পশ্চিমবঙ্গবিজেপিকে ‘ফেকলু পার্টি’ বললেন মমতা

সুব্রত আচার্য

fb tw
somoy
রাজ্যের ৪২টি আসনের সব আসনেই তারা জয় পাবেন বলে আবারও দাবি করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মমতা বলেন, বিজেপি দুটো ছিল, এখন জিরো হয়ে যাবে তারা।
বুধবার (০১ মে) কলকাতার অদূরে হাওড়ার আন্দুলে নির্বাচনী প্রচারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপির বিরুদ্ধে তীব্র আক্রমণ করেন। এসময় বিজেপির বিরুদ্ধে ভুয়া খবর ছড়ানোর অভিযোগ তোলেন তৃণমূল নেত্রী। বলেন, রাজ্যের বড় একটি সংবাদপত্রের নামে ভুয়া খবর করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছে বিজেপি।
এসময় বিজেপিকে ‘ফেকলু পার্টি’ বলে কটাক্ষ করেন মমতা বলেন, তৃণমূলের একজন ব্লকস্তরের সভাপতির যে যোগ্যতা আছে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ’র সেই যোগ্যতা নেই। আমাদের জেলা সভাপতির যে যোগ্যতা আছে দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিরও সেই যোগ্যতা নেই। 
মমতা এসময় বিজেপিকে নোট চোর বলেও কটাক্ষ করে বলেন, যা ইচ্ছা তাই করছে বিজেপি, নেতাজিকে বদলে দিচ্ছে বিজেপি, স্বামী বিবেকানন্দকে বদলে দিচ্ছে। 
বিজেপির পক্ষে কিছু মিডিয়া কাজ করছে বলেও দাবি করেন মমতা। বলেন, মিডিয়ার কোনও দোষ নেই। আমি ওদের পক্ষে। মিডিয়াগুলোকে হুমকি দিয়ে ওদের পক্ষে লেখাচ্ছে। 
বিজেপির সময় তিন কোটি মানুষের চাকরি চলে গেছে উল্লেখ করে মমতা বলেন, উত্তর প্রদেশ থেকে দু-লাখ চামড়ার ট্যানারি পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে চলে এসেছে। উত্তর প্রদেশ যোগের রাজ্য নয় ভোগের রাজ্য বলেও কটাক্ষ করেন মমতা। 
মমতা বলেন, ভোটের সময় ভোটপাখি হয়ে পশ্চিমবঙ্গে আসেন বিজেপি নেতৃত্ব। বাকি সময় বাংলায় আসেন না কেউ। কোনও বন্যায় কোনও বিজেপি নেতৃত্ব আসেনি। ৩৪ বছর ধরে বাংলা জ্বলতে জ্বলতে খাক্ হয়ে গিয়েছে, তখনও কোনও বিজেপি নেতৃত্বকে দেখিনি। 
তিনি বলেন, কয়েকজন চোর ডাকাত, জঙ্গলের ডাকাতদের নিয়ে এসে রাজ্যে দাঙ্গা লাগতে চাইছে বিজেপি। গদা, তলোয়ার নিয়ে বিজেপি নেতারা রাস্তায় বের হচ্ছে। নির্বাচন আসলে রাম মন্দির নিয়ে হুজুগ তোলে। গত পাঁচ বছরে একটা ছোট্ট রাম মন্দির গড়তে পেরেছে বিজেপি। নির্বাচন এলেই ওরা এই মন্দির গড়বে বলে দাবি করেন। 
দক্ষিণ ভারতের মাওবাদী হামলার নিন্দা জানিয়ে মমতা বলেন, আমরা বাংলায় মাওবাদী অশান্তি দূর করেছি। মোদি বাবু তো পারেন নি। বিজেপির বিরুদ্ধে পাহাড়ে অশান্তি ছড়ানোরও অভিযোগ তোলেন তিনি। 
কেন্দ্রীয় সরকার রাজ্য সরকারকে অনুদানে বিমাতাসুলভ আচরণ করছে বলেও অভিযোগ তোলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
ভারত জুড়ে চলছে দেশটির ১৭তম জাতীয় নির্বাচন। সোমবারই চতুর্থ দফার ভোট গ্রহণ সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। 
পঞ্চম দফার ভোট হবে ৬ মে। সেদিন ৭ রাজ্যে ভোট হবে ৫১ আসনে। চতুর্থ দফার ভোটের মধ্য দিয়ে ভারতের ৫৪৩ আসনের মধ্যে ৩২০ আসনের ভোট নেওয়া সম্পন্ন করেছে দেশটির নির্বাচন কমিশন। বাকি ২২৩টি আসনের ভোট গ্রহণ বাকি রয়েছে। 
আগামী দফায় পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের ৭টি আসনের ভোট হবে। ৪২ আসনের রাজ্যে ইতোমধ্যে ১৮ আসনের ভোট সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন। 
আগামী দফার নির্বাচনের জন্যই এখন রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় নির্বাচনী প্রচারণায় ব্যস্ত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবারও তিনি পৃথক চারটি জায়গায় নির্বাচনী সভা করেন।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop