মহানগর সময়‘শোলাকিয়ার মতো নারায়ণগঞ্জেও হবে বৃহৎ ঈদ জামাত’

শওকত আলী সৈকত

fb tw
somoy
শোলাকিয়ার মতো নারায়ণগঞ্জে আগামী ঈদুল আযহার নামাজের বৃহৎ জামাতের আয়োজনের ঘোষণা দিয়েছেন সংসদ সদস্য শামীম ওসমান। তিনি আজ রোববার (১২ আগস্ট) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ ক্লাব মিলনায়তনে জেলা প্রশাসক, জেলার ৭ শতাধিক ইমাম ও জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে এক আলোচনা সভায় এ ঘোষণা দেন।
 
শামীম ওসমান বলেন, ‘মানুষ বড় জামাতে অংশগ্রহণ করতে চেষ্টা করে। কারণ লাখো মানুষের মধ্যে যদি একটা হাতও আল্লাহ কবুল করেন তাহলে একজনের উছিলায় সবার দোয়া আল্লাহ রাব্বুল আলামীন হয়তো কবুল করে নিবেন। শোলাকিয়াতে লাখ লাখ মানুষের জামাত হয়। সে কারণে নারায়ণগঞ্জ থেকেও মানুষ ঈদের জামাতে অংশগ্রহণ করতে যায়।
তিনি বলেন, ‘সবাই সম্মতি দিলে আমিও নারায়ণগঞ্জে এমন একটি জামাতের আয়োজন করতে চাই যেখানে দেড় লক্ষাধিক মানুষ একসঙ্গে ঈদের জামাতে অংশগ্রহণ করতে পারবে।’
শামীম ওসমান বলেন, ‘কারো কোনো আপত্তি না থাকলে শহরের পৌর ঈদগাহ ময়দান, ওসমানী স্টেডিয়াম এবং খান সাহেব ওসমান আলী স্টেডিয়ামে একসঙ্গে একটি বৃহৎ ঈদ জামাতের আয়োজন করা যেতে পারে। এ ব্যাপারে তিনি জেলার উপস্থিত ৭ শতাধিক মসজিদের ঈমামদের মতামত নেন এবং জেলা প্রশাসক ও সিটি করপোরেশনের কাছে সহযোগিতা চান। ইমামরা আলোচনা করে সম্মতি দিলে জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া ঈদ জামাতের আয়োজনের ব্যাপারে সব ধরনের সহযোগিতা প্রদানের আশ্বাস দেন।’
জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া বলেন, ‘আমি জেলা পুলিশ, র‌্যাব সহ জেলার আইন শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী ও কমিটির সঙ্গে আলাপ আলোচনা করব। সবার সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে সংসদ সদস্যকে এ ব্যাপারে যা যা করা দরকার প্রয়োজনীয় সব ধরনের সহযোগিতা আমরা করব।’
সংসদ সদস্য শামীম ওসমান আরো বলেন, ‘এই ঈদ জামাতের আয়োজনে প্যান্ডেল বাবদ ৫০ থেকে ৬০ লাখ টাকা খরচ হবে তা আমার পক্ষ থেকে আমি দিয়ে দেব। তবে ইচ্ছা করলে যে কেউ এত শরীক হতে পারেন।’
তিনি বলেন, ‘আমরা এখানে সুন্দর করে একটা আয়োজন করতে চাই, যেখানে ঢোকার পরে মানুষের মনে এমন একটা অনুভূতি হয়, আল্লাহর এবাদত করতে এসেছি।’
শামীম ওসমান আগামী ঈদুল আযহার এই বৃহৎ জামাতে সব রাজনৈতিক দল ও সামাজিক সংগঠনের সবাইকে একসঙ্গে অংশগ্রহণ করার অনুরোধ জানান। তিনি বলেন, এই মিলনমেলায় এসে আমরা সবাই যদি সবার সঙ্গে বুক মিলাই আল্লাহ সবার মধ্যে ভালোবাসা সৃষ্টি করে দেবেন। পাশাপাশি নারায়ণগঞ্জবাসীর ওপরও রহমত বর্ষিত হবে।
সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ব্যক্তিগত উদ্যোগে এ আলোচনা সভার আয়োজন করেন। সভায় জেলা প্রশাসক রাব্বি মিয়া ও ইমামরা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মহানগর আওয়ামীলীগের যুগান-সাধারণ সম্পাদক শাহ্ নিজাম, মহানগর যুবলীগের সভাপতি শাহাদৎ হোসেন সাজনু, জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি হাসান ফেরদৌস জুয়েল, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন, হেফাজতে ইসলামের মহানগর শাখার সভাপতি মাওলানা ফেরদাউসুর রহমান। 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop