অন্যান্য সময়বাসার ছাদে ৫৫ হাজার বর্গফুট কৃষিক্ষেত

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
বৈরী আবহাওয়া এবং নির্বিচারে গাছ কাটার ফলে প্রতিনিয়ত বিশ্ব হারাচ্ছে তার চিরাচরিত রূপ। একইসঙ্গে খাদ্য উৎপাদনে কৃত্রিম উপাদান ব্যবহারের ফলে দেখা যাচ্ছে নানা জটিলতা। এরমধ্যেই যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের একটি ফার্ম নিয়েছে ভিন্ন উদ্যোগ। ভবনের ছাদে করছে নানা জাতের ফল, সবজি এবং ফুল গাছের চাষ। আর এসব উৎপাদনে ব্যবহার করা হচ্ছে সংরক্ষিত বৃষ্টির পানি এবং প্রাকৃতিক উপাদান। ছাদের ৫৫ হাজার বর্গফুট জায়গায় গড়ে তোলা এটি নিউইয়র্কের সবচেয়ে বড় রুফটপ ফার্ম।
সবুজে ঘেরা চারপাশ। একদিকে গাছে ঝুলছে নানা জাতের ফল, মরিচ এবং সবজি। অন্যদিকে শোভা পাচ্ছে রঙিন বাহারি ফুলের গাছ। দারুণ এ ফার্মের দেখা মেলে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের ব্রুকলিনে একটি ভবনের ছাদে।
স্ট্যাচু অব লিবার্টি এবং ব্রুকলিন সানসেট পার্কের অ্যাম্পায়ার স্টেট বিল্ডিং-এর মধ্যবর্তী স্থানে ৮ তলা গ্র্যাঞ্জ ভবনটি অবস্থিত। যার আয়তন ১ লাখ ৪০ হাজার বর্গফুট। আর এ ছাদের ৫৫ হাজার বর্গফুট জায়গায় ফার্মটি চাষ করছে নানা জাতের সবজি, ফল ও ফুল গাছ। যা নিউইয়র্কের সবচেয়ে বড় রুফটপ ফার্ম।
ব্রুকলিন গ্র্যাঞ্জের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী বেন ফ্ল্যানার বলেন, আমরা গত ১০ বছরে এ ধরনের ৩টি ফার্ম গড়ে তুলেছি। এখানে উৎপাদন করা হয় বিভিন্ন ধরনের ফসল। রয়েছে টমেটো, গাজর, শশাসহ প্রায় ৬০ থেকে ৭০ জাতের গাছ। এ ফার্মে উৎপাদিত সবজি এবং ফল আমরা আশপাশের বাজার এবং রেস্টুরেন্টে বিক্রি করি।
কর্তৃপক্ষ জানায়, এ ফার্ম গড়ে তোলার মূল উদ্দেশ্য প্রাকৃতিক উপাদানের সঠিক ব্যবহারের মাধ্যমে বেশি পরিমানে খাদ্য উৎপাদন করা।
বেন ফ্ল্যানার বলেন, আমাদের মূল উদ্দেশ্য যত সম্ভব খাদ্য উৎপাদন করা। তবে এসব উৎপাদনে আমরা কৃত্রিম সার এবং কীটনাশকের পরিবর্তে, প্রাকৃতিক উপাদান ব্যবহার করে থাকি। এছাড়া অতি বৃষ্টির পর নিউইয়র্কের অনেক এলাকাতেই জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। আমরা বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ করে তা ফার্মে ব্যবহার করি।
নগর কর্তৃপক্ষ জানায়, বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ কোরে এ ধরনের ফার্মে ব্যবহারের মাধ্যমে শহরের জলাবদ্ধতা ঠেকানোর পাশাপাশি এ উপায়ে খাদ্য উৎপাদনের মধ্য দিয়ে আগামী ২০ বছরে কোটি কোটি অর্থের অপচয় রোধ করা সম্ভব।
ব্রুকলিন গ্র্যাঞ্জ প্রথম রুফটপ ফার্ম গড়ে তোলে লং আইল্যান্ড সিটিতে ২০১০ সালে। এরপর দ্বিতীয় ফার্মটি গড়ে তোলা হয় ২০১২ সালে ব্রুকলিন নেভি ইয়ার্ডে। ফার্ম কর্তৃপক্ষের প্রত্যাশা যেসব দেশ বৃষ্টির পানি নিষ্কাশন এবং খাদ্য ব্যবস্থা নিয়ে হিমশিম খাচ্ছে, সে দেশের বড় শহরগুলো এ মডেল থেকে অনুপ্রাণিত হতে পারে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop