মহানগর সময়শোলাকিয়ায় ১৯২তম ঈদ জামাতে লাখো মুসল্লি

সময় সংবাদ

fb tw
লাখো মানুষের অংশগ্রহণে কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ময়দানে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৯২তম ঈদ জামাতে অংশ নেন লাখো মুসল্লি। এদিকে, দিনাজপুর ঐতিহাসিক গোরে শহীদ ময়দানে ঈদুল আজহার নামাজ আদায় করেন প্রায় তিনলাখ মুসল্লি। মোনাজাতে মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করা হয়। ঈদ জামাত ঘিরে ছিলো কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা।
কিশোরগঞ্জে ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহে ঈদুল আজহার নামাজ শুরু হয় সকাল সাড়ে ৮টায়। ভোর থেকেই দলে দলে ঈদগাহে যান মুসল্লিরা। রীতি অনুযায়ী বন্দুকের গুলি ছুঁড়ে জামাতের চূড়ান্ত প্রস্তুতি জানান দেয়া হয়।
শোলাকিয়া ঈদগাহে বড় জামাতের সাথে নামাজ আদায় করলে বেশি সওয়াব পাওয়া যায়। তাই প্রতি বছর ঈদের সময় এখানে ঢল নামে লাখো মুসুল্লির। অনেকে এ মাঠে নামাজ পড়ছেন বংশ পরস্পরায়।
এ দিকে জামাতকে ঘিরে প্রশাসনের পক্ষ থেকে গড়ে তোলা হয়, তিনস্তরের নিরাপত্তা বলয়। মাঠের নিরাপত্তায় এক হাজারেরও বেশি র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি ছিল ২ প্লাটুন বিজিবি। নামাজ শুরুর আগে পুরো মাঠ মেটাল ডিটেক্টর দিয়ে সুইপিং করা হয়। কয়েক দফা তল্লাশীর পর মুসল্লিদের প্রবেশ করতে দেয়া হয় ঈদগাহে। সিসি ক্যামেরার পাশাপাশি ঈদগাহ ময়দান ও আশপাশের এলাকা নজরদারি করে শক্তিশালী ড্রোন ক্যামেরা।
কোন এক ঈদের জামাতে শোলাকিয়া ঈদগাহে এক লাখ ২৫ হাজার বা সোয়া লাখ মুসল্লি এক সাথে নামাজ পড়েন। সেই থেকে এ মাঠের নাম হয় সোয়া লাখিয়া। যা এখন শোলাকিয়া নামে পরিচিত। তবে এবার কোরবানীর আনুষ্ঠানিকতার জন্য মাঠে মুসল্লির সংখ্যা ছিল অনেক কম।
যথাযোগ্য মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগম্ভীর পরিবেশে মুসলিম উম্মাহর শান্তি কামনা করে লাখো মুসুল্লির সমাগমে দিনাজপুরে ঈদুল আযহার নামায আদায় করেন। আজ সকাল সাড়ে ৮টায় দিনাজপুর ঐতিহাসিক গোরে শহীদ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে দক্ষিন এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্টিত হয়। জামাতে ঈমামতি করেন মাওলানা সামশুল আলম কাসেমী। আয়োজকরা জানিয়েছেন প্রায় ৩ লাখের অধিক মুসুল্লি নামায আদায় করেন।
আজ সকাল সাড়ে ৮টায় দিনাজপুর ঐতিহাসিক গোরে শহীদ কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে দক্ষিন এশিয়ার সর্ববৃহৎ ঈদের জামাত অনুষ্টিত । সকাল থেকে প্রখর রোদ্র উপেক্ষা করে মহান আল্লআহর নৈকট্য লাভের আশায় সকাল ৭টা থেকে জেলার ১৩ উপজেলাসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে আসা মুসুল্লিরা ঈদগাহ ময়দানে জড়ো হতে থাকেন। র‌্যাব, পুলিশ,বিজিবি, আনসার ও সাদা পোশাকের বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যদের কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ২২৫ টি কাতারে মুসুল্লিরা নামায আদায় করেন । এখানে নামায আদায় করেন হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি, বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম সহ বিশিষ্টজনেরা।
২০১৭ সালে দক্ষিন এশিয়ার সর্ববৃহৎ দিনাজপুরের কেন্দ্রীয় ঈদগাহ ময়দানে ইদুল ফিতরের নামায শুরু হয়। ২৩ একর জমির উপর প্রতিষ্ঠিত এই ঈদগাহ ময়দানে ৬ লক্ষাধিক মুসুল্লি এক সঙ্গে নামায আদায় করতে পারবে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop