পশ্চিমবঙ্গকলকাতায় বাংলাদেশ উপহাইকমিশনের মঙ্গল শোভাযাত্রা

কলকাতা অফিস

fb tw
somoy
মঙ্গল শোভাযাত্রা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান-সহ নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে কলকাতায় বাংলাদেশি উপহাইকমিশন পালন করল বর্ষবরণ অনুষ্ঠান। শনিবার বিকাল সাড়ে চারটায় পার্কসাকাস সেভেন পয়েন্টের বাংলাদেশ তথ্য কেন্দ্র কেন্দ্র থেকে এই শোভা যাত্রা শুরু হয়।
উপ-হাইকমিশনার তৌফিক হাসান, বিএম জামাল হোসেন, মোফাকখারুল ইকবাল, মনছুর আহমেদ বিপ্লব, শেখ সাফিন প্রমুখ দূতাবাস কর্মকর্তারা ছাড়াও কর্মীরাও পা মেলান।
মঙ্গল শোভা যাত্রা সেভেন পয়েন্ট থেকে উপদূতাবাস প্রাঙ্গণে গিয়ে শেষ হয়। সেখানে আগেই ভিড় পড়ে যায় হাওয়াই মিঠাইয়ের স্টলে। বাঙালির ঐতিহ্যের অন্যতম নাগরদোলায় চড়ার আগে অনেকেই বায়স্কোপে চোখে রাখতে ভোলেননি।

সন্ধ্যায় বাংলাদেশি ছাত্রছাত্রীদের অংশ গ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন তৌফিক হাসান। বাংলাদেশের প্রখ্যাত বাচিক শিল্পী শিমূল মোস্তফার আবৃত্তি সন্ধ্যার পরিবেশকে আরও প্রাণবন্ত করে তোলে।
অনুষ্ঠানে প্রথম সচিব শেখ ইমাম ও মৌসুমি ওয়াইস যৌথভাবে একটি কবিতা আবৃত্তি করেন। আর নববর্ষের পুরো অনুষ্ঠানের উপস্থাপনা করেন উপহাইকমিশনের কনস্যুলার শাহনাজ রানু।  
এর আগে সাংবাদিকদের কাছে সংক্ষিপ্ত বৈশাখী শুভেচ্ছা জানাতে গিয়ে উপ-হাইকমিশনার তৌফিক হাসান বলেন, বাঙালির কৃষ্টি-সংস্কৃতি-ঐতিহ্যকে তুলে ধরতেই কলকাতায় ঢাকার মতোই মঙ্গল শোভাযাত্রার আয়োজন করা হয়।
উপ-দূতাবাসের প্রথম সচিব (প্রেস) মোফাকখারুল ইকবাল জানালেন, ঢাকার আবহটাকে কিছুটা হলেও যেন কলকাতার মানুষ পান সেই জন্যই এখানে নাগরদোলা, হাওয়াই মিঠাই কিংবা বায়স্কোপের ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

কলকাতার শ্যাম পার্কেরও এদিন দুদিনের প্রাণের বৈশাখ মেলার সূচনা হয়। স্বাগত নন্দীর কণ্ঠের এসো হে বৈশাখ, এসো হে বৈশাখ গান দিয়ে দুই দিনের আয়োজনে আনুষ্ঠানিক সূচনা হয়। এ সময় প্রাণ বেভারেজস ইন্ডিয়া প্রাইভেট লিমিটেডের কান্ট্রি ম্যানেজার সাইফ সাইগল, প্রাণ বেভারেজস ইন্ডিয়ার পরিচালক রাজেস ঘোষ এবং হেড অফ মার্কেটিং এক্সপোর্ট আরিফুর রহমান। রবিবার মঙ্গল শোভাযাত্রা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ছাড়াও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও থাকছে বাংলা বর্ষবরণের এই আয়োজনে।

বাংলাদেশে শনিবার পালিত হলেও আজ রবিবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য ছাড়াও আসাম, ত্রিপুরা, মেঘালয় ও বাঙালি অধ্যাষুতি এলাকাগুলোতেও বাংলা ১৪২৫ বছরকে বরণ করার উৎসব পালিত হবে। এই উৎসবের দুই বছর ধরেই নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে ঢাকার চারুকলার আদলে মঙ্গল শোভাযাত্রা। দক্ষিণ কলকাতার ঢাকুরিয়া থেকে এই শোভা যাত্রা শুরু হবে। কয়েক হাজার মানুষ এদিন এই মঙ্গল শোভা যাত্রায় সামিল হবেন।
ঢাকার একদল চারুকলার শিল্পী মঙ্গল শোভা যাত্রার জন্য ব্যবহৃত মুখোশ, বর্ণমালা, বাঘ-ভাল্লুকের মোটিভ তৈরি করেন। এছাড়াও ঠাকুমার ঝুলির বিভিন্ন চরিত্রের সঙ ছাড়াও রণপা, ছৌনৃত্যও জায়গা পাবে এই মঙ্গল শোভাযাত্রায়।  
 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop