বাণিজ্য সময়কেজিতে ৮-১০ টাকা কমেছে পেঁয়াজের দাম

বাণিজ্য সময় ডেস্ক

fb tw
ভরা মৌসুমে পর্যাপ্ত আমদানি হওয়ায় রাজধানীর পাইকারি বাজারে কেজিতে ৮-১০ টাকা পর্যন্ত কমেছে সব ধরনের পেঁয়াজের দাম। সপ্তাহের ব্যবধানে ৪-৫ টাকা কমে আলুর দাম এখন ১০ টাকার নিচে। তবে চাল, ডাল তেল ও মসলার বাজার স্থিতিশীল থাকলেও বস্তাপ্রতি ১৫০ টাকা বেড়েছে চিনি ও ময়দার দাম। ব্যবসায়ীদের দাবি, ডলারের দাম ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় প্রভাব পড়েছে আমদানি নির্ভর পণ্য দুটির দামে।
 
দেশের বেশ কিছু এলাকায় এখন চাষ হচ্ছে ভারতীয় উন্নত জাতের মোটা পেঁয়াজ। তাছাড়া চলতি মৌসুমে দেশি পেঁয়াজের ফলনও হয়েছে বেশ ভালো। তাই দুইয়ে মিলে এখন আধিপত্য পেঁয়াজের বাজারে। ফলে গেলো সপ্তাহে পাইকারিতে প্রতিকেজি ৩৮-৪০ টাকায় বিক্রি হওয়া দেশি পেঁয়াজ এখন পাওয়া যাচ্ছে ৩০-৩২ টাকায়। পাশাপাশি আদা,রসুন ও আলুর দামও রয়েছে কমতির দিকে।
গেল বছরের প্রায় পুরোটা সময় টানা উর্ধমূখী থাকা চালের দামে নতুন করে কোনো পরিবর্তন আসেনি। বাজারে প্রতিকেজি দেশি মিনিকেট মানভেদে ৫৮- ৬১ টাকা, বিআর-২৮ ৪৬-৫৪ টাকা আর মোটা চাল বিক্রি হচ্ছে প্রতিকেজি ৩৯-৪১ টাকা দরে।
সপ্তাহ শেষে কেজিতে এক থেকে দেড় টাকা বেড়েছে চিনি ও ময়দার দাম। বর্তমানে ৫০ কেজির প্রতি বস্তা চিনি ২৬১০ টাকা আর ময়দা বিক্রি হচ্ছে ১৪৭০ থেকে ১৪৮০ টাকায়। ব্যবসায়ীরা জানান, আমদানি নির্ভর হওয়ায় আন্তর্জাতিক বাজারে ডলারের দামে হেরফের হওয়ায় প্রভাব পড়েছে এ দুটি দামে।
মুদি পণ্যের মধ্যে সব ধরনের ডাল, সরিষার তেল ও মসলার দাম স্থিতিশীল থাকলেও খোলা সয়াবিন তেলের দাম কেজিতে কমেছে ২ টাকা। পাইকারি বাজারে প্রতিকেজি খোলা সয়াবিন তেল ৮৬-৮৮ টাকা ও প্রতি ৫ লিটারের বোতলজাত তেল বিক্রি হচ্ছে ৫০০-৫১৫ টাকায়। 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop