খেলার সময়ক্যাসিনোর বিষে নীল কলাবাগান

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
ক্যাসিনো থেকে কোটি টাকা আয় হলেও সে টাকা মূলত ভোগ করতো মুষ্টিমেয় কিছু লোক। যার ফলে একটা সময় যে ক্লাব থাকতো ডিপিএলের শিরোপার রেসে, তারাই এখন লড়ছে প্রথম বিভাগে। ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে টালমাটাল কলাবাগান ক্রীড়া চক্রের কর্তাদের সাফ কথা, 'আর কখনই ক্যাসিনো বসানো হবে না ক্লাবে'। আর সাবেক ক্রিকেটাররা, ভবিষ্যতের জন্য শুভ কামনা জানালো প্রিয় কলাবাগান ক্রীড়া চক্রকে।
মতিঝিল পাড়ার ক্যাসিনো ঝড়' এসে আছড়ে পড়েছে কলাবাগানেও। যে ঝড়ে লণ্ডভণ্ড ঐতিহ্যবাহী ক্লাবের তকমা পাওয়া কলাবাগান ক্রীড়া চক্র।
শুরুটা করা যাক ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের ২০১৭/১৮ মৌসুম দিয়ে। ১৩ দলের মধ্যে পারফর্মেন্সে সবার তলানিতে। তবে মাঠের খেলা নয় সেবার কলাবাগান আলোচনায়, খেলোয়াড়দের পাওনা টাকা পরিশোধ না করায়। পরে বিসিবির মধ্যস্থতায় কেউ কেউ ফেরত পেয়েছেন টাকা।
অনুসন্ধানে জানা যায় ২০১৭ সালে ক্যাসিনো প্রতিষ্ঠা হয় কলাবাগান ক্লাবে। যেখান থেকে প্রতিদিন আয় হতো প্রায় কোটি টাকা। পরে ভাগবাটোয়ারা নিয়ে দেখা দেয় দ্বন্দ্ব। যে দ্বন্দ্বের বলি হয়ে প্রিমিয়ার লিগ থেকে প্রথম বিভাগে নেমে যায় কলাবাগান। আর সবশেষ গেলো ২০ সেপ্টেম্বর র‌্যাবের অভিযানে, জুয়ার সামগ্রী ছাড়াও অস্ত্র ও মাদক পাওয়া যায় ক্লাবটিতে। যে অভিযোগে আটক হয়েছেন ক্লাবটির সভাপতি শফিকুল আলম ফিরোজ।
কলাবাগান ক্রীড়া চক্র পরিচালনা কমিটি সদস্য ইউসুফ চৌধুরী নিকু বলেন, 'আমাদের সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হলো এই সমস্যা কাটিয়ে ক্লাবটাকে কিভাবে ঢেলে সাজানো যায়।'
কলাবাগান ক্রীড়া চক্র কোষাধ্যক্ষ খতিব আহমেদ কাম্বার বলেন, 'আমরা সবাই ডিটারমাইন্ড হয়ে গেছি এ ধরনের কোনো ক্যাসিনো আমরা আর বসাবো না।'
নিজের সাবেক ক্লাবের জন্য আক্ষেপ ঝরলো ক্রিকেটারদের। সঙ্গে ক্লাব কর্তাদের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডের ফলে যে কালিমা লেপন হয়েছে কলাবাগান কেসির ভাবমূর্তিতে, তা কাটিয়ে দ্রুতই মাঠে ফিরবে প্রিয় ক্লাব প্রত্যাশা তাদের।
কলাবাগান ক্রীড়া চক্র সাবেক ক্রিকেটার মোহাম্মদ আশরাফুল বলেন, 'এগুলো শুনে অনেক খারাপ লাগে। এই ধরনের কাজের সাথে তারা জড়িত কিন্তু খেলোয়াড়দের পাওনা দেওয়ার সময় অনেক দেরি করে।
কলাবাগান ক্রীড়া চক্র সাবেক ক্রিকেটার মুক্তার আলী বলেন, আমি চাই ক্লাবটি দ্রুত যেনো আগের ভাবমূর্তিতে ফিরে যায়।'
আকাশ থেকে পাতালে পতনের এক জলজ্যান্ত উদাহরণ কলাবাগান ক্রীড়া চক্র। যে উদাহরণ থেকে শিক্ষা নেবেন অন্যসব ক্লাব কর্তারা এমন প্রত্যাশা তো করাই যায়।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop