বিনোদনের সময়‘১০ লাখ টাকা অনুদান নয়, চেয়ে নেয়া’

মহিব আল হাসান

fb tw
somoy
অর্থের মাধ্যমে কাউকে সাহায্য করাকে প্রচলিত ভাষায় অনুদান বলে। আক্ষরিক অর্থে এর মানে আর্থিক সাহায্য। যদি কাউকে প্রশ্ন করা হয়, কাউকে অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করা হয় সেটির নাম কী? অনায়াসে অনেকে বলবেন, আনুষ্ঠানিকতা ছাড়া কোনো সম্মান জানানো না হলে সেটা হবে দান!
তবে শোবিজ জগতের সাহায্যকে আমরা অনুদান বলে থাকি। সাধারণত কোনো শিল্পী বা গুণিজন অর্থাভাবে পড়লে সরকার থেকে যেই অর্থ সাহায্যস্বরূপ দেয়া হয়, সেটাকে অনুদান হিসেবে আখ্যা দেয়া হয়। এছাড়া সরকার কিছু নিদিষ্ট খাতে অনুদান দিয়ে থাকেন। তবে এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি অনুদান দেওয়া হয় চলচ্চিত্রে। 
রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে শিল্পীদের অনুদান দেয়া হয়। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর কোষাগার থেকেও অনুদান দেয়া হয়। এসব অনুদান শুধু তারাই পান, যারা অর্থাবে চিকিতসা করাতে পারেন না তাদের ক্ষেত্রে দেয়া হয়। কারণ শিল্পীরা রাষ্ট্রের সম্পদ। তাদের দুঃসময়ে রাষ্ট্র পাশে দাঁড়াবে, সহযোগিতা করবে, এটা খুব স্বাভাবিক বিষয়। এরপরেও অনেক শিল্পীরা বিনা প্রয়োজনে আর্থিক সহযোগিতা নিয়ে থাকেন। 
 কিন্তু নির্মল এই আনন্দও প্রশ্নবিদ্ধ এখন। কারণ অনেক শিল্পীরা স্বচ্ছল ও স্বাবলম্বী থেকেও আর্থিক সহযোগিতা নিয়ে থাকেন। সর্বশেষ রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) কালজয়ী কণ্ঠশিল্পী এন্ড্রু কিশোরের অনুদান নেয়ার ঘটনাটি উল্লেখযোগ্য। চিকিৎসার জন্য তিনি প্রধানমন্ত্রীর কাছ থেকে ১০ লাখ টাকা অনুদান নিয়েছেন। আর এ নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারকারীরা প্রশ্নবিদ্ধ মন্তব্য করছেন। 
তার-পক্ষে বিপক্ষে মন্তব্য প্রদান করছেন। পক্ষে ইতিবাচক কথা বললেও প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে তার অনুদান নেওয়ার বিষয়টি। অনেকে প্রশ্ন করছেন,  ‘প্লেব্যাক সম্রাট’ হিসেবে খ্যাত এই গায়ক ৭০ দশক থেকে গান গেয়ে আসছেন। তিনি এতদিন গান গেয়ে কী কোন অর্থ উপার্জন করতে পারেননি? অভিষেকের পর থেকে তিনি টানা গান গেয়ে যাচ্ছেন। তার মতো মানুষ কীভাবে আর্থিক সাহায্য নেন? এই ধরণের প্রশ্ন এখন সকলের। 
নেটিজনরা বলছেন, দীর্ঘ সংগীত জীবনে তিনি স্টেজ শো, টেলিভিশন শো, বিভিন্ন প্রতিযোগিতার বিচারক এবং ব্যবসা পরিচালনা করেন। সবমিলিয়ে তার আর্থিক অবস্থা বেশ চাঙা। কিন্তু কেন তারপরও তাকে দান গ্রহণ করতে হবে সেবিষয়টি অবশ্য তিনি নিজেই জানেন।
বাংলাদেশি একটি গণমাধ্যমে এন্ড্রু কিশোরের আত্মীয়ের বরাত দিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেছে। সেখানে তিনি বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী তাকে ছোট ভাইয়ের মতো দেখেন। তিনি তার খোঁজ রাখেন। সেই ধারাবাহিকতায় প্রধানমন্ত্রী তাকে অনুদান দিয়েছেন। 
কিন্তু গানের সঙ্গে সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ১০ লাখ টাকা অনুদান নয়, এটা একপ্রকার চেয়ে নেওয়া দান। কারণ সরকার একজন গুণী শিল্পীকে সম্মান জানায় আনুষ্ঠানিকভাবে। গোপনে কোন সম্মান হয় না। যার ফলে এই এই অনুদান দান। 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop