ksrm

খেলার সময়লিভারপুল-টটেনহামের ড্র, অ্যাতলেতিকোর কাছে ভ্যালেন্সিয়ার হার

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে অতিরিক্ত সময়ের নাটকীয়তায় ড্র করেছে লিভারপুল এবং টটেনহাম। ইংলিশ স্ট্রাইকার হেরি কেইনের রেকর্ডের রাতে ২-২ গোলে ড্র করেছে দু'দল। এদিকে, লা লীগায় হাইভোল্টেজ ম্যাচে ভ্যালেন্সিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়েছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। এ জয়ে টেবিল টপার বার্সেলোনার সঙ্গে ব্যবধান কমিয়ে ৯ পয়েন্টে নিয়ে আসলো রোজি ব্লাঙ্কোসরা।
অ্যানফিল্ডের ইতিহাসে লেখা থাকবে ম্যাচটি ড্র হয়েছে ২-২ গোলে। তবে মাত্র ৩৪ ভাগ বল দখলে রেখে বিখ্যাত ফার্গি টাইমের গোলে লিভারপুলের পয়েন্ট হারানোর বেদনা এতে এতটুকুও বোঝা যাবে কি না, তা বলা যাচ্ছেনা। তবে এই স্কোরকার্ডে নিশ্চিতভাবেই থাকবেনা ম্যাচের প্রতি পরতে পরতে রঙ বদলের গল্প। থাকবেনা ওয়েম্বলি থেকে ৪-১ গোলে হেরে আসার পর প্রতিশোধের নেশায় পেয়ে বসা ইয়ুর্গেন ক্লপের জয়ের প্রাণান্তকর চেষ্টার কথা।
খেলা শুরুর বাঁশি বাজার পর পচেত্তিনো নিজের সিটে বসতে না বসতেই ভুল করে বসে টটেনহামের ডিফেন্ডাররা। লিভারপুলের আক্রমণ ঠেকাতে গিয়ে শিশুসুলভভাবে নিজেদের ডি-বক্সেই বল পাঠান এরিক দিয়ের। তবে ভুল করেননি মিশরীয় স্ট্রাইকার সালাহ। একা গোলকিপারকে বোকা বানিয়ে প্রিমিয়ার লীগে নিজের ২০তম গোলটি করেন তিনি।
গোল হজমের পর আহত বাঘের মতো ঝাঁপিয়ে পড়ে টটেনহামের ফুটবলাররা। তবে ওই আক্রমণেই সার, গোলের দেখা পায়নি কোন দলই।
বিরতি থেকে ফিরে গোলের জন্য মরিয়া হয়ে উঠে দু'দল। বল দখলে রেখে একের পর এক আক্রমণ করে পচেত্তিনোর শীষ্যরা। ডেডলক ভাঙ্গে ৮০ মিনিটে। ভিক্টর ওয়ানিয়ামার গোলে সমতায় ফেরে অতিথিরা। সাত মিনিট পর পেনাল্টি পায় টটেনহাম। তবে স্পট কিক থেকে গোল করতে ব্যর্থ হন হ্যারি কেইন।
৯০ মিনিটের খেলা শেষে ৬ মিনিটের অতিরিক্ত খেলা হবে বলে জানিয়ে দেন চতুর্থ রেফারি। শেষে এসে আবারো তেতে উঠে ক্লপ বাহিনী। অতিরিক্ত সময়ের প্রথম মিনিটেই সালাহ ম্যাজিক, এগিয়ে যায় লিভারপুল।
নিশ্চিত জয় দেখছিলো অল রেড সমর্থকরা, তখনই ছন্দপতন। ৯৫ মিনিটে আবারো পেনাল্টি পায় টটেনহাম। এবার আর ব্যর্থ হননি কেইন। প্রিমিয়ার লীগ ক্যারিয়ারে মাত্র ১৪২ ম্যাচে নিজের ১০০তম গোল করে দলকে মূল্যবান ১ পয়েন্ট এনে দেন এই ইংলিশ স্ট্রাইকার।
.
এদিকে লা লীগায় বার্সেলোনা পয়েন্ট হারানোর রাতে নিজেদের মাঠে ভ্যালেন্সিয়াকে ১-০ গোলে হারিয়েছে সিমিওনের শীষ্যরা। ম্যাচের শুরু থেকেই দাপটের সঙ্গে খেলতে থাকে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। ছেড়ে কথা বলেনি ভ্যালেন্সিয়াও।
একের পর এক আক্রমণে তটস্থ থাকে দুই গোলরক্ষক। তবে কাঙ্খিত গোলের দেখা না পাওয়ায় গোল শুন্য অবস্থায় বিরতিতে যায় দু'দল।
বিরতি থেকে ফিরে আক্রমণের ধার বাড়ায় রোজি ব্লাঙ্কোসরা। ফলও আসে দ্রুত। ৬০ মিনিটে আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড কোরা'র গোলে এগিয়ে যায় অ্যাতলেটিকো। এরপর অনেক চেষ্টা করলেও আর কোন গোল পায়নি কেউ। ফলে ১-০ গোলের জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ। 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop