আন্তর্জাতিক সময়বরিসের সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা ইইউর

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
ব্রেক্সিট নিয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সঙ্গে আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে বলে জানিয়েছেন ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট জ্যঁ ক্লদ জাঙ্কার। লুক্সেমবার্গে বৈঠকের একদিন পর সাংবাদিকদের এ কথা জানান তিনি।
এরমধ্যেই, ব্রিটিশ পার্লামেন্টের স্থগিতাদেশের বিরুদ্ধে আপিলের শুনানি মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে শুরু হয়েছে।
প্রথম দিনের শুনানিতে বাদিপক্ষের আইনজীবী স্থগিতাদেশকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বললেও, একে 'বেআইনি' বলে আখ্যা দেয়ার এখতিয়ার স্কটল্যান্ডের সর্বোচ্চ আদালতের নেই বলে জানান সরকারপক্ষের আইনজীবী।
এদিকে, ব্রেক্সিট পরিস্থিতির সবশেষ অবস্থা নিয়ে আলোচনা করতে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের নেতৃত্বে মঙ্গলবার মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।
ব্রিটিশ পার্লামেন্টের স্থগিতাদেশ নিয়ে দেশটির নিম্ন আদালত এবং স্কটল্যান্ডের সর্বোচ্চ আদালতের রুল জারির পর সুপ্রিম কোর্টে বিরোধী আইনপ্রণেতাদের পক্ষ থেকে আলাদা দুটি আপিল হলে, মঙ্গলবার এর ওপর শুরু হয় শুনানি।
প্রথমদিনের শুনানিতে পার্লামেন্টের স্থগিতাদেশকে পুরোপুরি বেআইনি এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে অভিহিত করেন বাদি পক্ষের আইনজীবীরা।
অন্যদিকে, পার্লামেন্টের স্থগিতাদেশকে স্কটল্যান্ডের সর্বোচ্চ আদালত 'বেআইনি' হিসেবে আখ্যা দিয়ে রুল জারি করায় এর তীব্র সমালোচনা করেন সরকারপক্ষের আইনজীবীরা। ব্রিটিশ পার্লামেন্টের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে দেশটির আদালতের এমন রুল জারির এখতিয়ার নেই বলেও উল্লেখ করেন তারা।
সরকারপক্ষের আইনজীবী বলেন, বিচারকরা পার্লামেন্টের বিষয়ে এমন রুল জারি করতে পারেন না। পার্লামেন্টের নিয়মকানুন মেনেই এবং আইনগত দিক বিবেচনা করেই অধিবেশন স্থগিত করা হয়েছে। সংসদীয় আইন ইংল্যান্ড এবং স্কটল্যান্ড উভয়ের জন্যই এক। আর তাই স্কটল্যান্ডের আদালতের উচিত নয় এমন কোন রুল জারি করা।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন স্পষ্টভাবেই তার ক্ষমতার অপব্যবহার করেছেন। নিজের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করতে তিনি পার্লামেন্টকে এড়ানোর চেষ্টা করেছেন। সংবিধান মতে পার্লামেন্টের সদস্যরা পার্লামেন্টের কাছে দায়বদ্ধ থাকবেন। তাদেরকে অবশ্যই যেকোন বিষয়ে জবাবদিহি করতে হবে। পার্লামেন্টের বিরুদ্ধে গিয়ে অধিবেশন স্থগিত করে প্রধানমন্ত্রী সংবিধান লঙ্ঘন করেছেন।
এর মধ্যেই, ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্ট জ্যঁ ক্লদ জাঙ্কার বলেছেন, ব্রেক্সিট নিয়ে লুক্সেমবার্গে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের সঙ্গে বৈঠক অত্যন্ত ফলপ্রসু এবং গঠনমূলক হয়েছে। বুধবার অনুষ্ঠেয় ইউরোপীয় পার্লামেন্টের অধিবেশনে বেক্সিট পরিস্থিতির সবশেষ অবস্থা নিয়ে আলোচনা হবে বলেও জানান তিনি।
এদিকে, লুক্সেমবার্গ থেকে ফেরার পর ব্রেক্সিট পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা করতে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের নেতৃত্বে ডাউনিং স্ট্রিটে মন্ত্রিসভার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ বিষয়ে বিস্তারিত জানা না গেলেও, ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের সঙ্গে বৈঠকের নানা দিক নিয়ে মন্ত্রিসভায় আলোচনা হয়েছে বলে জানা গেছে। এর আগে, আগামী ১৮ই অক্টোবর ইইউ সম্মেলনের আগেই ব্রিটেন সরকার জোটের সঙ্গে চুক্তিতে পৌঁছাতে সক্ষম হবে বলে আশা প্রকাশ করেন বরিস।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop