প্রবাসে সময়মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশি শ্রমিকদের ‘ক্রীতদাসের’ মতো কেনাবেচা

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
মালয়েশিয়ার ব্যবসায়ী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে বাংলাদেশি নাগরিকদের ক্রীতদাসের মতো  ‘কেনাবেচা’ হচ্ছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে; যা দেশটির প্রচলিত আইনবিরোধী। মালয়েশিয়াতে পৌঁছানোর পূর্বেই একটি চুক্তি স্বাক্ষরের মাধ্যমে তাদের এ ফাঁদে ফেলানো হয় বলেও অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (১০ সেপ্টেম্বর) মালয়েশিয়ান সংবাদমাধ্যম মালয়মেইলে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে এ তথ্য তুলে ধরা হয়।
প্রতিবেদনে বলা হয়, মূলত একটি প্রতিষ্ঠান কোনো শ্রমিককে নিয়োগ দিলে তার সঙ্গে চুক্তি করে। কিন্তু মালয়েশিয়ায় প্রবেশের পর কিছু ক্ষেত্রে ওই শ্রমিক চুক্তিবদ্ধ প্রতিষ্ঠানে কাজ করতে পারেন না। কারণ কিছু প্রতিষ্ঠান তাদের নিজেদের কর্মী হিসেবে কাজ না করিয়ে ক্রীতদাসের মতো করে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের কাছে তাদের ‘কেনাবেচা’ করে।
বিদেশি শ্রমিকদের অধিকার আদায়ে মালয়েশিয়ায় কাজ করা সংগঠন তেনাগানিতার কো-অর্ডিনেটর অ্যাগেইল ফার্নান্দেজ বলেন, মুনাফার জন্য ওই শ্রমিকদের মূলত কিছু  প্রতিষ্ঠানের মধ্যে লেনদেন করা হয়। আর যেহেতু অনুমোদিত প্রতিষ্ঠানের বাইরে তারা কাজ করেন তাই শ্রমিকদের মধ্যেও এক ধরনের ভীতি কাজ করে এবং তাদের এভাবে ব্যবহারের পরও কম বেতন দেয়া হয়।
তিনি বলেন, মূলত সুপারমার্কেট অর্থ ছোটখাটো প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যেই শ্রমিকদের নিয়ে এমন লেনদেন হয়ে থাকে। তারা হয়তো এক প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন কিন্তু তাদের কাজের অনুমতি দেয়া হয়েছে অন্য কেনো প্রতিষ্ঠানে কাজ করার জন্য।
আনোয়ার হোসেন নামে এক বাংলাদেশি মালয়েশিয়ায় যাওয়ার সাত দিন পর বুঝতে পারেন তিনি এমন এক চক্রের খপ্পরে পড়েছেন। দেশটিতে প্রবেশের সাত দিন পরই তাকে যেখানে রাখা হয়েছিল সেখান থেকে তিনি পালিয়ে যান। তিনিও জানিয়েছেন এমন প্রতারিত হওয়ার কথা।
মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে সম্প্রতি হওয়া (জিটুজি) চুক্তির অধীনে দেশটির নিবন্ধিত নির্মাণ ও রক্ষণাবেক্ষণের কাজ করা এক প্রতিষ্ঠানের অধীনে গিয়েছিলেন তিনি। 
আনোয়ার জানান, তিনিসহ ৯৪ জন ব্যক্তি মালয়েশিয়াতে একসঙ্গে এসেছিলেন। তবে তাদের অর্ধেকই পালিয়ে গেছেন এবং এখন অবৈধ শ্রমিক হিসেবে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে কাজ করেন। 
দেশটির মানবসম্পদ বিভাগের একটি সূত্র সংবাদমধ্যমটিকে জানায়, বিদেশি শ্রমিকদের শোষিত হওয়ার মতো অনেক অভিযোগই শ্রম বিভাগে জমা পড়েছে।
শ্রমিকরা চুক্তিবদ্ধ প্রতিষ্ঠানের বাইরে গিয়ে কাজ করলেও যখন তাদের চুক্তি নবায়ন করতে হয় তখন তারা আবার সেই প্রতিষ্ঠানের কাছে ফিরে যান বলেও জানায় সূত্রটি।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop