বিনোদনের সময়যে আমার আত্মাকে ধর্ষণ করেছে তাকে আমি ঘৃণা করি : মিলা

বিনোদন সময় ডেস্ক

fb tw
somoy
বিয়ের কয়েক মাসের মধ্যেই স্বামী পারভেজ সানজারির বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ এনে মামলা করেছিরেন মিলা। সেই মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারেও ছিলেন একটি বেসরকারি এয়ারলাইন্সের পাইলট পারভেজ। কিন্তু ২০ দিন পরেই জামিন হয় তার। এরপর ছয় মাস ধরে এই মামলা নিয়ে গণমাধ্যমে মুখ খোলেননি মিলা। এবার ফেসবুকের মাধ্যমে তিনি তুলে ধরলেন নিজের অব্যক্ত বেদনার কথা।
দীর্ঘ এক পোস্টের মাধ্যমে নিজের ফেসবুক পেজে মিলা জানিয়েছেন মামলা পরবর্তী সময়ে আসামীপক্ষের তরফ থেকে হয়রানির শিকার হওয়ার কথা। তিনি জানান, বিভিন্ন সময়ে ভয়ভীতি দেখানো থেকে শুরু করে তার ‘ক্যারিয়ার শেষ করে দেয়ার ষড়যন্ত্রে’ লিপ্ত ছিলেন পারভেজ সানজারী।
তিনি লিখেছেন, ‘এই ছেলে আমার পিছনে কত বিশাল দল বানিয়ে আমাকে ধামা চাপা দেয়ার ট্রাই করেছে এগুলা আমি সব সামনে আনতে চাই। শুধু এই আসামি না তার সাথে টাফ প্রতিষ্ঠান এর আরো দুই জন পাইলট যারা কোনোদিন আমাকে সামনা সামনি দেখে নি বা কখনো কথাও বলেনি, তারা আমাকে এমন ভাবে হেনস্থা করেছে তা ভাবা যায় না।’
তিনি আরও লিখেছেন, ‘আমার বাবা সহ আমাকে বিভিন্ন সামাজিক মাদ্ধমে তারা এমন কোনো নোংরা অপবাদ নাই যা দেয় নাই .তার পরিবার, তার কর্মস্থল এর বন্ধুরা, এমন কি তার গার্লফ্রেন্ডরা সবাই তার পরিচালনায় আমার জীবন কে অন্ধকারে আটকে ফেলেছে। আমি শিল্পী বা সেলেব্রিটি হবার কারণে তারা আমাকে আরো বেশি নোংরা আজে বাজে কথা বলে অসম্মানিত করেন।’
তাকে হেনস্থাকারী প্রত্যেকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবেন বলেও হুঁশিয়ার করেন মিলা। 
‘িআমি একজন মেয়ে আর দুর্ভাগ্যক্রমে এই দেশের একজন মহিলা রকস্টার হবার কারণে যারা আমার এই অপ্রত্যাশিত দুর্ঘটনার সুযোগে আমাকে লাঞ্চিত করেছে ,যারা আমর মামলা ধামা চাপা দেয়ার ট্রাই করেছে ,যারা শুধু মজা দেখার জন্য আমাকে আজ এইরকম অশান্তিতে ফেলে দিয়েছে তাদের কাউকে আমি ছাড়বো না। আজ আমি চুপ হয়ে গেলে আর
কোন মেয়ে সামাজিক ফাপর এর ভয়ে বিচার চাবে না।’
১১ বছরের প্রেমের পর ২০১৭ তে বিয়ের পিড়িতে বসেন মিলা ও পারভেজ সানজারী। কিন্তু বিয়ের কিছুদিনের মাথাতেই যৌতুক চেয়ে স্বামী তাকে মারধর করতেন বলে থানায় অভিযোগ করেন তিনি।
মিলা লিখেছেন, ‘হ্যাঁ ভালোবেসে ছিলাম আমি। কিন্তু আমার এই ভালোবাসা যেভাবে আমার মানসম্মান, আমার আত্মাকে ধর্ষণ করে, এতগুলা মানুষ দ্বারা জেল থেকে নিজের গুনাহ চাপা দিতে প্রতিশোধ নেয়ার চেষ্টা করে, তাকে আমি ঘৃণা করি।’
পারভেস সানজারির জামিন বাতিল চেয়ে তিনি আরও লিখেন, ‘এই ছেলের জামিন বাতিল হোক। আমি গান ভুলে গিয়েছি। আজকে এই মুখোশধারী রাক্ষস এর জন্যে আমি হাসতে ভুলে গিয়েছি। আমি স্বপ্ন দেখতে ভুলে গিয়েছি, আমি সম্মানহানী আর শিক্ষিত সমাজের মূর্খ আচরণে ধর্ষিত হয়ে আজ বাঁচতে ভুলে গিয়েছি।’
২০১৭ সালের ১২ মে পারভেজ সানজারীর সঙ্গে বিয়ে হয় মিলার।     

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop