ksrm

লাইফস্টাইলদোরগোড়ায় পুজা: মেদ ঝরিয়ে নিজেকে করে নিন ঝরঝরে

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
দোরগোড়ায় পুজা। এমন সময়ে মেদ ঝরিয়ে নিজের চেহারাকে আরেকটু ঝরঝরে করে নিন। ক্র্যাশ ডায়েট নয় তাতে ওজন কমলেও চেহারার জেল্লা কমে যাবে। বাড়বে ক্লান্তি–দুর্বলতা। কাজেই খাবার খান ক্যালোরি ও পুষ্টির কথা মাথায় রেখে। ৭০ শতাংশ কাজ ডায়েটেই হবে। তাকে ৯০–১০০ শতাংশে পরিণত করতে হাঁটাচলা বাড়ান, তিন সপ্তাহেই চেহারায় অনেক ফারাক আসবে।
ব্যায়ামের জন্য আলাদা সময় না পেলে লিফটের বদলে সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামা করুন। বেশি দূর নয় এমন জায়গায় বাস–অটোরিকসার বদলে হেঁটে হেঁটে চলাফেরার করার অভ্যাস করুন। হাঁটার গতি বাড়ান, ঘরের কিছু কাজকর্ম করা এবং সময়ে–সময়ে একটু স্ট্রেচিং করে নিন।
তবে যদি বয়স বেশি হয় বা কোনও অসুখবিসুখ থাকে তাহলে রুটিন বদলানোর আগে অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে কথা বলে নিন। তবে সুস্থ শরীর হলে একটু ডায়েট মেনে চললেই হতে পারে আপনার উপকার।
মাসভর যে ডায়েট চার্টে মেদ ঝরবে সহজে:
প্রথম সপ্তাহ: সকালে দুধ–চিনি ছাড়া গ্রিন টি বা লাল চা সঙ্গে একটা ফল। ব্রেকফাস্টে ছোট একবাটি ওটের পরিজ/ পোহা/ উপমা/ খিচুরি বা ছোট দুটো ইডলি। মিড মর্নিংয়ে একটা ফল ও চারটে আমন্ড বা আখরোট। দুপুরে স্যালাড, দুটো আটার রুটি বা মাঝারি এক কাপ ব্রাউন রাইস, ডাল, সবজি, টক দই, মাছ বা চিকেন। সন্ধ্যায় একপিস ব্রাউন ব্রেডের স্যান্ডুইচ/ ছোট এক বাটি মুড়ি বা কল ওঠা মুগ বা ছোলা সঙ্গে গ্রিন টি অথবা লাল চা (এক কাপ)। রাতে ক্লিয়ার স্যুপ, স্যালাড, একটা রুটি, সবজি/ মাছ/ চিকেন। ঘুমানোর আগে চিনি ছাড়া এক কাপ ডাবল টোনড দুধ।
দ্বিতীয় সপ্তাহ:
সকালে গ্রিন টি–র সঙ্গে দুটো খেজুর। ব্রেকফাস্টে ছোট এক বাটি ওটস। মিডমর্নিংয়ে আগের মতোই একটা ফল ও চারটে আমন্ড বা আখরোট। দুপুরে একটা রুটি বা ছোট এক কাপ ভাত, ডাল, সবজি, টক দই/ মাছ/ চিকেন।
বিকেলে একটা ফল, ইচ্ছে হলে এক কাপ গ্রিন টি/ লাল চা। রাতে ভাত–রুটি বন্ধ, তার বদলে স্যালাড, মাছ ও মাংস। ডিম সিদ্ধ ও মাংসও চলতে পারে। ক্লিয়ার স্যুপও থাকবে।
তৃতীয় সপ্তাহ:
সকালে গ্রিন টি, খেজুর। ব্রেকফাস্টে তরমুজ, শশা, পাকা পেঁপে ও আরও দু–একটি ফল, অল্প বাদাম। মিড মর্নিংয়ে কল ওঠা মুগ বা ছোলা, অথবা মুগ–চানা–শশা–টমেটো দিয়ে বানানো স্যালাড। দুপুরে ভাত–রুটি বাদ, বরং পাতে রাখুন সবজি, টক দই/ মাছ/ চিকেন। বিকেলে ক্লিয়ার স্যুপ। রাতে  স্যালাড/ সতে করা ভেজিটেবল সঙ্গে মাছ বা চিকেন এক পিস। ঘুমানোর আগে চিনি ছাড়া এক কাপ ডাবল টোনড দুধ।
নিয়মাবলী:
ক্যালোরি ও গুণমান ঠিক রেখে খাবারে কিছু পরিবর্তন আনতে পারেন। এক দিন অনিয়ম হয়ে গেলে আধঘণ্টা বেশি হাঁটার চেষ্টা করুন। অসময়ে খিদে পেলে প্রথমে এক গ্লাস পানি পান করুন, না কমলে মাখন ছাড়া ক্লিয়ার স্যুপ, শশা, তরমুজ, পাকা পেঁপে বা গ্রিন স্যালাড খেতে পারেন অল্প করে৷।
খাওয়ার আগে পানি, ক্লিয়ার স্যুপ বা ডালের পানি খেলে কম খাবারেই পেট ভরবে।
মূল খাবার খাওয়ার দু–ঘণ্টা আগে বা পরে দু’–চামচ ইসবগুল পানিতে মিশিয়ে খেতে পারেন। পেট পরিষ্কার থাকবে, খিদেও কম পাবে আর অতিরিক্ত চর্বি শোষণ করতেও এর ভূমিকা রাখবে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop