শিক্ষা সময়আবরার হত্যার বিচারের দাবিতে বিভিন্ন স্থানে মিছিল সমাবেশ

সময় সংবাদ

fb tw
বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে আন্দোলনে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মিজানুর রহমান। এদিকে, বুয়েট উপাচার্যের পদত্যাগ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে দলীয় রাজনীতি নিষিদ্ধের দাবি জানিয়েছে বুয়েট অ্যালামনাই। আবরার ফাহাদ (২১) হত্যার ঘটনায় তারা সাত দফা দাবি জানিয়েছেন। এছাড়াও দেশের বিভিন্ন কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে নানা কর্মসূচি পালন করছে।
বুধবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে বুয়েট ক্যাম্পাস প্রাঙ্গণে আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে এক সমাবেশ থেকে বুয়েট অ্যালামনাই উপাচার্যের পদত্যাগ ও ক্যাম্পাসে রাজনৈতিক দলের কার্যক্রম নিষিদ্ধের দাবিসহ সাত দফা দাবি তুলে ধরে।
বুয়েট অ্যালামনাইয়ের সভাপতি অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী সাত দফার লিখিত বিবৃতি পাঠ করেন। সেগুলো হলো-
১. আবরার ফাহাদ এর নির্মম হত্যাকাণ্ডের তীব্র নিন্দা জানাই এবং অনতিবিলম্বে হত্যার সঙ্গে জড়িত সকলকে বিশেষ বিচার ট্রাইব্যুনাল এর আওতায় এনে দ্রুততম সময়ে বিচারের জোর দাবি জানাই।
২. এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সকল ছাত্রকে আনতি বিলম্বে বুয়েট থেকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করতে হবে।
৩. বুয়েট ক্যাম্পাসে রাজনৈতিক দলসমূহের অঙ্গ সংগঠন ভিত্তিক ছাত্র, শিক্ষক ও কর্মচারীদের সকল রাজনৈতিক কর্মকাণ্ড অবিলম্বে নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে হবে।
৪. বুয়েট প্রশাসনকে ঐতিহ্য পরিপন্থী যে কোনো ধরনের রাজনৈতিক পক্ষপাতিত্ব ও প্রভাব মুক্ত রাখার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
৫. বুয়েট অ্যালামনাই দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করে এই নির্মম হত্যাকাণ্ড বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দীর্ঘদিনের নির্লিপ্ততা, অব্যবস্থা ও ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা নিশ্চিত করবার ক্ষেত্রে চূড়ান্ত ব্যর্থতার ফল। অতীতে ঘটে যাওয়া বিভিন্ন অপরাধ কার্যক্রম এর তদন্ত, বিচার ও শাস্তি প্রদান এর ক্ষেত্রে উপাচার্যসহ বুয়েট প্রশাসনের ধারাবাহিক অবহেলা ও ব্যর্থতা এই নির্মম হত্যাকাণ্ডের মদদ জুগিয়েছে। অবিলম্বে উপাচার্যের অপসারণসহ প্রশাসনের আমূল পরিবর্তন করে এই ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠানের মান অতীতের মত সমুন্নত রাখতে সুযোগ্য, নির্ভীক ও নিরপেক্ষ ব্যক্তিদের পদায়ন করতে হবে।
৬. র‌্যাগিং এবং অন্যান্য অজুহাতে ছাত্র-ছাত্রী নির্যাতন নিষিদ্ধ ঘোষণা করতে হবে। ক্যাম্পাসে সকল ছাত্রের সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে অবিলম্বে প্রয়োজনীয় ও কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।
৭. আবরার হত্যাসহ ইতিপূর্বে সাংঘটিত অন্যান্য ছাত্র নির্যাতনের ঘটনাবলির ক্ষেত্রে অসম্পূর্ণ বিচারকার্য অবিলম্বে সম্পন্ন করে, উপযুক্ত শাস্তি প্রদান নিশ্চিত করতে হবে।
এদিকে, বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছেন দেশের বিভিন্ন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়সহ স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা। নৃশংস এ হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়েছেন তারা। এদিকে, ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহাকে মামলায় এজাহারভুক্তসহ গ্রেফতার দাবি জানান আবরারের বাবা বরকত উল্লাহ।
হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) শাখা ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিলে ছাত্রলীগ ধাওয়া করেছে ছাত্রলীগ কর্মীরা। বুধবার সকাল ১০টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক থেকে ছাত্রদলের মিছিলটি শুরু হয়। পরে মিছিলটি বিশ্ববিদ্যালয়ের অমর একুশে ভাস্কর্যের পাদদেশে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে মিলিত হয়। এ সময় সেখানে শাখা ছাত্রলীগ নেতা মাহবুবুল হক রাফার নেতৃত্বে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীদের ধাওয়া করা হয়।
বিক্ষোভকারী ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের ব্যানার কেড়ে নেওয়ার চেষ্টা করা হয়। পরে ছাত্রদল নেতা-কর্মীরা দৌঁড়ে ক্যাম্পাস ছাড়েন।
এ বিষয়ে জাবি শাখা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম সৈকত বলেন, আমরা কোনো সহিংসতা চালাতে ক্যাম্পাসে আসিনি। একটি হত্যার বিচার চাইতে এসেছিলাম। কিন্তু সেখানেও ছাত্রলীগ বাধা দিয়েছে।'
রাজশাহী:
আবরার হত্যার বিচারের দাবিতে শ্লোগানে শ্লোগানে মুখর রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। বুধবার সকালে (৯ অক্টোবর) কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। পুরো ক্যাম্পাস ঘুরে পরে সেখানে সমাবেশ করেন তারা। এ সময় বক্তারা, দেশে আইনের শাসন নেই বলে অভিযোগ করে আবরার হত্যায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
রংপুর:
আবরার হত্যার প্রতিবাদে ফুসে উঠেছে উত্তরের জেলা রংপুরেও। নগরীর প্রেসক্লাব এলাকায় বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা।
আবরার স্মরণে ও তার রুহের মাগফিরাত কামনা করে কুষ্টিয়া জিলা স্কুলে মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন তার শিক্ষককরা। এ সময় ছাত্রলীগ নেতা অমিত সাহাকে মামলায় এজাহারভুক্তসহ গ্রেফতার দাবি জানান আবরারের বাবা।
কুমিল্লা:
বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে কুমিল্লার কান্দিরপাড় টাউন হল মাঠে মানববন্ধন করেছে প্রগতিশীল ছাত্র জোট। এ সময় বক্তারা, দেশে আইনের শাসন নেই বলে অভিযোগ করে আবরার হত্যায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।
দিনাজপুর:
দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনে নাগরিক সমাজের ব্যানারে মানববন্ধন করা হয়।এ সময় বক্তারা, আবরার হত্যায় জড়িদের সর্বোচ্চ শাস্তি দাবি জানান।
এছাড়া, একই দাবিতে ঝিনাইদহ, যশোর, রাঙামাটি, ঠাকুরগাঁও, নেত্রকোনা, মৌলভীবাজার ও নাটোরে বিক্ষোভ মিছিল ও মানববন্ধন করেছেন ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop