বাণিজ্য সময়পেঁয়াজবাহী ট্রলার ভিড়ছে টেকনাফ ঘাটে

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
সংকট মোকাবেলার পাশাপাশি ভারতের বিকল্প দেশ হিসাবে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানি বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এ প্রক্রিয়ায় গত দু'দিনে টেকনাফ স্থলবন্দর দিয়ে আমদানি হয়েছে প্রায় দুই হাজার টন পেঁয়াজ। অথচ গত এক মাসে এ বন্দর দিয়ে পেঁয়াজ আমদানি হয়েছিলো ৩ হাজার টনের বেশি। তবে মিয়ানমার থেকে পেঁয়াজ আমদানির ক্ষেত্রে সিন্ডিকেট প্রথার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দিয়েছেন কক্সবাজার জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন।
মিয়ানমার থেকে আসা একের পর এক পেঁয়াজবাহী ট্রলার ভিড়ছে টেকনাফ স্থলবন্দর ঘাটে। প্রতিদিনই ৮ থেকে ১০টি ট্রলারে করে প্রায় ৯শ মেট্রিক টন পেঁয়াজ আসছে এখানে। স্বাভাবিক সময়ে এ বন্দরে দিয়ে তেমন পেঁয়াজ আমদানি না হলেও বিরাজমান সংকট মোকাবেলায় ভারতের বিকল্প হিসাবে মিয়ানমারকেই বেছে নিয়েছে সরকার।
হঠাৎ করে আমদানির পরিমাণ বেড়ে যাওয়ায় কর্মচঞ্চল হয়ে উঠেছে এ স্থলবন্দর। তবে পেঁয়াজ সারাদেশে দ্রুত পরিবহনের ক্ষেত্রে বন্দরে অবকাঠামোগত সুযোগ-সুবিধা বাড়ানো এবং পুলিশি হয়রানি বন্ধের দাবি জানিয়েছেন আমদানিকারক ও পরিবহন শ্রমিকরা।
এদিকে বেশি লাভের আশায় আমদানিকারক কিংবা ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট সৃষ্টির চেষ্টা করলে কঠোরভাবে দমনের ঘোষণা দিয়েছেন কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক মো. কামাল হোসেন।
টেকনাফ স্থল বন্দর থেকে গত দু'দিনে ৫০টি ট্রাকে সরবরাহ করা হয়েছে ১ হাজার মেট্রিক টনের বেশি পেঁয়াজ। আরও প্রায় ৮শ মেট্রিক টন পেঁয়াজ খালাসের অপেক্ষায় রয়েছে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop