ksrm

খেলার সময়চেলসির বিপক্ষে মেসিতে রক্ষা বার্সার

খেলার সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
অবশেষে চেলসির বিপক্ষে গোলের দেখা পেলেন লিওনেল মেসি। আর্জেন্টাইন তারকার গোলে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শীর্ষ ষোলো'র প্রথম পর্বে চেলসির সঙ্গে হার এড়িয়েছে বার্সেলোনা। স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে দু'দলের ম্যাচটি ১-১ গোলে ড্র হয়েছে।
আরেক ম্যাচে, মুলার ও লেওয়ানডস্কির জোড়া গোলে বেসিকতাসকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। এ জয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল অনেকটাই নিশ্চিত হয়ে গেছে বাভারিয়ানদের।
স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে ইউরোপের অন্যতম সেরা দুই দল। ফুটবল দুনিয়ায় রাত জেগে সমর্থকদের রোমাঞ্চকর ম্যাচ দেখার অপেক্ষা? বার্সা কি পাবে চেলসির বিপক্ষে কাঙ্ক্ষিত সে জয়? নাকি বরাবরের মতই ছড়ি ঘোরাবে চেলসি? ব্যর্থ অতীত ভুলে নতুন শুরুর আশায় চেলসির মাঠে আগ্রাসী বার্সেলোনা। বল দখলে সমানে সমান না হলেও, ছাড় দেয়নি চেলসিও।
১৫ মিনিটেই সুযোগ এসেছিলো কাতালান শিবিরে। কিন্তু মেসির সহায়তায় গোলের সুযোগ পেলেও, বল জালে জড়াতে পারেননি পাউলিনিয়ো। ৩৩ মিনিটে উইলিয়ানের দূরন্ত যাত্রায় বাঁধা হয়ে দাঁড়ায় গোলপোস্ট। তাতে রক্ষা পায় অতিথিরা। বিরিতিতে যাওয়ার আগে আরো দু'বার গোলের সুযোগ হারান উইলিয়ান ও হ্যাজার্ড।
গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর দ্বিতীয়ার্ধে আরো সচেতন হয়ে খেলে দু'দল। অবশেষে তৃতীয়বারের চেষ্টায় উইলিয়ানের দিকে মুখ তুলে তাকান সৃষ্টিকর্তা। ৬২ মিনিটে হ্যাজার্ডের পাসে গোল করেন এ ব্রাজিলিয়ান। লিড নেয় চেলসি। তবে, আনন্দ বেশিক্ষণ ধরে রাখতে পারেনি স্বাগতিক সমর্থকরা।
৭৫ মিনিটে অভিজ্ঞ ইনিয়েস্তার সহায়তায় গোল করেন লিওনেল মেসি। সমতায় ফেরে বার্সেলোনা। চেলসির বিপক্ষে এটিই প্রথম গোল মেসির। শেষ পর্যন্ত ম্যাচে আরো গোল হয়নি। ড্র নিয়ে তাই শেষ হয়েছে হাইভোল্টেজ এ লড়াই।
পুরো দুনিয়ার চোখ স্ট্যামফোর্ড ব্রিজে থাকলেও, ড্র হওয়ায় মন ভরেনি সমর্থকদের। সে আক্ষেপ ঘুচিয়ে দিয়েছে বায়ার্ন মিউনিখ। অ্যালিয়েঞ্জ অ্যারেনায় তুরস্কের ক্লাব বেসিকতাসকে ধুলোয় লুটিয়ে দিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল অনেকটাই নিশ্চিত করে নিয়েছে জার্মানির রাজারা।
ম্যাচের ১৬ মিনিটেই অখেলোয়াড়সুলভ আচরণে লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ডোমাগো ভিদাস। দশ জনের দলে পরিণত হয় বেসিকতাস। প্রতিপক্ষের দুর্বলতার সুযোগ লুফে নিতে কোন ভুল করেনি বায়ার্ন। ৪৩ মিনিটে গোলের শুরু থমাস মুলারের হাত ধরে।
৫২ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন কিংসলে কোম্যান। এরপর ৬৬ মিনিটে মুলার দ্বিতীয় গোল করলে জয় নিশ্চিত হয়ে যায় বায়ার্নের। তবে, তাতেও তৃপ্তি মেটেনি হেইঙ্কস শীষ্যদের। শেষ দিকে জোড়া গোল করেন রবার্ট লেওয়ানডস্কি। আর তাতেই বড় জয়ে সমর্থকদের স্বস্তি উপহার দিয়েই মাঠ ছাড়ে বায়ার্ন মিউনিখ।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop