মহানগর সময়‘চাইলেও প্রভাবশালীদের কারণে ক্যাসিনোতে অভিযান চালানো যায় না’

সময় সংবাদ

fb tw
রাজধানীর বিভিন্ন বাণিজ্যিক ভবনে সবার অজান্তেই চলছে ক্যাসিনোর কার্যক্রম। র‌্যাবের অভিযানের পর কার্যক্রম গুটিয়ে নিতে শুরু করেছেন অনেকে। আইনি জটিলতা ও প্রভাবশালীদের কারণে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পদক্ষেপ নিতে পারে না বলে জানিয়েছেন সাবেক আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক। আর অপরাধ বিশেষজ্ঞ শেখ হাফিজুর রহমান কার্জন মনে করেন সদিচ্ছা এবং সাহস থাকলে কোনো বাধাই বাধা নয়।   
রাজধানীর পল্টনের জামান টাওয়ারের ১৪তলা। গোলক ধাঁধায় বোঝা মুশকিল এখানে অবৈধ ক্যাসিনো থাকতে পারে। কোনো নাম খুঁজে পাওয়া যাবে না। দেয়ালের ছবিতে কোনো ধুলো জমে নেই, ফ্লোরে জিনিসপত্র টানাহেঁচড়ার দাগ স্পষ্ট। ক্যাসিনোর প্রবেশমুখে তালা ঝুলছে। দুদিন আগেও যেখানে গভীর রাত পর্যন্ত লোকজনের আনাগোনা ছিল। বুধবার বিভিন্ন ক্যাসিনোতে র‌্যাবের অভিযানের পর সেখানে সুনসান নীরবতা।
ক্যাসিনোর কার্যক্রম এতটাই গোপনে করা হয় যে ভবনের ভেতরের লোকজনও জানেন না, কি চলে এখানে, কে বা কারা যাওয়া আসা করে। এ বিষয়ে জানতে চাইলে চাইলে ভবনের একজন কর্মী জানান এটি সংবাদপত্রের অফিস। যদিও এর কোনো সতত্যা মেলেনি। তবে ভবনের জায়গার মালিকের ম্যানেজার জানান, ভবনের যে অংশে ক্যাসিনো রয়েছে সে অংশটি ডেভলপার কোম্পানির।
জমির মালিকের ভাগে এ অংশ পড়েনি, এটা ডেভলপার কোম্পানির।
পুলিশের নাকের ডগায় শত শত ক্যাসিনো গড়ে উঠল অথচ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কিছুই জানল না? এমন প্রশ্নের উত্তরে সাবেক আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক দাবি করলেন, ‘আইনি জটিলতা ও প্রভাবশালীদের কারণে অনেক সময় চাইলেও অভিযান চালাতে পারে না আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।’
সাবেক আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক বলেন, ‘বাংলাদেশে জুয়া নিয়ে তো কোনো আইন তৈরি হয়নি। কাজেই আইনগতভাবে ব্যবস্থা নিতে গিয়ে অনেক সমস্যার সম্মুখিন হতে হয়। এ ছাড়া এ সমস্ত ক্লাব যারা পরিচালনা করে, তাদের সঙ্গে প্রভাবশালীদের সম্পর্ক থাকে। এ জন্য পুলিশ অনেক সময় এসব জায়গায় গিয়ে অস্বস্তির মধ্যে পড়ে।’
তবে পুলিশের এমন দাবিকে অযৌক্তিক বললেন অপরাধ বিশেষজ্ঞরা। তাদের মতে, সদিচ্ছা এবং সাহস থাকলে যে কোনো সময়ই অভিযান চালাতে পারে পুলিশ।
অপরাধ বিশ্লেষক হাফিজুর রহমান কার্জন বলেন, ‘সদিচ্ছা ও সাহস থাকলে সবই সম্ভব। এলিট সোসাইটিতে রাতের বেলা যে সমস্ত কার্যক্রম হয়, তার যেমন নিজস্ব দুর্বত্তায়ন আছে। এর সঙ্গে পুলিশের অসৎ কর্মকর্তাও জড়িত আছে। সরকারে যারা আছেন তাদের যদি সদিচ্ছা থাকে তাহলে এটাকে ভেঙে দেয়া সম্ভব।’ 
অপরাধ বিশেষজ্ঞরাও মনে করেন, যুগের সঙ্গে পাল্টে যাওয়া অপরাধের ধরন মোকাবিলায় প্রয়োজন আইনের পরিবর্তন।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop