পশ্চিমবঙ্গধর্ম নিরপেক্ষ জোটের নেত্রী হতে পারেন মমতা

সুব্রত আচার্য

fb tw
somoy
পাঁচ-রাজ্যের ভোটের ফলাফল নিয়ে কৌতূহলি হয়ে উঠছেন ভারতের রাজনৈতিক মহল। বিশেষ করে, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অতি সক্রিয়তা এবং কংগ্রেসের সঙ্গে তার ঘনিষ্টতা বৃদ্ধি নিয়ে রীতিমতো আলোচনাও শুরু হয়েছে ”থিঙ্ক ট্যাঙ্ক” মহলে। রাজনৈতিক মহলের খবর, ২০১৯ সালের ভারতের লোকসভা নির্বাচনের আগে বর্তমান শাসক বিজেপির বিরুদ্ধে ধর্ম নিরপেক্ষ যে রাজনৈতিক ফ্রন্ট গঠনের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে- সেই ফ্রন্টের নেত্রী হতে পারেন মমতা বন্দ্যোধ্যায়। নাম রয়েছেন অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবুর নাইড়ুওর।  
মঙ্গলবার (১১ ডিসেম্বর) দুপুর ১২ টার মধ্যে মধ্যপ্রদেশ, মিজোরাম, ছত্তিশগড়, তেলেঙ্গানা এবং রাজস্থান রাজ্যের সিংহাসনের মালিক কোন ”দল” বা ”জোট” সেটা পরিস্কার হয়ে যাবে।
ঠিক এর ২৪ ঘন্টা আগে, ধর্ম নিরপেক্ষ জোট গঠনের একধাপ এগোতে কলকাতা থেকে দিল্লি পৌঁছে গেলেন পশ্চিমবেঙ্গর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপি বিরোধী মহাসমাবেশের ডাক দিয়ে ইতিমধ্যে আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু তৃণমূল নেত্রী।
১৯ জানুয়ারির কলকাতার ব্রিগেড ময়দানের সেই ধর্ম নিরপেক্ষ জোটের মহাসমাবেশে সোনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী, মায়াবতি ছাড়াও ধর্মনিরপেক্ষে রাজনৈতিক দলের শীর্ষ নেতাদের এক করতে চাইছেন মমতা। শোনা যাচ্ছে প্রাক্তন কয়েকজন বিজেপি নেতাও সেই জোটে যোগ দেবেন। এর অন্যতম বিজেপির প্রাক্তন মন্ত্রী যশবন্ত সিন্হা।
মমতার সেই মহাসমাবেশের আগে, পাঁচ রাজ্যে বুথ ফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী যদি বিজেপি সত্যিই ধরাশায়ী হয়ে পড়ে তবে মমতার বিজেপি বিরোধী জোট আরো শক্তিশালী হবে; সন্দেহ নেই। আর সেই রশদ জোগাতে রবিবার (৯ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় কলকাতা থেকে দিল্লিতে পৌঁছালেন মমতা।
দলীয় সূত্র বলছে, সোমবার সোনিয়া গান্ধীর জন্মদিনের কংগ্রেসের প্রাক্তন সভানেত্রীর বাড়িতে যেতে পারেন মমতা। সোনিয়া-মমতা একান্তে কথা হতে পারে। সেখানে থাকতে পারেন রাহুল গান্ধীও।
বুথ ফেরত সমীক্ষা অনুযায়ী পাঁচ-রাজ্যেই কংগ্রেসের ফলাফল ভাল হওয়ার আভাস। সে কারণে উজ্জীবিত কংগ্রেস।
বিজেপি বিরোধী ফ্রন্ট গড়ার ক্ষেত্রে কংগ্রেস বরাবরই প্রাদেশিক দল গুলোকে অক্সিজেন দিয়ে আসছে। আর মমতার সঙ্গে কংগ্রেসের সম্পর্কও বরাবরই ভাল।
বিজেপি বিরোধী জোটের আরেক অাহ্বায়ক অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুও। 
রাজনৈতিক মহলের খবর, ধর্মনিরপেক্ষ মহাজোটের গঠন হলে সেই জোটের মমতা-চন্দ্রবাবুকে সামনের দিকে রাখতে চাইছেন সোনিয়া গান্ধী।
এদিকে সোমবার দিল্লিতে ধর্মনিরপেক্ষ রাজনৈতিক জোটের একটি বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেই বৈঠকেও যোগ দেবেন।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop