বাংলার সময়দিপ্তীকে ধর্ষণ-হত্যা মামলায় ইজিবাইক চালক গ্রেফতার

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
মাদারীপুরে ১০ম শ্রেণির মাদ্রাসাছাত্রী দিপ্তী আক্তারকে ধর্ষণ শেষে হত্যার করে লাশের সঙ্গে ইট বেঁধে পুকুরে ফেলার রাখার মামলায় ইজিবাইক চালক সাজ্জাদ হোসেন খানকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৮।
শনিবার ভোর ৫টায় নিজ বাড়ি থেকে খাগদী থেকে আটকের পর বেলা ১১টার দিকে র‌্যাব-৮ এর অতিরিক্ত ডিআইজি (সিও) আতিকা ইসলাম মাদারীপুর ক্যাম্পে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান। এর আগে ১৯৯২ সালে ৭ বছরের শিশুকে গলাকেটে হত্যার মামলায় ১৮ বছর কারাভোগ করেন সাজ্জাদ। তিনি, মাদারীপুর পৌরসভার পূর্ব খাগদী এলাকার মৃত সিরাজুল ইসলামের ছেলে।
র‌্যাব-৮ এর প্রধান কমান্ডিং অফিসার (সিও) অতিরিক্ত ডিআইজি আতিকা ইসলাম বলেন, গত ১১ জুলাই মাদারীপুর শহরের ইটেরপুল বোনের বাসা থেকে ইজিবাইকযোগে চরমুগরিয়ার দিকে যাচ্ছিল দিপ্তী। পরে পূর্ব খাগদী এলাকায় ইজিবাইক চালক সাজ্জাদের বাড়ি দিকে পৌঁছালে ইজিবাইকে দিপ্তী একা থাকায় জোর করে ঘরের ভেতর নিয়ে যান সে। চেতনানাশক দিয়ে দিপ্তীকে অচেতন করে ধর্ষণ করে। এক পর্যায়ে দিপ্তী অসুস্থ হয়ে পড়লে গলা টিপে তাকে হত্যা করা হয়। পরে গলায় ইট বেঁধে নিহতের লাশ বস্থায় ভরে সাজ্জারের বাড়ির কাছের একটি পুকুরে ফেলে রাখে।
১৩ জুলাই নিহতের লাশ পুকুরে ভাসতে দেখে স্থানীয়রা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ গিয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মাদারীপুর সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে। পরে লাশের শরীরের পড়নে পোশাক দেখে দিপ্তীর লাশ শনাক্ত করে পরিবার।
১৪ জুলাই নিহত দিপ্তীর পরিবার সদর মডেল থানায় ধর্ষণ শেষে হত্যা করা হয়েছে এ মর্মে একটি মামলা করে। লাশ উদ্ধারের সূত্র ধরে তদন্তে নামে র‌্যাব। পরবর্তীতে ধর্ষণ ও হত্যার কাজে ব্যবহৃত আলামত উদ্ধার ও সাজ্জাকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় দোষ স্বীকার করেছে বলেও জানিয়েছে র‌্যাব। পরে শনিবার দুপুরে সাজ্জাদকে সদর মডেল থানায় হস্তান্তর করা হয়।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop