ksrm
omarket24 odhikarnews sonargaonuniversity niet

খেলার সময় চমক থাকছে প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের এবারের আসরে

fb tw gp
বাড়ছে ভেন্যু, যুক্ত হচ্ছে নতুন নতুন প্রযুক্তি। আসছে দেশ বিদেশের নামিদামি সব স্পন্সর। বাড়বে প্রতিদ্বন্দ্বিতা, বাড়বে প্রাইজমানিও। খালি চোখ বলছে, এবারের প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের জৈলুস, ছাড়িয়ে যাবে আগের সব আসরকে। তবে আপাতত এসব শুধুই কাগজে কলমে। এর আগেও প্রত্যাশার ফানুস উড়িয়ে শেষ পর্যন্ত তার সিকি ভাগও পূরণ করেনি বাফুফে। সাবেক ও বর্তমান ফুটবলারদের শঙ্কাটা ঠিক সেখানেই।
তারা বলছেন, দেশের ফুটবলের স্বার্থেই আসন্ন বিপিএল ঘিরে, বাফুফের নেয়া সব পরিকল্পনার, করা হোক সঠিক বাস্তবায়ন।
প্রযুক্তির ছোঁয়া দ্বার ছাপিয়ে আছড়ে পরেছে ফুটবলের মাঠেও। ভিডিও অ্যাসিসটেন্স রেফারি বা ভিএআর এর সহায়তায় কমে এসেছে মাঠে রেফারিদের ভুল সিদ্ধান্তের হার। ইউরোপিয়ান ফুটবলে হরহামেশাই এই প্রযুক্তি ব্যবহার হলেও এবারই প্রথম স্বল্প পরিসরে তার দেখা মিলতে পারে প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলে।
এতো গেল প্রযুক্তির গল্প। এবারের বিপিএলকে আরো জমজমাট করতে খেলা হবে ৮টি ভেন্যুতে। স্পন্সর হিসেবে বাফুফেকে এক মিলিয়ন ডলার দেবে পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান এমপি এন্ড সিলভা। শিরোপার রেসে টিকে থাকতে শক্তিশালী দলও গড়েছে বেশ কয়েকটি ক্লাব। সবকিছু মিলে আসন্ন বিপিএল নিয়ে বেশ রোমাঞ্চিত ফুটবলার'রা।
আবাহনী লিমিটেডের স্ট্রাইকার সাদ উদ্দীন বলেন, আশা করি এবারের লিগ অনেক জমজমাট হবে। সবগুলো টিম প্রায় প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছে। 
একই টিমের মিডফিল্ডার রায়হান হাসান বলেন, এর আগেও বিভিন্ন ভেন্যুতে খেলা হয়েছে। প্রচুর দর্শক মাঠে এসেছে। ভেন্যুগুলো দেশের বিভিন্নস্থানে হলে ভালো হয়।
তবে এতসব আলোর নিচেই যেন পুরু অন্ধকারের মেঘ। বিশেষ করে বরাবরই কথা না রাখা বাফুফে, এখনো ঠিকই করতে পারেনি, ঠিক কবে শুরু হবে লিগ। ৮টি ভেন্যুর কথা থাকলেও এখন পর্যন্ত প্রস্তুত মাত্র ৪টি ভেন্যু। বর্ষা মৌসুমকে এড়ানোর জন্য যে লিগকে আনা হয়েছিলো এগিয়ে, সেই লিগই শেষ হবে ভরা বর্ষায়।
শুধু তাই নয়। বাফুফের সঙ্গে বেশ কয়েকটি ক্লাব কর্তাদের বিরোধ এখন ওপেন সিক্রেট। জুলাইয়ের মধ্যে লিগ শেষ না করা গেলে, লিগ বয়কটের হুমকিও আছে তাদের পক্ষ থেকে। সব মিলিয়ে ঘোর অমানিশা বিপিএলের ১১তম আসর ঘিরে। আর এসবের জন্য ফেডারেশন কর্তাদের দায়ী করলেন সাবেকরা।
সাবেক ফুটবলার শেখ মোহাম্মদ আসলাম বলেন, তারা এটাকে কালারফুল করতে চাচ্ছেন। কালারফুল এবং ফুটবল এক জিনিস না। আমার যারা খেলোয়াড় তারা এটাকে কতটা উপভোগ করছে সেটাই হলো মুখ্য উদ্দেশ্য। 
তবে এস প্রশ্নের উত্তর মিলবে আসছে পেশাদার লিগ কমিটির সভায়। যে সভা থেকেই নির্ধারণ হবে বিপিএলের ১১তম আসরের ভবিষ্যৎ।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
বিশ্বকাপের সময়
GoTop