ksrm

মুক্তকথা‘মেয়ে’ একটা গালি, আমি গালি হয়ে জন্মেছি'

ওয়েব ডেস্ক

fb tw
somoy
‘মেয়ে’। সত্যি বলতে আমি কামিজ পরি! সিরিয়াস মাত্রার কামিজ। লং কামিজ, মেয়েলি চাপানো পাজামা, ওড়না, ব্রা! আমার পিরিয়ডও হয়। আমার লম্বা চুল আছে, আমি খোঁপা করি,কাজল দেই, আমার ছেলেদের মতো হাতে পায়ে ঘন লোম নেই।
আমি বাসের মহিলা সিটে বসি। অনেক সময় দাঁড়িয়ে থাকলে বুকে বা পেটে গুঁতা খাইই!
আমি রান্নাঘরে ঘুরঘুর করে খিঁচুড়ি রাঁধি,আমি মেয়ে! … মাঝে মাঝে ওড়না সরে গেলে কথা শুনি, ব্রা’র ফিতা দ্যাখা গ্যালে বেশ্যা বলে গালি খাই, সেনেটারি ন্যাপকিন সবার সামনে কিনতে গেলে লোকজন ফিসফিস করে।
আমি সিএনজির ড্রাইভারের সাথে বসলে লোকজন তাকায়ে থাকে, আমি স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ বাংলাদেশ বলে চিৎকার করলে লোকজন কমেন্ট করে।
আমার রান্না খারাপ হইলে সবাই বলে ‘এইটা মেয়ে মানুষের রান্না!?
...আমি সাইকেল চালালে টম এন্ড জেরির সিস্টেম অনুযায়ী পাবলিকের চোখ খুইল্যা গড়াগড়ি খায়!
...আমি টিজ সহ্য না করে দুই চারটা থাপ্পড় মারলে দোষ আমারি হয়-কারণ আমি মেয়ে!
সত্যি বলতে কি! আমাদের পিরিয়ড হওয়া মাত্র আমার শৈশবকে থামায়ে দেয়া হয়।
তখন চুপি চুপি প্যাড কিনতে হয়। অনেক লজ্জার ব্যাপার!!!
অথচ ছেলেদের সুন্নাতে খৎনা দেয়ার সময় (মানে আর কি পুরুষাঙ্গের চামড়া কাটার সময়) লোকজনকে ডেকে দাওয়াত দিয়ে ডেস্ক বাজিয়ে খাওয়ানো হয়-লজ্জ্বার কিছু নাই!!আমরা রান্না মায়ের গর্ভ থেকে শিখে আসছি এ জন্য আমরা কোনো খাবার খারাপ রাঁধলে লজ্জ্বার ব্যাপার, ছেলেরা রাঁধলে বিরাট ব্যাপার! অথচ পৃথিবীর বেশীর ভাগ রেস্টুরেন্টের শেফ ই কিন্তু ছেলেরা! সুতরাং এই শিল্প তারাও কম জানে না! কিন্তু তারা সংসারে রাঁধে না। আমি অফিস করে, বাচ্চা সামলিয়ে রাঁধলেই তারা খাবে!
 মেয়েদের শরীরে আগুন আছে, তাই স্পর্শ পেলেই ওদের…..খাড়া হয়, দুঃখের বিষয়, এই আগুনের ভেতরে তারা নিশ্চিন্তে দশ মাস ছিল!
আমি সিএনজি ওয়ালার পাশে বসলে ওটা লজ্জ্বার ব্যাপার। অথচ তাদের সাথে ডবল সিটে বসলে পুরো সিটটাই থাকে তাদের পাছার দখলে, আমাকে পড়তে হয়, তাদের পায়ের চিপায় এতে সমস্যা নেই।
...ওরা প্যান্ট পড়ে অর্ধেক পাছা দ্যাখা যায়, বাকী অর্ধেক আন্ডার ওয়ার। ওটা স্ট্যাইল!
...আমি দেশের হয়ে যুদ্ধ করেছি, দেশের জন্য ধর্ষিত হইসি, দেশের দুঃখে পাশে দাঁড়াইছি, এতে কোনো সমস্যা নাই, কিন্ত আমি দেশের আনন্দে যুক্ত হয়ে বাংলাদেশের ম্যাচ বা কনসার্টে গেলেই আমি বাজে মেয়ে!
...আমি সংসারের হাল ইজিলি ধরতে পারি, কিন্তু সাইকেলের হ্যান্ডেল ধরলে আমি হিজরা!
...মেয়েরা ব্যবসার কি বোঝে!? অথচ মেয়েরাই গার্মেন্টসের রফতানি আয়ে সিংহ ভাগে জড়িত।
...মেয়েদের হার্ট এট্যাক হয় না, কারণ মেয়েদের হার্ট নাই, অথচ মেয়েরাই হয় নার্স! সারারাত জেগে আপনার রোগীর দেখভাল করে।
…আমি কোনো সাহসের কাজ করলে ওরা বলে ‘সাব্বাস! তুই একটা মরদ!!
অথচ তারা কোনো ভীরুতা দ্যাখাইলে তাদের বলা হয় ‘কিরে তুই মাইয়্যা নাকি!? মুখ খোল’!!
বুঝছেন!?...‘মেয়ে’ একটা গালি। আমি গালি হয়ে জন্মাইসি।’
(নিশাত তাসমিন টুম্পার ফেসবুক থেকে)

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop