ksrm

স্বাস্থ্যমলাশয়ে কিছু সমস্যা ভুলেও এড়িয়ে যাবেন না

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
মলাশয়ের ক্যান্সার হচ্ছে এক ধরনের ক্যান্সার যা দেহের মলাশয়, মলনালী  বা অ্যাপেন্ডিক্সে অংশে অনিয়ন্ত্রিত কোষবৃদ্ধির কারণে সৃষ্টি হয়। এটি কোলন ক্যান্সার, বৃহদান্ত্রের ক্যান্সার বা অন্ত্রের ক্যান্সার নামেও পরিচিত। এ ধরনের ক্যান্সারের সাধারণ লক্ষণগুলোর মধ্যে রয়েছে মলনালী দিয়ে রক্ত পড়া ও রক্তশূন্যতা, যা কিছু কিছু ক্ষেত্রে ওজনহীনতা ও অন্ত্রের আচরণগত পরিবর্তনের সাথে সম্পর্কযুক্ত।
বেশিরভাগ মলাশয়ের ক্যান্সারের কারণ জীবনযাপনের পদ্ধতি এবং বয়সবৃদ্ধি। শুধুমাত্র অল্প কিছু ক্ষেত্রেই বংশগতকারণে এ রোগের সংক্রমণ ঘটতে পারে। সাধারণত অন্ত্রের পার্শ্বদেশে সংক্রমণের মাধ্যমে এই ক্যান্সারের সূচনা ঘটে, এবং যদি এটি চিকিৎসাহীন অবস্থায় রেখে দেওয়া হয় তবে এটি ক্রমান্বয়ে অন্ত্রের পেশীস্তরের নিচে, এবং সবশেষে অন্ত্রের প্রাচীরের মধ্য দিয়ে ছড়িয়ে পড়তে পারে। স্ক্রিনিংয়ের মাধ্যমে কার্যকরভাবে এই ক্যান্সারের সংক্রমিত হয়ে মৃত্যুর হার কমানো সম্ভব আর সেজন্য ৫০ বছর বয়স থেকে ৭৫ বছর বয়স পর্যন্ত নিয়মিতভাবে স্ক্রিনিং চালিয়ে যাওয়ার পরামর্শ প্রদান করা হয়। অন্ত্রের এই ক্যান্সার সাধারণত সিগময়েডোস্কোপি বা কোলোনোস্কোপি প্রক্রিয়ায় নির্ণয় করা হয়।
১।মলদ্বার দিয়ে রক্ত যাওয়া: পাইলস ছাড়াও কলোরেক্টাল ক্যান্সার, এনাল ফিসার, রেক্টাল পলিপ, আলসারেটিভ কোলাইটিস, ডাইভারটিকুলাইটিস রোগে রক্ত যেতে পারে। লাল/তাজা রক্ত গেলে ন্যূনতম পরীক্ষা হচ্ছে Sigmoidoscopy. কালো রক্ত গেলে Full colonoscopy পরীক্ষা করাতে হবে। রক্ত যাওয়া CRC এর প্রধান দুইটি লক্ষণের একটি।
২। পেটে ব্যাথা/ গ্যাসঃ এটিও প্রধান দুইটি লক্ষণের একটি। প্রাপ্তবয়স্ক লোকের chronic obstruction এর অন্যতম প্রধান কারণ হচ্ছে CRC. আমাদের দেশের লোক পেটের যেকোন সমস্যা হলেই গ্যাসের কথা বলে। এমনকি পিত্তথলির পাথর ও ক্যান্সার রোগীরাও দীর্ঘদিন ধরে গ্যাসের চিকিৎসা পেয়ে আসে। তাই দুই সপ্তাহের বেশী গ্যাসের সমস্যা হলে অবশ্যই রোগীর পেটে হাত দিয়ে দেখা উচিত পেটে কোন চাকা (mass) আছে কিনা এবং USG whole abdomen, Endoscopy/ Colonoscopy করা উচিত। এখন প্রশ্ন হচ্ছে Endoscopy না Colonoscopy? উপর পেটের সমস্যা বেশি হলে এন্ডোস্কপি এবং নীচের পেটের সমস্যা বেশী হলে কলোনস্কপি। যদি পরিষ্কারভাবে বুঝতে না পারেন তাহলে সবগুলিই করতে হবে।
৩। পায়খানার অভ্যাস পরিবর্তনঃ আগের অভ্যাস থেকে দুই সপ্তাহের বেশী সময় ধরে পায়খানার অভ্যাসে যেকোন পরিবর্তন
৪। ব্যাখ্যাহীন রক্ত শূণ্যতাঃ শরীরের কোনখান দিয়ে রক্ত না যাওয়া সত্বেও রক্তশূন্যতা দেখা দেওয়া। প্রাপ্ত বয়স্ক লোকের কমন যে তিনটি রোগে ব্যাখ্যাহীন রক্ত শূণ্যতা দেখা যায় তা হলো
• কোলন ক্যান্সার
• পাকস্হলীর ক্যান্সার
৫।পেটে চাকা (mass কিন্তু USG তে উৎপত্তি বলতে না পারা) বা মলদ্বারে গুটি হওয়া
৬। শরীরের ওজন কমে যাওয়াঃ ছয় মাসের ভিতর শরীরের ১০% এর বেশী ওজন অনিচ্ছাকৃ্তভাবে কমে যাওয়া।
৭। পায়খানা ক্লিয়ার না হওয়া: পায়খানা করার পরও মনে হয় আরো পায়খানা রয়ে গেছে অথবা পায়খানা চাপা সত্বেও পায়খানা না আসা।
৮। আমাশয়ঃ দুই সপ্তাহের বেশী সময় ধরে সাদা আম অথবা আমরক্ত যাওয়া। কলোনস্কপি না করে
IBS এর চিকিৎসা দেওয়া ঠিক নয়। IBS একটি functional রোগ। Organic কোন রোগ আছে কিনা পরীক্ষা না করে functional রোগ নির্ণয় করা ঠিক নয়। হিতে বিপরীত হতে পারে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop