বিনোদনের সময়নাটকের আবু তালেব নয়, একজন ভালো মানুষ হোন: রাশেদ সীমান্ত

মহিব আল হাসান

fb tw
somoy
রাশেদ সীমান্ত। এ সময়ের বাংলা নাটকের সবচেয়ে আলোচিত নাম। গেল ঈদে ‘মধ্য রাতের সেবা’ শিরোনামের নাটকের মাধ্যমে দর্শকের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হন। বর্তমানে তিনি বৈশাখী টেলিভিশনের মার্কেটিং বিভাগে কর্মরত আছেন। আল হাজেন পরিচালনায় ‘যে লাউ সেই কদু’ নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে পর্দায় আসেন গেল বছর। এ পর্যন্ত তিনি ৯টি নাটকে অভিনয় করেছেন।  
দর্শকের চাহিদা অনুযায়ী নাটকে অভিনয় করার কথাও সময় নিউজকে জানিয়েছেন রাশেদ সীমান্ত। শনিবার (১৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় সময় নিউজকে একান্ত সাক্ষাৎকার দিয়েছেন তিনি। 
সময় নিউজ: কেমন আছেন?
রাশেদ সীমান্ত: আলহামদুলিল্লাহ, বেশ ভালো আছি। 
সময় নিউজ: হঠাৎ করেই লাইমলাইটে, অনুভূতি কেমন?
রাশেদ সীমান্ত: আমি ছোটবেলা থেকে মুরব্বিদের কাছে শিক্ষা পেয়েছি, যে ছোট থেকে যে কাজটি করবে সেটি মনযোগ সহকারে করতে হবে। একদিন সেই কাজটি অনেক দূর নিয়ে যাবে। আমি সেই চিন্তাধারা থেকে প্রতিটা কাজই করে থাকি। হয়তো সেই ধারাবাহিকতার জন্য আজ আমি দর্শকের সামনে চলে এসেছি। 
সময় নিউজ: আপনি তো ‘মধ্য রাতের সেবা’ নাটকের মাধ্যমে ব্যাপক জনপ্রিয়তা পেলেন। এই নাটকে অভিনয় করতে গিয়ে কী মনে হয়েছে আপনি জীবনের সেরা একটি কাজ করতে যাচ্ছেন?
রাশেদ সীমান্ত: এই নাটকে কাজ করতে গিয়ে আমি কখনো মনে করিনি আমি জনপ্রিয় হবো। কিন্তু নাটকে কাজ করতে গিয়ে বুঝেছি ভিন্ন একটি গল্পে কাজ করছি। দর্শকরা নাটকটি গ্রহণ করবেন। 
সময় নিউজ: অভিনয়ে এলেন কীভাবে?
রাশেদ সীমান্ত: অভিনয়ে আসার বিষয়টি একদম ছোটবেলা থেকে। আমার স্কুল পর্যায় থেকে অভিনয়ের প্রতি ভীষণ ঝোঁক ছিল। এরপরও কর্মজীবনে আমাদের চ্যানেলের অনুষ্ঠানের প্রিভিউ কমিটির সদস্য হই। সেখানে আমি পর্যালোচনা করেছি অভিনয় নিয়ে। এই পর্যালোচনা করতে গিয়ে আমি অভিনয়ের প্রতি দুর্বল হয়ে পড়ি। এরপর অভিনয়ে আসি। আমি এ পর্যন্ত মোটামুটি ৯টি নাটকে কাজ করেছি। 
সময় নিউজ: ‘মধ্য রাতের সেবা’ নাটকে অভিনয়ের বিষয়ে জানতে চাই...
রাশেদ সীমান্ত: এই নাটকটি আমাদের নিজস্ব হাউসের। আমাদের টেলিভিশনের কর্ণধার আমাকে এই নাটকে কাজ করতে বলেন। উনি হয়তো আমাকে ভেবে এই নাটকটি করার কথা বলেছেন। আমি তার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি।
সময় নিউজ: বুঝতে পেরেছিলেন নাটকটি ভাইরাল হবে?
রাশেদ সীমান্ত: বুঝতে পারিনি যে ভাইরাল হবে, তবে যখন শেষ দৃশ্যের সংলাপগুলো শেষ করেছিলাম তখন দেখেছিলাম পরিচালকসহ ইউনিটের প্রতিটি সদস্য কান্না করছিল। তখন ভেবেছিলাম হয়তো ভালো কিছু করেছি, কিন্তু তার জন্য যে দর্শকের এত ভালোবাসা আমার জন্য অপেক্ষা করছে, আমি তখন তা বুঝতে পারিনি। আল্লাহর শুকরিয়া।
সময় নিউজ: কাজের অফার কেমন পাচ্ছেন?
রাশেদ সীমান্ত: প্রতিনিয়তই মাশাল্লাহ ভালো ভালো কাজের অফার পাচ্ছি। তবে, আমি ভালো গল্পে কাজ করতে চাই। দর্শককে আমার সেরাটা দিতে চাই। দর্শকই আমার প্রাণ। আমি মনে করি যতুদূর না ভালো করেছি দর্শক এর চেয়ে অনেক বেশি ভালোবাসা আমাকে দিয়েছে। 
সময় নিউজ: দর্শকের প্রতিক্রিয়া কেমন পেয়েছেন?
রাশেদ সীমান্ত: গত ঈদে আমার অভিনীত তিনটি নাটক বৈশাখী টেলিভিশনে প্রচারিত হয়েছে। তিনটি নাটকই দর্শকরা গ্রহণ করেছেন। আমি অসংখ্য ফোন পেয়েছি, এখনো পাচ্ছি। দর্শকেরা বলেছেন আজ থেকে তারা আবু তালেব (মধ্য রাতের সেবা) হবেন। তারা মানুষের সেবা করবেন। দর্শকদের এমন চিন্তা একজন অভিনয় শিল্পী হিসেবে আমার বড় পাওয়া। 
সময় নিউজ: দর্শকের উদ্দেশে কিছু বলুন...
রাশেদ সীমান্ত:  দর্শকের উদ্দেশে বলব, নাটকের আবু তালেব নয়, একজন ভালো মানুষ হোন। ভালো মানুষেরাই পরিবর্তন করতে পারে গোটা সমাজ। তাছাড়া প্রত্যেকের সম্মিলিত প্রচেষ্ঠা ও সহযোগিতায় পরিবর্তন হবে আমাদের সমাজের চারপাশ।
সময় নিউজ: নব্বই দশকে ফিরে যেতে চাই, আপনার শৈশব সম্পর্কে বলেন...
রাশেদ সীমান্ত: আমার শৈশব-কৈশোর টঙ্গীতে কেটেছে। আমার জন্ম, বেড়ে ওঠা ঢাকা জেলাতেই। তবে মাঝে মাঝে আমার নানার বাড়ি ভোলায় সময় কাটাতে যেতাম। 
সময় নিউজ: আগামীতে দর্শক নতুন কী কী কাজ দেখবেন?
রাশেদ সীমান্ত: দর্শকরা আমাকে অনেক দিয়েছেন। এখন তাদেরকে আমার দেয়ার পালা। ভালো কাজ করে দর্শকদের কিছু দিতে চাই। তাই গতাণুগতিক কাজ করবো না।  ভালো গল্পের চরিত্রে কাজ করতে চাই। আমি দর্শকদের মানসম্মত কাজ উপহার দিতে চাই। 
সময় নিউজ: সময় দেওয়ার জন্য আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। 
রাশেদ সীমান্ত: সময় নিউজকেও ধন্যবাদ।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop