মহানগর সময়‘আপনাদের রোগী মরে যাক, প্রয়োজনে মামলা করেন’

কমল দে

fb tw
চট্টগ্রামের ম্যাক্স হাসপাতালে অদক্ষ জনবল ও মেয়াদোত্তীর্ণ ড্রাগ লাইসেন্সসহ নানা অনিয়মের প্রমাণ পেয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। আর এসব অনিয়মের দায়ে প্রতিষ্ঠানটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এদিকে, অভিযানের প্রতিবাদে নগরীর সব বেসরকারি হাসপাতালের চিকিৎসা সেবা বন্ধ করে দিয়েছে মালিকপক্ষ। এতে দুর্ভোগে পড়েছেন রোগী ও তাদের স্বজনরা। অন্যদিকে, জনদুর্ভোগ সৃষ্টিকারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। 
 

চিকিৎসায় অবহেলায় শিশু রাইফার মৃত্যুর অভিযোগের মুখে রোববার (৮ জুলাই) দুপুরে চট্টগ্রাম নগরীর ম্যাক্স হাসপাতালে অভিযান চালান ওষুধ প্রশাসন ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সমন্বয়ে গঠিত র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। হাসপাতালের ল্যাবে বিভিন্ন চিকিৎসা সরঞ্জাম ও ব্যবহৃত কেমিকেল পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেন। এসময় হাসপাতাল ও ল্যাব পরিচালনায় অনিয়মের প্রমাণ পান ভ্রাম্যমাণ আদালত। এমনকি ড্রাগ লাইসেন্স না থাকার কথাও জানান নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোওয়ার আলম।
 নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোওয়ার আলম বলেন, ‘আজকে ম্যাক্স পরিদর্শনে যে অসঙ্গতিগুলো আমাদের চোখে পড়েছে, তার প্রথমটাই হচ্ছে প্যাথলজিক ল্যাবে। আরেকটি বিষয় হলো- দক্ষ জনবল নেই। কারণ এখানে কোনো বায়োকেমিস্ট নেই, কোনো মাইক্রোবায়োলজিস্ট নেই। উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা দিয়েছে- এমন ব্যক্তিরাও এখানে কাজ করছে। এটি আইনত যেমন করতে পারে না, বিজ্ঞানসম্মতভাবেও করতে পারে না। আর অপারেশন থিয়েটারে আমরা কিছু ওষুধ পেয়েছি, যেগুলো অনুমোদনহীন। এগুলোর সোর্স অথেনটিক নয়। এ সমস্ত কারণেই এই প্রতিষ্ঠানটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পাশপাশি বিষযগুলো ঠিক করার জন্য ১৫ দিনের সময় বেধে দেয়া হয়েছে।’     
এদিকে, ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান ও জরিমানার জের ধরে জরুরি বৈঠক ডাকে চট্টগ্রামের বেসরকারি হাসপাতাল ও ক্লিনিক মালিকরা। বৈঠকে নগরীর সব ক্লিনিক হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা কার্যক্রম বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হয়। এতে একাত্মতা জানায় বিএমএ।
মালিকদের এমন ঘোষণার পর হাসপাতাল ছেড়ে যেতে বাধ্য হন অনেক রোগী ও তার স্বজনরা। এমন কর্মসূচিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেন তারা।
এক রোগীর স্বজন বলেন, ‘তারা (চিকিৎসকরা) বললো, আপনাদের রোগী মরে যাক। প্রয়োজনে আপনারা মামলা করেন।’ 
গত ২৯ জুন রাতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ম্যাক্স হাসপাতালে মারা যায় শিশু রাফিদা খান রাইফা। এ ঘটনায় দায়িত্বে অবহেলার প্রমাণ পাওয়ায় শনিবার ডা. দেবাশীষ সেনগুপ্তকে চাকরি থেকে অব্যাহতি এবং চিকিৎসক শুভ্র দেবকে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয় ম্যাক্স হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop