ksrm

খেলার সময়অস্ট্রেলিয়া-পাকিস্তান ম্যাচ বিকেলে

সময় সংবাদ

fb tw gp
বিশ্বকাপের অন্যতম হাইভোল্টেজ ম্যাচে মুখোমুখি হবে পাকিস্তান এবং বর্তমান চ্যাম্পিয়ন অস্ট্রেলিয়া। আগের ম্যাচে স্বাগতিক ইংল্যান্ডকে হারিয়ে জয়ে ফিরেছে পাকিস্তান। আর নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে ভারতের কাছে হেরেছ অজিরা। পয়েন্ট টেবিলে নিজেদের অবস্থান শক্ত করার মিশনে ছাড় দিতে নারাজ দু'দল। টনটনে ম্যাচটি মাঠে গড়াবে বাংলাদেশ সময় বিকেল সাড়ে ৩টায়।
সাম্প্রতিক সময়ে অস্ট্রেলিয়া পাকিস্তান ম্যাচ মানেই যেন বাড়তি উত্তাপ। আর সেটা যদি হয় বিশ্বকাপ মঞ্চে। ২০১৫ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে শেন ওয়াটসন আর ওয়াহাব রিয়াজের সেই আক্রমণী ওভারের পর দু'দলের ম্যাচ ঘিরে পেয়েছে বাড়তি আগ্রহ।
এখন পর্যন্ত ইংল্যান্ডে ফেবারিটদের মতোই এগুচ্ছে অস্ট্রেলিয়া। ৩ ম্যাচে ২টি জয় নিয়ে টেবিলের ৪ নম্বরে অবস্থান অজিদের। পাকিস্তানের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে কিছুটা হলেও নির্ভার থাকবে অ্যারন ফিঞ্চ। কারণ সবশেষ দু'দলের সিরিজটি আবুধাবিতে অজিরা জিতেছিল ৫-০ ব্যবধানে। তাছাড়া আগের বিশ্বকাপে ক্যাঙ্গরুদের কাছে হেরে বিদায় নিয়ে ছিল পাকিস্তান।
কিছুদিন আগেও ধুকতে থাকা অস্ট্রেলিয়া শিবিরে ডেভিড ওয়ার্নার ও স্টিভেন স্মিথের অন্তর্ভুক্তির পর ঘুরে দাঁড়িয়েছে দলটি। তাছাড়া টপ অর্ডারে প্রতিপক্ষের বোলারদের শাসন করছেন অ্যারন ফিঞ্চ ওসমান খাজারা। যেকোন ম্যাচে লাগাম টানতে পারেন ম্যাকওয়েল। লোয়ার অর্ডারে ক্যামিও খেলে দিচ্ছেন অ্যালেক্স ক্যারি, কোল্টার নাইলরা।
পাকিস্তান ব্যাটসম্যানদের ভোগাতে গতির গোলা ছুড়তে প্রস্তুত মিচেল স্টার্ক, প্যাট কামিন্সরা। তাছাড়া রয়েছেন লেগ স্পিনার অ্যাডম জাম্পা। যদিও এখনো তার কাছ থেকে কাঙ্ক্ষিত পারফরম্যান্স পাচ্ছে না দল। ইনজুরির কারণে একাদশে থাকছেন না স্টয়নিস। তার পরিবর্তে স্কোয়াডে আসতে পারেন মিচেল মার্শ।
আনপ্রেডিক্টেবল পাকিস্তান। এই তকমাটা ছেড়ে ধারাবাহিক হতে মারিয়া দলটি। তবে এবারের বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ১০৫ রানে ধরাশয়ী হয় সরফরাজের দল। পরে অবশ্য এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে শক্ত প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ডকেই হারিয়ে ফিরেছে জয়ে। পয়েন্ট টেবিলে ১ জয় আর ১ হারে রয়েছে ৮ নম্বরে।
অজিদের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে পাকিস্তানের জন্য মাথা ব্যাথার কারণ হতে পারে ওপেনার ফখর জামানের ফর্মহীনতা। তবে ইমাম উল হক, বাবর আজমরা ভূমিকা রাখছেন।
বৈচিত্র্যময় বোলিং আক্রমণ এখনো আশা দেখাতে পারেনি পাকিস্তানকে। সাদাব খান, ইমাদ ওয়ামিসরা খুঁজে পায়নি ছন্দ। মোহাম্মদ আমির, ওয়াহাব রিয়াজ, হাসান আলীরা জ্বলে উঠলে অজিদের আটকাতেও পারে ১৯৯২ বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
GoTop