বিনোদনের সময়‘হাজীর বিরিয়ানি’তে অশ্লীলতা : যা বললেন সিয়াম

বিনোদন সময় ডেস্ক

fb tw
জাজ মাল্টিমিডিয়ার নতুন সিনেমা ‘দহন’ শুরু থেকেই ছিলো আলোচনায়। সিয়াম ও পূজা চেরী অভিনীত সিনেমাটির আরেক নায়িকা কে হচ্ছেন- সেই জটিলতা কেটে উঠতে না উঠতেই নতুন বিতর্কে জড়ালো সিনেমাটি। ‘দহন’-এর সাম্প্রতিক মুক্তিপ্রাপ্ত ‘হাজির বিরিয়ানি’ গানটির কথা অশ্লীল- এমন অভিযোগে মুখর এখন সবাই।
 

‘দহন’ সিনেমায় সিয়ামের চরিত্রটি এক মাদকাসক্ত যুবকের। ‘হাজির বিরিয়ানি’ গানটির মাধ্যমে দর্শকের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়া হয়েছে এই চরিত্রটিকে। গানটিতে সিয়ামকে দেখানো হয়েছে এক বখে যাওয়া নেশাখোর তরুণ হিসেবেই, পুলিশের ধাওয়া খেয়ে প্রতিনিয়ত ছুটে বেড়ায় যে।
গানে সিয়ামের অভিনয় ও লুক প্রশংসিত হলেও প্রশ্ন উঠেছে এর কথা নিয়ে। প্রিয় চট্টোপাধ্যায় এর কথায় গানটির সুর ও সংগীতায়োজন করেছেন কলকাতার আকাশ সেন। 
জাজ মাল্টিমিডিয়ার ইউটিউব পেইজে প্রকাশ পাওয়া গানটির ভিউ এরইমধ্যে ৭২ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। ভিডিওটিতে লাইক পড়েছে ৬ হাজার ৮০০ টি। সেইসঙ্গে ভিডিওটিকে আনলাইক করা হয়েছে এক হাজার ৭০০ বার!
নাইব হাসান নামের একজন মন্তব্যের ঘরে লিখেছেন, ‘বাবা, গাজা, মাল, মাতাল!!! তরুণ প্রজন্মকে ভালোই অনুপ্রেরণা দিচ্ছেন!! সেন্সর বোর্ড থেকে এই কথাগুলো বাদ দেওয়া উচিত।’
এস এম ইকরামুল ইসলাম নামে আরেকজন লিখেছেন, ‘নেশা মাদক নিয়ে গান না বানালে ভাল হতো।পরিবার নিয়ো এই গান উপভোগ করার মত না।বিশেষ করে ছোটদের সামনে এই গান শোনার মত না।’
কেয়ারফুলি কেয়ারলেস নামের আরেকটি আইডি থেকে লেখা হয়েছে, ‘এই গান ব্যান করা উচিত। লাইক দেবার কি হলো? গাজা, বাবা এইসব গানের মধ্যে দিয়ে যুবক দের উস্কানি দেওয়া হচ্ছে। আর সিয়াম কে নায়কের মতো কোনো দিক থেকেই লাগেনা। নাটকের ছেলে নাটকে থাকা উচিত, সিনেমা সবাইকে দিয়ে হয়না।’
গানটি নিয়ে সমালোচনা করলেও সিয়ামের প্রশংসা করেছেন অনেকে।
রিয়াজুল ইসলাম রিফাত লিখেছেন, ‘থার্ডক্লাস মার্কা গানের লিরিকস.... তবে সিয়াম ভাইয়ের লুক হেব্বি লাগছে।’
সুমন আহমেদ নামের একজন লিখেছেন, ‘লাভ ইউ সিয়াম ভাই।’
তবে গানটি নিয়ে তৈরি হওয়া সমালোচনাকে অবান্তর বলেই উড়িয়ে দিলেন সিয়াম। তিনি বলেন, তার মতে গানটির কথাগুলো আপত্তিকর নয়।
সময় নিউজকে সিয়াম বলেন, ‘আমার কাছে গানের কথা আপত্তিকর লাগেনি। কারণ আমি জানি সিনেমাতে আমার চরিত্রটি কী। আমি জেনেশুনেই আমার ক্যারেক্টারটা প্লে করছি। আমার কাছে মনে হয়েছে, এটা ওর জন্য খুবই নরমাল কথা। ও আরও অনেক কথাই বলতে পারকো, যেটা আমরা সংগত কারণেই বলতে পারছি না। আপনি যদি একইসঙ্গে আমার কাছ থেকে রিয়ালিস্টিক পার্ফম্যান্স চান, এবং বলেন আপনি এটা করতে পারবেন না, ওটা করতে পারবেন না, মারতে পারবেন না, ধরতে পারবেন না, তাহলে তো এটা পসিবল না। এটা ওর ক্যারেক্টারের গান, সোজা কথা। এটা ছাড়া ওর ক্যারেক্টার এস্টাবলিশ করা যেত না।’
তিনি আরও বলেন, ‘ব্যাপারটা তো আসলে গান নিয়ে না, এরপর কী হয়- তা নিয়ে। মাদককে না বলার ব্যাপারটা আপনি কীভাবে দেখাবেন, যদি প্রথমে মাদক না দেখাতে পারেন। আপনি শুধু আপনারা কেবল দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে বলে গেলেন কেউ মাদক নেবেন না- তাহলে তো সেটা প্রভাব ফেলবে না। দেখাতে হবে, মাদক থেলে কী রেজাল্ট হয়।’
গানটি তরুণ সমাজের কাছে মাদককে প্রচার করছে কিনা- এই প্রশ্নের জবাবে সিয়াম বলেন, ‘আমি নিজে সরকারের অ্যান্টি ড্রাগস ক্যাম্পেইন করেছি। আপনি এতটুকু নিশ্চিত থাকতে পারেন, মাদকে প্রচার করে এমন কোনো কাজ আমি বুঝে শুনে করবো না। আমার কাছে যেহেতু এটা জাস্টিফাইড মনে হয়েছে, তাই করেছি। একশ জন মানুষ একশ রকম কথা বলছে। কিন্তু আপনাদের ছোট ইমপ্যাক্ট না দেখে বড় ইমপ্যাক্ট দেখতে হবে। বুঝতে হবে শেষ পর্যন্ত সিনেমাটি কী বার্তা তুলে ধরছে।’

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop