগে প্রবেশসহ প্রশাসনের বিভিন্ন উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন অভিভাবকরা। প্রশ্ন ফাঁস ছাড়াই শেষ পর্যন্ত পরীক্ষা সম্পন্ন হওয়ার প্রত্যাশা তাদের।
এক অভিভাবক বলেন, ‘আমি তো মনে করি, আজকের পরিবেশ দেখে অবস্থা অনেক ভালো। চাই বাকি পরীক্ষাগুলোও এরকম সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে হোক।’
আরেক অভিভাবক বলেন, ‘আমাদের চাওয়া তো অবশ্যই যেন প্রশ্ন ফাঁস না হয়। কালণ আমরা বাচ্চাদের পেছনে সময়, টাকা ও মেধা- সবকিছুই অনেক খরচ করি।’
আরেক অভিবঅবক জানান, ‘কোচিং বন্ধ করে দিয়েছে, নেট বন্ধ করে দিয়েছে। আমরা গার্জিয়ান হিসেবে এগুলোকে খুবই ভালো মনে করছি।’ 
এদিকে, পরীক্ষা শুরুর আধা ঘণ্টার মধ্যে প্রশ্নপত্র ফাসেঁর গুঞ্জন উঠলেও তা গুজব বলে উড়িয়ে দেন শিক্ষামন্ত্রী। তবে তিনি জানান, প্রশ্নপত্র ফাঁসে রোধে কঠোর অবস্থানে রয়েছে প্রশাসন। এ কাজে যেই জড়িত হোক কোনো ছাড় দেয়া হবেনা।
তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে প্রশ্ন বাড়তি আছে। আমরা মিলিয়ে দেখেছি, ওই প্রশ্নের সঙ্গে কোনো মিল নাই। কোনোভাবে যদি কেউ এই প্রশ্ন ফাঁস করার চেষ্টা করে, সে কোনোভাবেই রেহাই পাবে না। তার কী হবে সেটা আমিও এখন বলতে পারি না- এরকম এসটা মনোভাব নিয়ে আমরা চলছি। তার চরম একটা ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
তিনি আরও বলেন, ‘প্রশ্ন ফাঁস হয়েছে, এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া গেলে আমরা পরীক্ষা বাতিল করে দেব।’  
সারাদেশে মোট ১০টি বোর্ডের অধীনে ৩ হাজার ৪১২টি কেন্দ্রে ২৮ হাজার ৫৫১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে মোট ২০ লাখ ৩১ হাজার ৮৯৯ জন এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop