আন্তর্জাতিক সময়কাশ্মীরীদের ‘গৃহবন্দি ঈদ’, মর্যাদা বহালে লড়বে কংগ্রেস

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
অবরুদ্ধ উপত্যকায় নিরানন্দ ঈদ কাটছে কাশ্মীরীদের। কেন্দ্রীয় জামাতের অনুমতি না পেয়ে সোমবার (১২ আগস্ট) পাড়ামহল্লার মসজিদে ঈদের নামাজ পড়েন তারা। 
ভারত সরকারের কাশ্মীরনীতি হিটলারের নাৎসিবাহিনীর অনুসারী আরএসএস-এর পরামর্শে চলছে বলে সমালোচনা করেছে পাকিস্তান।
এরমধ্যেই কাশ্মীরে ভারতের পদক্ষেপ বন্ধে জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন অর্ধশত ব্রিটিশ এমপি। তবে নয়াদিল্লির দাবি, কাশ্মীরে শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করছে।
ঈদের দিনেও গৃহবন্দি কাশ্মীরীরা। কেন্দ্রীয় জামাতের অনুমতি না পেয়ে পাড়ামহল্লার মসজিদে ছোট ছোট জামাতে ঈদুল আজহার নামাজ পড়েন তারা। 
জুমার নামাজ ও ঈদ উপলক্ষে শুক্রবার নিরাপত্তা কিছুটা শিথিল করা হলেও ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই তা পুনর্বহাল করা হয়। 
সোমবার সংহতি জানাতে আজাদ কাশ্মীরে ঈদের জামাতে সামিল হন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও পাকিস্তান পিপলস পার্টির চেয়ারম্যান। ভুস্বর্গ রক্ষায় জাতিসংঘের হস্তক্ষেপ দাবি স্থানীয়দের।
কাশ্মীরিরা বলছেন, কাশ্মীর ইস্যুতে বিশ্ববাসী এগিয়ে আসছে এটা অবশ্যই আশাব্যঞ্জক। তবে এখন বিবৃতি দেয়ার সময় নয়। নিরাপত্তা পরিষদসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানাই।
শুরু থেকেই জম্মু-কাশ্মীরের স্বায়ত্ত্বশাসন ও কাশ্মীরীদের বিশেষ মর্যাদা বাতিলের বিরোধিতা করছে ভারতীয় কংগ্রেস। বিশেষ মর্যাদা বহাল না করা পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দলটির।
কংগ্রেস নেতা পি চিদাম্বরাম বলেন, ৩৭০ অনুচ্ছেদই কেবল বিশেষ মর্যাদা দিয়েছে? মহারাষ্ট্র ও গুজরাটের জন্য প্রযোজ্য ৩৭১ অনুচ্ছেদের কী হবে? নাগাল্যান্ড, আসাম, অন্ধ্রপ্রদেশ, তেলেঙ্গানা, মিজোরাম, অরুণাচল প্রদেশ, হায়দারাবাদ ও কর্ণাটকের বিশেষ ধারাগুলোর কি হবে? কাশ্মীরীদের বিশেষ মর্যাদা পুনর্বহালের লড়াই কেবল শুরু হলো। আমরা শেষ পর্যন্ত লড়বো।
মোদি সরকারের মুসলিম বিদ্বেষনীতি কাশ্মীর ছাড়িয়ে শুধু ভারত নয় পাকিস্তানকেও লক্ষ্যবস্তু বানাতে পারে বলে সতর্ক করেছে ইসলামাবাদ।
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেন, ভারত সরকার কাশ্মীরের জনমানচিত্র সমূলে উপড়ে ফেলে গোটা উপত্যকার মানচিত্র বদলে দেয়ার চেষ্টা করছে। প্রশ্ন হচ্ছে-গোটা বিশ্ব কি এখনো চুপ করে দেখবে, ঠিক যেভাবে জার্মানিতে হিটলারকে চুপ করে দেখছিলো তারা।
এদিকে, পাকিস্তানের পর দিল্লি থেকে আট্রারি চলাচলকারী ট্রেন সমঝোতা এক্সপ্রেস বাতিল করেছে ভারত। স্থিতিশীল ও স্বাভাবিক পরিস্থিতি বিরাজের পরও কাশ্মীর নিয়ে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম মিথ্যাচার করছে বলেও অভিযোগ মোদি প্রশাসনের। তবে নিজেদের প্রতিবেদনের সত্যতার পক্ষে দাঁড়িয়েছে বিবিসি।
এরমধ্যেই, জম্মু কাশ্মীরে ভারতের অবৈধ হস্তক্ষেপ বন্ধে জাতিসংঘে চিঠি দিয়েছেন ৪৫জন ব্রিটিশ আইনপ্রণেতা। পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop