বাণিজ্য সময়দু'মাসেই ব্যাংকে জমেছে ৭৬ হাজার কোটি টাকা!

ইমতিয়াজ আহমেদ

fb tw
চলমান পরিস্থিতিতে দেশের বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে বাড়ছে অলস অর্থের পরিমাণ। গত দু'মাসেই ব্যাংকগুলোতে জমেছে ৭৬ হাজার কোটি টাকারও বেশি। এ অবস্থায় সরকারি বন্ড বিলে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো বিনিয়োগ করলেও অর্থনীতিবিদদের পরামর্শ, সুদের হার কমিয়ে ক্ষুদ্র এ মাঝারি শিল্পখাতে ব্যাংক ঋণ বাড়ানো জরুরি।
তিন মাসের টানা হরতাল অবরোধের মত কর্মসূচির কারণে চলমান ব্যবসা অনেকটা স্থবির হয়ে পরায় নতুন করে বিনিয়োগে আসছে না উদ্যোক্তারা। এই সময় বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে কমেছে ঋণ বিতরণের হার। বাংলাদেশ ব্যাংকের তথ্য মতে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে অলস অর্থ রয়েছে ১ লাখ ৮৩ হাজার কোটি টাকারও বেশি। গত বছর ডিসেম্বর পর্যন্ত যা ছিল ১ লাখ ৭ হাজার কোটি টাকা। অর্থাৎ মাত্র ২ মাসে অলস অর্থের পাহাড়ে যোগ হয়েছে অতিরিক্ত ৭৬ হাজার কোটি টাকা।
বর্তমান অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে নতুন বিনিয়োগ কম হওয়ায় ব্যাংকগুলোতে অলস অর্থের পরিমাণ বাড়ছে বলে জানিয়েছে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো। এ অবস্থায় সরকারি বিভিন্ন বিল বন্ডে বিনিয়োগ করছে বাণিজ্যিক ব্যাংক। এই বিষয়ে উত্তরা ব্যাংক লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক শেখ আবদুল আজিজ বলেন, 'নতুন কোনো বিনিয়োগকারী আসছে না। এখন যন্ত্রপাতি আমদানি কমেছে। এই কারণে ব্যাংকের অলস অর্থের পরিমাণ বেড়েছে। আমার মনে হয় এটি সাময়িক। যখন পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়ে যাবে তখন আবার এটি ঠিক হয়ে যাবে। '
ঋণ প্রদানের ক্ষেত্রে ব্যাংকগুলোর অতি সতর্কতার কারণেও ঋণ কার্যক্রম কমছে বলে মত অর্থনীতিবিদদের। এ অবস্থায় ব্যাংকগুলোকে সুদের হার কমিয়ে ঋণপ্রদানের নতুন খাত খুঁজে বের করার পরামর্শ তাদের। অর্থনীতিবিদ ড. জায়েদ বখত বলেন, 'হলমার্ক পরবর্তী সময়ে শুধুমাত্র সরকারি ব্যাংক নয়, বেসরকারি ব্যাংকও সতর্ক হয়ে গেছে। '
এই বিষয়ে উন্নয়ন অন্বেষণের চেয়ারম্যান ড. রাশেদ আল মাহমুদ তিতুমীর বলেন, 'উদ্যোক্তা গঠনে অর্থলগ্নিকারী প্রতিষ্ঠানগুলো বিরাট ভূমিকা রাখতে পারে, কেন্দ্রীয় ব্যাংকের মাধ্যমে নতুন নতুন তহবিল করা যেতে পারে। কিন্তু মনে রাখতে হবে, কোনো প্রক্রিয়ায় যেনো খেলাপি না হয়। '
আর বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ মনে করেন, এই অলস টাকা ব্যবহার করতে হলে ব্যাংকারদেরকে আরো একটিভ হতে হবে। '
বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোতে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত  মোট আমানতের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ৭ লাখ ৮ হাজার ২৫২ কোটি টাকা। এই সময়ের মধ্যে ব্যাংকগুলো তাদের আমানতের বিপরীতে ঋণ দিয়েছে ৫ লাখ ২৪ হাজার ৯৯১ কোটি টাকা।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop