বাণিজ্য সময়বৈশাখে বিক্রি নিয়ে শঙ্কায় ফ্যাশন হাউজগুলো

ইমতিয়াজ আহমেদ

fb tw
হরতাল অবরোধের কারণে বিভিন্ন সমস্যার মধ্যেই বৈশাখী প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে দেশের ফ্যাশন হাউজগুলো। রঙ আর ডিজাইনের পাশাপাশি এবারের বৈশাখে ঘিরে পোশাকে রাখা হচ্ছে বিভিন্ন বৈচিত্র্য। এরই মধ্যে বিভিন্ন দোকানে এসব বাহারি পোশাকের দেখা মিললেও চলমান রাজনৈতিক অস্থিরতায় বিক্রি নিয়ে শঙ্কায় রয়েছেন ফ্যাশন হাউজ মালিকরা।
লাল আর সাদার সমাহারে যেন এক রঙ্গিন উৎসব পহেলা বৈশাখ, বাংলা নববর্ষ। আর একে ঘিরেই ধর্মবর্ণ নির্বিশেষে সাবই মেতে ওঠে প্রাণের উৎসবে। তাই এই উৎসবকে ঘিরে রঙের বাড়াবাড়িটা যেন একটু বেশিই থাকে। বাহারি রঙের ব্যবহারের পাশাপাশি ভিন্নতা থাকছে ডিজাইনেও।
পোশাক পছন্দেও এসেছে নতুনত্ব। শুধুমাত্র শাড়ি কিংবা পাঞ্জাবিকে ঘিরে নয়, বৈশাখের ছোঁয়া থাকছে সালোয়ার কামিজ, টপস, ফতুয়া, টিশার্টে। বাঙ্গালির হাজার বছরের পুরনো কৃষ্টি ও সংস্কৃতির পাশাপাশি বিভিন্ন পট-চিত্র ও মোটিভও থাকছে এসব পোশাকের ডিজাইনে।
রঙ'র স্বত্বাধিকারী বিপ্লব সাহা বলেন, 'আমাদের মধ্য থেকে যে জিনিসগুলো হারিয়ে যাচ্ছে সেই জিনিসগুলো পরবর্তী প্রজন্মকে বুঝিয়ে দেয়া আমাদের দায়িত্ব। পোশাক এখন শুধু উৎসব আর আবরণ নয়। পোশাক এক ধরণের বার্তা পৌঁছে দেয়। প্রত্যেকটা রঙে এবং মোটিভে আমরা সেটা দেয়ার চেষ্টা করি।'
সাদাকালো'র ব্যবস্থাপনা পরিচালক আজহারুল হক আজাদ বলেন, 'পহেলা বৈশাখে যেহেতু গরমের একটা প্রভাব থাক সেই কারণে আরামদায়ক কাপড়ের কথা মাথায় রাখতে হয়।'
ব্লক প্রিন্ট, স্ক্রিন প্রিন্ট, এপ্লিকের ডিজাইনে উজ্জ্বল রঙ আর কন্ট্রাস্ট কম্বিনেশনে উৎসবমুখী তরুণ মনের উপযোগী বিভিন্ন পোশাকেরও দেখা মিলছে বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজে। পহেলা বৈশাখের আগের দিন পর্যন্ত শোর-রুমগুলোতে নতুন ডিজাইনের পোশাক আসবে বলে জানালেন বিভিন্ন ফ্যাশন হাউজের কর্ণধাররা।
রঙ'র স্বত্বাধিকারী বিপ্লব সাহা বলেন, 'প্রস্তুতি প্রায় শেষ এখন মানুষের কেনাকাটার পালা। প্রতিদিনই নতুন নতুন কালেকশন আসছে। অনেক দামি না হলেও যার যেরকম বাজেট আছে সেই ভাবে একটা নতুন পোশাক পড়ে নতুন বছর শুরু করবে আমরা এটা আশা করি। আমরা সেই দিক মাথায় রেখেই ডিজাইনগুলো করেছি।'
সাদাকালো'র ব্যবস্থাপনা পরিচালক আজহারুল হক আজাদ বলেন, 'প্রতি বছর অনেক আগে থেকে যেভাবে প্রস্তুতি নিতে পারি। সেই তুলনায় এই বছর প্রস্তুতির সময় কম পাওয়া গেছে। আমরা যেসমস্ত আয়োজন নিয়ে বসে থাকছি যদি কোনো কারণে বেচা-বিক্রি কম হয় সেই ক্ষতি আমাকেই বহন করতে হবে।'
বৈশাখকে কেন্দ্র করে সর্বোচ্চ প্রস্তুতি থাকলেও রাজনৈতিক পরিস্থিতির ওপরেই নির্ভর করবে বাকি দিনগুলোর বেচা-বিক্রি এমনটাই মনে করছেন ফ্যাশন হাউজ মালিকরা।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop