বইমেলা‘বিজয় বায়ান্ন থেকে একাত্তর’ প্রতিপাদ্যে চলছে গ্রন্থমেলা

সময় সংবাদ

fb tw
‘বিজয় বায়ান্ন থেকে একাত্তর’ প্রতিপাদ্যে চলছে অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০১৯। পুরনো প্রকাশনীগুলোর পাশাপাশি যেখানে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে নতুন সংস্থাগুলো। মূলত, নবীন লেখকদের সাহিত্যকর্ম প্রকাশে ভূমিকা রাখছে তারা। শর্তের বেড়াজাল পেরিয়ে বৈচিত্র্যময় প্রকাশনা নিয়ে পাঠকের সামনে হাজির হওয়ার লম্বা সফরে অনুপ্রেরণাই যেখানে পাঠকের সন্তুষ্টি।
এ যেন প্রাণের সম্মিলন, পাঠক লেখক ও প্রকাশকের এক অভূতপূর্ব মেলবন্ধন পুরো প্রাঙ্গণজুড়ে। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে শুরু হয়ে যার ব্যপ্তি সোহরাওয়ার্দী উদ্যান পর্যন্ত।
৩৩৮টি প্রকাশনা সংস্থার অংশগ্রহণে এবারের বই পার্বণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে নতুন প্রকাশনাগুলোও। ৯০ পরবর্তী প্রজন্মের লেখা যেখানে মূল উপজীব্য। রয়েছে সমসাময়িক রাজনীতি, প্রেম-অপ্রেম, মুক্তিযুদ্ধ, বাহান্নসহ নানা বিষয়ে হাজারো সাহিত্যকর্ম।
সব্যসাচী প্রকাশক শতাব্দতী ভব বলেন, এবারের মেলায় কিছু চমক থাকছে, তবে এবার আমরা শিশুদের পাবলিকেশনে বেশি যাচ্ছি। 
নবীন লেখকের সৃষ্টিকর্ম পাঠকের কাছে পৌঁছে দেয়ার কর্মযজ্ঞে প্রতিবন্ধকতা কিছুটা কম নয়। তারপরও প্রজন্মের দায়বদ্ধতায় চ্যালেঞ্জ পেরিয়ে পাঠকের সামনে হাজির হওয়ার আনন্দ কিছু কম নয়।
দাঁড়ি কমা প্রকাশক আব্দুল হাকিম বলেন, পাঠক আর লেখকের মধ্যে যে সেতুবন্ধন সে বন্ধনের কাজটা করছে দাঁড়ি কমা। এবছর দাঁড়ি কমা থেকে ৫০টার মতো বই প্রকাশ হয়েছে। 
শুধু নবীন লেখক নন, প্রবীণ লেখকদের কালজয়ী এবং নতুন সাহিত্যকর্মের সম্ভার নিয়েও সাজানো নতুন প্রকাশনীর স্টল।
পেন্সিল প্রকাশক রাজীব রানা দাশ বলেন, ‘আমরা চাইছি দেশের শিল্প সাহিত্যকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরার জন্য।’ 
প্রকাশকরা বলছেন, ‘সব ধরনের পাঠকের তৃষ্ণা মেটাতেই নতুন নতুন বই আনছেন তারা।’

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop