রসুই ঘরযেসব ফুল খাওয়া যায়

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
ফুল থেকে যে শুধু গন্ধ শুঁকে আনন্দ নেয়া যায় তা নয়। ফুলের মধু ছাড়াও আস্ত ফুলই খাওয়া যেতে পারে। আসুন দেখে নেই উর্বর মাটির এই দেশের কোন কোন ফুলগুলো সহজেই সংগ্রহ করে খাদ্য হিসেবে গ্রহণ করা যায়।
সজনে ফুল
সজনে ডাটা আর পাতা দেশের কোনো কোনো অঞ্চলে তরকারি হিসেবে খাওয়া হয়। এর ফুলও খাদ্য হিসেবে বেশ স্বাদের। গরম ভাতের সঙ্গে সজনে ফুলের বড়া খেতে অনেকেই পছন্দ করেন।
কুমড়ো ফুল
কুমড়ো ফুলের বড়া দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের মানুষের কাছেই জনপ্রিয়। বেসন বা চালের গুঁড়োর ব্যাটারে কুমড়ো ফুল চুবিয়ে ডুবোতেলে ভেজে নেয়া হয়। এছাড়া কুমড়ো ফুল ভেজেও খাওয়া যায়। কেউ কেউ ঝোল ঝোল করে তরকারিও রান্না করে থাকে এই কুমড়ো ফুল দিয়ে।
শিমের ফুল
কেউ কেউ শিমের ফুল চুলার হালকা আঁচে ভেজে ভর্তা বানানো যায়। পেঁয়াজ, মরিচ আর সরিষার তেল মাখানো এই ভর্তা গরম ভাতের সাথে খেতে ভালো লাগবে।
মোচা
কলাগাছের ফুল যা মোচা নামে পরিচিত, এটি তরকারি হিসেবে খাওয়া হয়। ডালের বড়ি বা চিংড়ি দিয়ে মোচার ঘণ্ট রান্না করা হয় কোনো কোনো অঞ্চলে। মোচা ভেজেও খাওয়া হয়। আর ময়দা বা বেসন মিশিয়ে বড়া বানালে খেতে মন্দ লাগে না।
জুঁই ফুল
সাধারণত গ্রিন টি’র সঙ্গে জুঁই ফুল মেশানো হয়।
গাঁদা
গাঁদা ফুলের পাপড়িও চায়ের সঙ্গে মিশিয়ে খাওয়া হয়। এতে দৃষ্টিশক্তি ভালো থাকে।
গোলাপ
বিভিন্ন খাবারে গোলাপ জল মেশানো হয় সেই আদি যুগ থেকে। এক সময় মানুষ কোনো কোনো খাবারে গোলাপের পাপড়ি শুকিয়ে গুঁড়ো করে দিতেন।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop