বাণিজ্য সময়'কাস্টমারের দুর্ঘটনায় পাঠাওয়ের কোন দায়িত্ব নেই'

বাণিজ্য সময় ডেস্ক

fb tw
রাজধানীবাসীর কাছে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে বিভিন্ন রাইড শেয়ারিং অ্যাপের মোটরবাইক। যানজট, গণপরিবহন দুর্ভোগ আর মানুষের সময় স্বল্পতাকে কাজে লাগিয়ে ইতোমধ্যেই চালু হয়েছে ৯টি ভিন্ন ভিন্ন রাইড শেয়ারিং অ্যাপ। তবে সম্প্রতি এসব মোটরবাইক সেবার নিরাপত্তা নিয়ে অভিযোগ তুলেছেন গ্রাহকরা।
দায় স্বীকার করে দ্রুত সমাধানের আশ্বাস সংশ্লিষ্টদের। পরিবহন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, দুর্ঘটনা কমাতে দ্রুত আইন করতে হবে। আর উদ্যোক্তাদের নীতিমালা না মানার দায় চাপিয়েছে বিআরটিএ।
বাড়ছে রাইড শেয়ার, বাড়ছে মোটরবাইক, কমছে দূরত্ব, দ্রুত গন্তব্যে পৌঁছচ্ছে মানুষ। কিন্তু চালকের দক্ষতা ও পেশাদারিত্বের প্রসঙ্গে যাত্রীদের রয়েছে নানা অভিযোগ, অনেকেই শিকার হচ্ছেন ছোট-বড় দুর্ঘটনারও।
একজন পাঠাও কাস্টমার বলেন, '২০টা রাইড দিয়েছি, তার মধ্যে ১৮ টাতেই হেলমেট পাইনি।'
দায় স্বীকার করে কর্তৃপক্ষ বলছেন, নতুন এই সেবার মানোন্নয়নে কাজ করছেন তারা।
পাঠাও রাইডস ভাইস প্রেসিডেন্ট কিশওয়ার আহমেদ হাশমি বলেন, 'আমরা ট্রেনিং দিয়েছি।  তারপরেও তাদের পারফরম্যান্স আমরা চেক করি। অনেক সময় কাস্টমাররা হেলমেট পড়তে চান না। দুর্ঘটনা হলে এতে পাঠাওয়ের কোন দায়িত্ব নেই।'
৯টি প্রতিষ্ঠান আবেদন করলেও এখনো নিবন্ধন দেওয়া হয়নি জানিয়ে বিআরটিএ বলছে দুর্ঘটনার শিকার যাত্রীদের নির্ভর করতে হবে প্রচলিত আইনের ওপরই।
বিআরটিএ সড়ক নিরাপত্তা পরিচালক মাহবুব ই রব্বানী বলেন, 'তারা দরখাস্ত করেছে, বিভিন্ন তথ্য দিয়ে যাচাই বাছাই করছি।'
চালক ও যাত্রী উভয়ের জন্য দ্রুত ইনস্যুরেন্সসহ নিরাপত্তা বিষয়ক আইন করতে হবে বলছেন পরিবহন বিশেষজ্ঞরা।
গতবছর এই অ্যাপ সার্ভিস চালু হবার পর মোটরবাইকের সংখ্যা বেড়ে গেছে এমনটাই দেখা গেছে বিআরটিএ'র পরিসংখ্যান বিশ্লেষণ করে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop