লাইফস্টাইলত্বকের যত্নে চন্দন

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
যুগ যুগ ধরে চন্দন ব্যবহৃত হয়ে আসছে। চন্দনকাঠ এমনই এক আয়ুর্বেদিক উপাদান যা ত্বক উজ্জ্বল রাখে প্রাকৃতিকভাবে। সাধারণত পাউডার হিসাবেই পাওয়া যায় এই সুগন্ধি উপাদানটি। 
ত্বকের যত্নে চন্দন ব্যবহার করবেন কেন?
- সূর্যের ক্ষতিকারক রশ্মি থেকে রক্ষা করে ত্বক।
- ব্রণ বা প্রদাহজনিত বৈশিষ্ট্য বা সূর্যের তাপে সৃষ্ট যেকোনও ধরনের জ্বলুনি কমাতে সাহায্য করে।
ত্বকের অ্যালার্জি কমায়।
- চন্দন ত্বকের নরম টিস্যুতে সংকোচনের সৃষ্টি করে এবং ত্বকের ছিদ্র শক্ত করে তোলে। এ কারণেই অনেকেই ফেসপ্যাকগুলিতে বা টোনারগুলিতে চন্দন কাঠ ব্যবহার করেন।
- চন্দনে আছে অ্যান্টিসেপটিক উপাদান যা ব্রণের দাগ ইত্যাদি কমায়। ধুলো এবং ময়লা থেকে ত্বকে যে ব্যাকটেরিয়া জন্মে তা দূর করে।
 
যেভাবে ত্বকের যত্নে চন্দন ব্যবহার করবেন
- এক টেবিল চামচ চন্দন তেলে এক চিমটি হলুদ এবং কর্পূর মেশান। মিশ্রণটি ত্বকে লাগান। ব্রণ, দাগ এবং ব্ল্যাকহেডস থেকে মুক্তি পেতে সারারাত রেখে দিন।
- ১ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়া, ১ চা চামচ নারকেল তেল এবং সামান্য লেবুর রস মিশিয়ে মুখে লাগিয়ে রাখুন। আধা ঘণ্টা পর ধুয়ে ফেলুন।
- চন্দন কাঠের তেল দিয়ে আলতো করে ম্যাসাজ করুন ত্বক। সারারাত রেখে পরদিন হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিন। ত্বক নরম ও কোমল হবে।
- এক টেবিল চামচ শশার রস, এক টেবিল চামচ দই, এক চা চামচ মধু, আর সামান্য লেবুর রসে এক টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়ো মিশিয়ে তৈরি করুন ফেসপ্যাক। ১৫ মিনিট ত্বকে লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন। এটি ত্বকের রোদে পোড়া দাগ দূর করবে।
- ১ টেবিল চামচ চন্দন গুঁড়ার সাথে নারকেল তেল মেশান, মিশ্রণটি ত্বকে লাগিয়ে রাখুন সারারাত। পরদিন ধুয়ে ফেলুন। ত্বকের কালচে দাগ দূর হবে।
- চন্দনের গুঁড়ার সঙ্গে পরিমাণ মতো গোলাপজল মিশিয়ে ত্বকে লাগিয়ে রাখুন আধা ঘণ্টা। এটি ত্বকের অতিরিক্ত তেলতেলে ভাব দূর করবে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop