খেলার সময়দল জেতাতে ব্যর্থ রোনালদো

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
য়্যুভেন্তাসকে হারিয়ে প্রাক মৌসুমটা দুর্দান্তভাবে শুরু করলো টটেনহাম হটস্পার। হ্যারি কেইনের অবিশ্বাস্য গোলে ইতালিয়ান জায়ান্টদের ৩-২ গোলে হারালো ইউসিএল রানার্সআপরা। নিজে গোল পেলেও, দলকে জেতাতে ব্যর্থ ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।
চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনালের পর প্রতিযোগিতামূলক কোন ম্যাচে আর মাঠে নামা হয়নি স্পারদের। টুকটাক অনুশীলনেই তাই নিজেদের ঘষেমেজে নিয়েছিলেন প্রাক মৌসুমের জন্য। 
একই অবস্থায় ছিলো ইতালিয়ান জায়ান্টরাও। খেলোয়াড় কেনাবেচায় মশগুল জুভদেরও ছিলো না নিজেদের ঝালিয়ে নেয়ার সুযোগ। সিংগাপুর জাতীয় স্টেডিয়ামে তাই ২০১৯-২০ মৌসুমের আগে নিজেদের খুঁজে পেতে নেমেছিলো দু'দল।
ম্যাচের শুরুটা একেবারেই ম্যারমেরে। গোছানো ফুটবল বলতে যা বোঝায় তার ছিটেফোটাও ছিলোনা তাদের খেলায়। আচমকা আক্রমণে গেলেও ফরোয়ার্ডরা ছিলেন নিজেদের ছায়া হয়ে। ফুটবলারদের আড়স্টতা কাটাতেই বেগ পেতে হয় দুই কোচকে।
মরিসিও সারির প্রথম অ্যাসাইনমেন্ট, তাই হয়তো দ্রুতই সামলে নেয়ার উপায় বাতলে দিলেন দলকে। রোনালদোর সঙ্গে দারুণ বোঝাপড়ায় গতি বাড়ালেন মানজুকিচ, পিয়ানিচ। কিন্তু লাভের লাভটা হলো না। উলটো ৩০ মিনিটে আচমকা আক্রমণে এগিয়ে যায় লিলি-হোয়াইটরা।
ডান পাশ থেকে সন মিনের শটটা আটকে দিলেও গ্রিপে নিতে পারেন নি জিয়ান লুইজি বুফন। সেই সুযোগে স্কোর শিটে নাম উঠান এরিক লামেলা। ১-০'তে এগিয়ে যায় দল। 
গোল খেয়ে অবশ্য আশাহত হয়নি তুরিনের বুড়িরা। নতুন উদ্যোমে আক্রমণে উঠে তারা। তবে, প্রথমার্ধ্ব নিষ্ফলাই কাটে সারি শিষ্যদের।
বিরতি থেকে ফিরে নিজেদের খুঁজে পেতে শুরু করেন হিগুয়াইন-রোনালদোরা। ফলও আসে দ্রত। ৫৬ মিনিটে বক্সের বাইরে থেকে দুর্দান্ত শটে গাজানিগাকে বোকা বানান গঞ্জালো হিগুয়াইন। সমতায় ফেরে ইতালিয়ান জায়ান্টরা।
দীর্ঘক্ষণ পার্শ্বচরিত্রে অভিনয় করে ততক্ষণে হাপিয়ে উঠেছিলেন পর্তুগীজ রাজপুত্র। ৬০ মিনিটে তাই নিজেই আসেন লাইমলাইটের নীচে। গোল করে প্রথমবারের মতো দলকে এগিয়ে দেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো।
কিন্তু ম্যাচের তখন অনেক নাটক বাকি। প্রাক মৌসুম ম্যাচ বলে, ছেড়ে দেয়ার মানসিকতা নেই পচেত্তিনো শিষ্যদের। ৫ মিনিট বাদেই লুকাস মৌরার গোলে সমতায় ফেরে স্পাররা।
পরের ২৫ মিনিট আক্রমণ আর পালটা আক্রমণে মাঠ গরম করে গেছে দু'দল। কিন্তু গোলের দেখা পায়নি কেউই।
ম্যারেম্যারে ড্র'তে ম্যাচের যবনিকাপাত ঘটবে বলে সবাই যখন অপেক্ষা করছিলো, তখনই জ্বলে উঠেন স্পারদের ত্রাণকর্তা হ্যারি কেইন। ইনজুরিতে গত মৌশুমের শেষটা মাঠে না থাকতে পারলেও, খেলাটা যে ভুলে যাননি তা দেখিয়ে দিলেন এ ইংলিশ ফরোয়ার্ড।
যোগ করা সময়ের তৃতীয় মিনিটে মাঝ মাঠ থেকে অবিশ্বাস্য এক গোল করে বসেন তিনি। আর এ গোলেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ইউসিএল রানার্সআপরা। 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop