বাংলার সময়বাঁধ ভেঙে প্লাবিত ফেনীর ২০ গ্রাম

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
প্রবল বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলের পানির তোড়ে ১২ জায়গায় ফেনীর মুহুরী কহুয়া বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে গত দুই দিনে প্লাবিত হয়েছে ফুলগাজী ও পরশুরাম উপজেলার ২০টি গ্রাম। প্রথম দিনের প্লাবিত ১৫ গ্রামের পানি কমলেও প্লাবিত হচ্ছে নতুন নতুন গ্রাম। এদিকে ক্ষয়ক্ষতি নিরূপণের আগেই উম্মুক্ত বাঁধের কারণে আবারও ক্ষতির আশংকায় সেখানকার মানুষের আতংক কাটছেনা। অন্যদিকে কর্তৃপক্ষ বলছে, বর্ষায় বাঁধ মেরামত সম্ভব নয়।
পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, মঙ্গলবার (৯ জুলাই) সন্ধ্যা থেকে ফেনীর মুহুরী নদীর পরশুরাম পয়েন্টে উজানের পানি বিপদসীমার দুই মিটার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়েছিল। সেসময় প্রবল পানির তোড়ে মুহুরী কহুয়া বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ১২ জায়গায় ভেঙে প্লাবিত হয় পরশুরাম ও ফুলগাজী উপজেলার ১৫ গ্রাম। এরমধ্যেই উজানের ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের পাহাড়ি অঞ্চলের পানির চাপ কমায় নদীর প্রবাহ কমে এসেছে বিপদ সীমার ২ মিটারের নিচে। সেই সাথে আগের গ্রামগুলোর পানি কমে ভাটির গ্রামগুলো নতুন করে প্লাবিত হচ্ছে। তবে উম্মুক্ত বাঁধের কারণে কমছেনা মানুষের আতংক।
এদিকে পরশুরামের মত ফুলগাজী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাও মনে করেন বাঁধ উম্মুক্ত থাকলে ক্ষতি বাড়বে।
ফেনীর ফুলগাজীর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, যখনই পাহাড়ি ঢল হবে বাঁধের খোলামুখ দিয়ে পানি প্রবেশ করে এখানকার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হবে।
অন্যদিকে পানি উন্নয়ন বোর্ড বলছে, বর্ষায় বাঁধ মেরামত করা হলে তা টিকবে না।
২০১২ সালে ১৩০ কোটি টাকা ব্যয়ে মুহুরী ও কহুয়া বন্যা নিয়ন্ত্রণ প্রকল্পের আওতায় ১২২ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের নতুন বাঁধ নির্মাণ করা হয়।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop