আন্তর্জাতিক সময়পরমাণু চুক্তির শর্ত মানতে ইরানের প্রতি ইইউ'র আহ্বান

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
পরমাণু চুক্তির বিকল্প নেই উল্লেখ করে চুক্তির শর্ত মেনে চলতে ইরানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন। সোমবার ব্রাসেলসে জোটের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠক শেষে ইইউ'র পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান ফেদেরিকা মোঘেরিনি এ আহ্বান জানান। তবে ইইউ তাদের প্রতিশ্রুতি রক্ষা না করলে চুক্তির শর্ত ভঙ্গ করে আগের অবস্থায় ফিরে যাওয়ার ঘোষণা দিয়েছে তেহরান। ইরানের সঙ্গে পাঁচ বিশ্বশক্তি ও জার্মানির পরমাণু চুক্তি রক্ষার সম্ভাবনা খুবই কম হলেও মধ্যপ্রাচ্যকে পরমাণু অস্ত্রমুক্ত রাখার অঙ্গীকার করেছে যুক্তরাজ্য।
সোমবার ব্রাসেলসে ইউরোপের ২৮ দেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে ইরানের সঙ্গে পাঁচ বিশ্বশক্তি ও জার্মানির পরমাণু চুক্তি নিয়ে বেশ গুরুত্ব সহকারে আলোচনা করা হয়। শর্ত ভঙ্গের অভিযোগ এনে গত বছর যুক্তরাষ্ট্র চুক্তি থেকে বেরিয়ে গেলেও ইরোপীয় ইউনিয়ন মনে করে, ইরান এখন পর্যন্ত যে সব শর্ত লঙ্ঘন করেছে তার সব আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনা সম্ভব। শর্ত ভেঙে ইরানের নেয়া সাম্প্রতিক পদক্ষেপ থেকে সরে এসে পরমাণু চুক্তির সব শর্ত মেনে চলার আহ্বান জানান ইইউ'র পররাষ্ট্রনীতি বিষয়ক প্রধান।
ফেদেরিকা মোঘেরিনি বলেন, 'বাস্তবতা হলো, চুক্তিটি ইরানকে পরমাণু অস্ত্র নির্মাণ থেকে বিরত রেখেছে এবং এটা এখনো কার্যকর রয়েছে। আমি মনে করি আমরা এ বিষয়ে সবাই একমত যে, পরমাণু চুক্তিটির কোন বিকল্প নেই। বড় একটি আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় হিসেবে আমাদের অন্যতম দায়িত্ব হলো, যতটুক সম্ভব ঐ অঞ্চলে শান্তি স্থিতিশীলতা বজায় রাখা।'
বৈঠক শুরুর আগে পারস্য উপসাগরে স্থিতিশীলতা বজায় রাখার পাশাপাশি ইরানের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের চলমান উত্তেজনা নিরসনের ওপর গুরুত্বারোপ করেন ইউরোপীয় ইয়নিয়নের নেতারা। অঞ্চলটিতে সামরিক উত্তেজনা এড়াতে ইইউ নেতারা ঐক্যবদ্ধ হবেন বলেও জানানো হয়।
ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট বলেন, 'চুক্তিটি এখনো মারা যায়নি, মধ্যপ্রাচ্যকে পরমাণু নিরস্ত্রীকরণের ব্যাপারে আমরা এখনো অঙ্গীকারবদ্ধ। ইরান পরমাণু অস্ত্রের অধিকারী হলে অন্য দেশগুলো সেই পথে এগুবে। সেক্ষেত্রে পরিস্থিতি ভয়াবহ রূপ নেবে। তাই চুক্তিটি কিভাবে রক্ষা করা যায় আমরা সে পথ খুঁজছি।'
তবে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় ইউনিয়ন যদি অঙ্গীকার পূরণ না করে সেক্ষেত্রে ইরানও পরমাণু চুক্তির কয়েকটি শর্ত লঙ্ঘন করবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে দেশটির পরমাণু শক্তি সংস্থা AEOI'র মুখপাত্র বেহরুজ কামালবান্দি। বলেন, একগুয়েমি থেকে নয় বরং অপর পক্ষকে চুক্তি লঙ্ঘনের বিষয়টি
উপলব্ধি করার সুযোগ দিতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে তেহরান।
অন্যদিকে আন্তর্জাতিক বিশ্বের সঙ্গে ভাল অর্থনৈতিক সম্পর্কের জন্য ইরানকে পরমাণু চুক্তির শর্ত পূরণ করা উচিত বলে জানিয়েছে চুক্তিতে স্বাক্ষরকারী আরেক দেশ জার্মানি।
এদিকে, পরমাণু অস্ত্র নির্মাণ থেকে ইরানকে যে কোন মূল্যে প্রতিহত করার ঘোষণা দিয়েছেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বিনইয়ামিন নেতানিয়াহু। একইসঙ্গে, ইরানের পরমাণু চুক্তি রক্ষায় ইউরোপীয় ইউনিয়নের তৎপরতারও সমালোচনা করেন তিনি।
চুক্তির শর্ত ভঙ্গের অজুহাতে গত বছরের মে মাসে ইরানের সঙ্গে পাঁচ বিশ্বশক্তি তথা যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, রাশিয়া, ফ্রান্স ও চীনের পাশাপাশি জার্মানির পরমাণু চুক্তি থেকে বেরিয়ে যায় ওয়াশিংটন। এরপর থেকেই ইরানের ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা আরোপ ছাড়াও পাল্টাপাল্টি যুদ্ধের হুমকি দিয়ে আসছে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্র। তবে মধ্যপ্রাচ্যে স্থিতিশীলতা রক্ষায় জোর প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে ইউরোপীয় ইউনিয়নসহ চুক্তিতে সই করা অন্য দেশ গুলো।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop