শিক্ষা সময়প্রতিবন্ধীবান্ধব অবকাঠামো নেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে

শিক্ষা সময় ডেস্ক

fb tw
দেশের বিশেষায়িত কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ছাড়া সাধারণ প্রতিষ্ঠানগুলোতে এখনো গড়ে ওঠেনি প্রতিবন্ধী বান্ধব অবকাঠামো। এতে স্বাভাবিক শিক্ষা গ্রহণে বাধাগ্রস্ত হচ্ছেন তারা। শিক্ষামন্ত্রী বলছেন, বর্তমান সরকার প্রতিবন্ধীদের উন্নয়নে নানামুখী প্রকল্প হাতে নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে অবকাঠামো নির্মাণে সরকার প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকার নতুন একটি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে।
আদিল মাহবুব, শারীরিক প্রতিবন্ধকতার সঙ্গে লড়াই করে মাধ্যমিক, উচ্চ মাধ্যমিকের গণ্ডি পেরিয়ে এখন পড়ছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে।
দেশ সেরা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পড়ার সুযোগ পেয়ে যতটা না উৎসাহী হয়েছেন এগিয়ে যাওয়ার, তার চেয়ে বেশি হতাশা তাকে আচ্ছন্ন করেছে। কারণ দেশ সেরা এই প্রতিষ্ঠানটিতেও যে এদের জন্য খুব একটা সুযোগ-সুবিধা নেই। যদিও প্রায় এক বছর প্রশাসনের কাছে ধরণা দিয়ে একটি আবাসিক হলে ঠাঁই হয়। এ নিয়ে ক্ষোভের অন্ত নেই মাহবুবের।
আদিল মাহবুব বলেন, 'ইকোনমিক কোনো সমস্যা না। একটা বিল্ডিং করতে কয়েক কোটি হাজার টাকা খরচ হয়। কিন্তু একটা র‍্যাম করতে কয়েক হাজার খরচ হয়। তাহলে সমস্যা কোথায়? সদিচ্ছার অভাব।'  
একই অবস্থা কলেজ পড়ুয়া রহিমা কিংবা জাহাঙ্গীর নগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নাজমুস সাকিবের। নিজেদের প্রতিবন্ধকতা নিজেরা জয় করতে পারলেও হিমশিম খেতে হয় সমাজের প্রতিবন্ধকতাকে মোকাবেলা করতে।
প্রতিবন্ধী উন্নয়নকর্মীদের অভিযোগ, দীর্ঘদিন পরে হলেও সরকার শিক্ষানীতি ২০১০ এ ইনক্লুসিভ শিক্ষার কথা বললেও বাস্তবায়নের দৃশ্যমান কোনো অগ্রগতি নেই। তবে, নতুন এ উদ্যোগটিকে সাধুবাদ জানিয়ে এর বাস্তবায়নে সরকারের তদারকির দাবি তাদের।
প্রতিবন্ধী উন্নয়নকর্মী ইদ্রিস আলী বলেন, সবাই যদি প্রতিবন্ধী স্কুলে পড়ে তাহলে তারা কখনও মানসিক জায়গা থেকে বের হতে পারবে না।'
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অবকাঠামো নির্মাণের দায়িত্বে থাকা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর বলছে, বর্তমানে তারা প্রতিবন্ধীদের বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে নতুন ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা করেছেন।
শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর প্রধান প্রকৌশলী দেওয়ান বলেন, 'প্রতিবন্ধীদের জন্য নতুন ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা চলছে। ১০ হাজার ৬৪৯ কোটি ৫ লাখ টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে।'
শিক্ষামন্ত্রী বলছেন, প্রতিবন্ধীদের শিক্ষাগ্রহণ স্বাভাবিক ও সহজ করতে কাজ করছে সরকার। কেউ ভর্তি নেবে না বললে শাস্তি দেয়া হবে।'
পরিসংখ্যান বলছে, দেশের মোট জনগোষ্ঠির ১০ শতাংশ প্রতিবন্ধী। যার প্রায় অর্ধেক শারীরিক প্রতিবন্ধকতার শিকার।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop