মহানগর সময়জুয়া খেলা নিয়ে বাংলাদেশের আইনে কি আছে?

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
সম্প্রতি ঢাকার ফকিরেরপুলে র‌্যাবের সমন্বিত অভিযানে চারটি ক্যাসিনো সিলগালা এবং বহু মানুষকে আটক করা হলে এ নিয়ে দেশে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়। এ ক্যাসিনোগুলো হলো- ফকিরেরপুলের ইয়ংমেনস ক্লাব, মতিঝিলের ঢাকা ওয়ান্ডারার্স ক্লাব, গুলিস্তানের মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ক্রীড়াচক্র এবং বনানীর গোল্ডেন ঢাকা বাংলাদেশ।
এর আগে বিভিন্ন ক্লাবে বা আড্ডায় গোপনে জুয়া খেলার অনেক আসর বসার কথা নানা সময়ে শোনা গেলেও একেবারে আধুনিক যন্ত্রপাতি ও উপকরণ সজ্জিত এ ক্যাসিনোগুলোর অস্তিত্ব থাকবার খবর বাংলাদেশের মানুষের কাছে একেবারেই নতুন।
বিবিসি বাংলার প্রকাশিত প্রতিবেদনে জানা যায়, মদ বিক্রি বা পানের মতো ক্যাসিনোর অনুমোদন বা লাইসেন্স দেয়ার কোনো ব্যবস্থা বা সুযোগই বাংলাদেশের কোনো আইনে নেই বলে জানিয়েছেন আইনজীবী জ্যোতির্ময় বড়ুয়া।
জুয়ার বিষয়ে বাংলাদেশে যে আইনটি কার্যকর আছে সেটি হলো ‘প্রকাশ্য জুয়া আইন ১৮৬৭,’ সেখানে অবশ্য ক্যাসিনো বিষয়ে কিছু বলা নেই।
তবে ওই আইনে - ‘কেউ তার ঘর, তাঁবু, কক্ষ, প্রাঙ্গণ বা প্রাচীরবেষ্টিত স্থানের মালিক বা রক্ষণাবেক্ষণকারী বা ব্যবহারকারী হিসেবে যেকোনো ব্যক্তি জ্ঞাতসারে বা স্বেচ্ছায় অন্য লোককে, উক্ত স্থানকে সাধারণ জুয়ার স্থান হিসাবে ব্যবহৃত করিতে দিলে অর্থদণ্ড ও কারাদণ্ডের বিধান’ রাখা হয়েছে।
এমনকি ‘তাস, পাশা, কাউন্টার অর্থ বা অন্য যেকোনো সরঞ্জামসহ যেকোনো ব্যক্তিকে ক্রীড়ারত বা উপস্থিত দেখিতে পাওয়া গেলেও’ শাস্তি দেয়ার সুযোগ আছে এ আইনে।

আরও পড়ুন

সাপের মাথায় কষ্টিপাথর ছুঁয়ে খেলা শুরু ক্যাসিনোতে, মিলল চাঞ্চল্যকর তথ্য ‘স্যার থ্রি–পিসটা পর‌তে দেন, পে‌টের তা‌গি‌দে জুয়ার বোর্ডে চাক‌রি করি’থানার পাশে ক্যাসিনো, জানতো না পুলিশ!ক্যাসিনো কী?

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop