তথ্য প্রযুক্তির সময়‘তরুণরাই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন পূরণ করবে’

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
তরুণদের হাত ধরেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্নের আধুনিক ও স্বর্নিভর বাংলাদেশ গড়ে উঠবে বলে মন্তব্য করেছেন বরিশাল সিটি মেয়র সেরনিয়াবাদ সাদিক আবদুল্লাহ। বুধবার (৮ এপ্রিল) সকালে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপের দু’দিনের কর্মসূচি উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন তিনি।
বিসিসি মেয়র বলেন, 'আমাদের প্রধানমন্ত্রী এমন একজন, যিনি সর্বকালের সেরা বাঙ্গালী বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছেন। সেই সঙ্গে নিজের এবং তার পরের প্রজন্ম অর্থাৎ সজীব ওয়াজেদ জয়ে দেখা ডিজিটাল বাংলাদেশের স্বপ্ন পূরণেও কাজ করে যাচ্ছেন।’
তরুণদের উদ্দেশ্য করে সেরনিয়াবাদ সাদিক আবদুল্লাহ বলেন, ‘কিন্তু প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্বপ্ন পূরণ এমনি হয়ে যাবে না। তার স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে তোমাদের।'
উদ্যোক্তা ও নতুন উদ্ভাবনী ভাবনার খোঁজে বুধবার (৮ এপ্রিল) সকালে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় অডিটোরিয়ামে প্রথম দিন বিশেষ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। যেখানে স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপ নিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরা হয়।
এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য ও ট্রেজারার অধ্যাপক ড. এ কে এম মাহবুব হাসান, প্রোক্টর ও উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের চেয়ারম্যান ড. সুব্রত কুমার মণ্ডলসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়া, আইসিটি ডিভিশনের আইডিয়া প্রকল্প কনসালটেন্ট মো. আরাফাত হোসেন, স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপের পাবলিক রিলেশন অফিসার এস এম আমানূর রহমান, ইয়াং বাংলার বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস অ্যাম্বাসেডর রুদ্র দেবনাথ উপস্থিত ছিলেন।
৯ এপ্রিল (বৃহস্পতিবার) অনুষ্ঠিত হবে পিচিং রাউন্ড। যেখানে বাছাই করা হবে তিনটি উদ্যোক্তা দল। যারা অন্যান্য বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আসা দলগুলোর সঙ্গে অংশ নেবে জাতীয় ক্যাম্পে। আগামী ১৪ মে শুরু হবে তিনদিনের জাতীয় ক্যাম্প।
ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের আইসিটি বিভাগের ইনোভেশন ডিজাইন অ্যান্ড এন্ট্রাপ্রেনারশিপ একাডেমি-আইডিয়া প্রকল্প এবং দেশের তরুণদের স্বপ্নের ও সবচেয়ে বড় প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলা’র যৌথ উদ্যোগে চলছে এ স্টার্টআপ প্রতিযোগিতা।
যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয় বা মেডিকেল কলেজের স্নাতক বা স্নাতকোত্তর পর্যায়ের ছাত্রছাত্রীরা ১ থেকে ৩ সদস্য বিশিষ্ট টিম গঠন করে নিজের সুবিধা অনুসারে পুর্বে নির্ধারিত ৪০টি ক্যাম্পাসের যে কোনো একটিতে রেজিষ্ট্রেশনের মাধ্যমে ঐ ভেন্যুতে নির্দিষ্ট তারিখে অংশগ্রহণ করতে পারবে। বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের দুদিনের আয়োজনের প্রথম দিন কর্মশালা এবং দ্বিতীয় দিন পিচিং অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
গত ৮ মার্চ, ‘আমার উদ্ভাবন, আমার স্বপ্ন’ স্লোগানে শুরু হয় শিক্ষার্থীদের উদ্যোক্তা হিসেবে গড়ার এই প্লাটফর্ম। সেরা ভাবনা দিয়ে ১০ লাখ টাকা থেকে কোটি টাকা পযন্ত বিনিয়োগ সহায়তা পাবার সুযোগটি ইতোমধ্যে বেশ আলোচনায় উঠে এসেছে।
মূলত দেশের আট বিভাগ থেকে ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয়কে কেন্দ্র করে পরিচালিত হবে ‘স্টুডেন্ট টু স্টার্টআপ: চ্যাপ্টার ওয়ান’ প্রতিযোগিতা। ক্যাম্পাস পর্যায়ের প্রতিযোগিতায় প্রতিটি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাছাই করা হবে ৩টি করে দলকে। ৪০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে ১২০টি দল নিয়ে সাভারে অনুষ্ঠিত হবে ‘জাতীয় স্টার্টআপ ক্যাম্প। সেখান থেকে নির্বাচন করা হবে সেরা ১০ উদ্ভাবনী ভাবনা।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop