খেলার সময়পৃথিবীর প্রথম ক্রিকেট সংগ্রহশালা 'এমসিসি জাদুঘর'

সময় সংবাদ

fb tw
পৃথিবীর প্রথম ক্রিকেট সংগ্রহশালা। যেখানে ক্রিকেট বিশ্বের অমূল্য সব নিদর্শন দেখে মুগ্ধ হবে যে কেউ। শত বছরের পুরনো এই ক্রিকেট সংগ্রহশালা ক্রিকেটের তীর্থভূমি লর্ডসে। মেরিলিবন ক্রিকেট ক্লাব নামে পরিচিত পুরো বিশ্বে। ক্রিকেটপ্রেমীরা ক্রিকেটের এই জাদুঘর পরিদর্শনেও বেশ রোমাঞ্চিত।
মেরিলিবন ক্রিকেট ক্লাব। ক্রিকেটের সবচেয়ে আভিজাত্যের ক্লাব। তবে মেরিলিবন একটু ভিন্নভাবে পরিচিত ক্রিকেট দুনিয়ার মানুষদের কাছে- তাহলো পৃথিবীর অন্যতম সেরা ক্রিকেট সংগ্রহশালা হিসেবে। বিশ্বের যতোসব রথী মহারথীরা ক্রিকেট ময়দান নাচিয়েছেন, তাদের গর্জন আর অর্জনগুলো এই মিউজিয়ামে খোদাই করে লেখা আছে। আছে, তাদের বল, জার্সি, প্যাডের সংগ্রহ।
মেরিলিবন ক্রিকেট ক্লাব মিউজিয়াম। বিশ্বের প্রথম ক্রিকেট সংগ্রহশালা। কি নেই এখানে। শত বছরের পুরনো সব ক্রিকেটীয় নিদর্শনের দশন পাবেন আর মুগ্ধ নয়নে উপভোগ করে জানতে পারবেন ক্রিকেটের সব রথীমহারথীদের বীরত্ব গাথা গল্প।
বিশ্ব ক্রিকেটের অমূল্য রত্নভাণ্ডার বলা যেতে পারে এই জাদুঘরকে। ক্রিকেট দুনিয়ার ঐতিহ্য আর স্মৃতির ধারক এই ক্রিকেট মিউজিয়াম। অনেক বছরের পুরনো ট্রফি ব্যাট স্ট্যাম্প জার্সি হেলমেট অনেক যত্নে রাখা হয়েছে এমসিসিতে। যা দেখে অতীতের ক্রিকেট সম্পর্কে ক্রিকেট জানতে পেরেছেন দর্শনার্থীরা।
জাদুঘর দর্শনে যাওয়া এক নারী সাংবাদিক বলেন, ক্রিকেটের ঐতিহ্য সংগ্রহে মেরিলিবনের অবদান অনস্বীকার্য। প্রতিটি বিশ্বকাপের খুটিনাটি বিষয়গুলো ছাড়াও ক্রিকেটের বিরল সব বিষয়ের ক্রিকেটীয় সরঞ্জামাদি এখানে সংগৃহীত আছে, যা সত্যিই অপূর্ব। ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ক্রিকেটে উদ্বুদ্ধ করতে এই জাদুঘরের জুড়ি নেই।
আরেক সাংবাদিক বলেন, এটা এখানে আমার প্রথম ভ্রমণ। ক্রিকেটের অজানা সব জিনিস দেখে আমি বিস্মিত। ছোট্ট স্ট্যাম্প থেকে শুরু করে রেকর্ড গড়া ব্যাট- আপনি এখানে সবই পাবেন। ক্রিকেট ঐতিহ্যের নিদর্শন দিয়ে মোড়ানো একেকটি শোকেস। এইসব নিদর্শন আমাকে অতিতে নিয়ে যাচ্ছিল।
যেখানে ভিভ রিচার্ডস, শচীন টেন্ডুলকার, লারা, পন্টিং, শেন ওয়ার্নদের জার্সির ভীড়ে লন্ডসের এই ক্রিকেট জাদু ঘরে বাংলাদেশের কোনো নিদর্শন খুঁজে পাওয়াটা প্রত্যাশিত ছিলো না। তবে, দারুণ লেগেছে ১৯৯৯ বিশ্বকাপে আমিনুল ইসলাম বুলবুলের জার্সি আর ভারতের বিপক্ষে অভিষেক সেঞ্চুরি হাঁকানো ব্যাটটি দেখে।
আগের আমলের স্কোর কিভাবে সংরক্ষণ করা হতো তাও আছে এখানে। আছে আধুনিক ক্রিকেটের নানান গল্পও। সব মিলে এই জাদুঘরের নিদর্শনগুলো ক্রিকেটের প্রতি আপনার ভালবাসাকে আরো গাড় করবে। শত বছরের ট্রফিগুলোও যত্ন করে রাখা আছে সেখানে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop