মহানগর সময়আবরারের পাঁচ ভাইরাল স্ট্যাটাস

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
সামাজিকমাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেয়ার জেরে আবরারকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করছেন বুয়েটে আবরারের সহপাঠীরা। যদিও মামলার এজাহারে উল্লেখ করা হয়েছে, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে আবরারকে পিটিয়ে হ্যাঁ করা হয়েছে। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত বুয়েট শাখা ছাত্রলীগের ১৩ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী একাধিক শিক্ষার্থী দাবি করেছেন, ফেসবুকে দেয়া একটি স্ট্যাটাসের জের ধরে তাকে ছাত্রলীগের নেতারা তাকে শের-ই-বাংলা হলের ২০১১ নম্বর রুমে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর সেখানে তাকে নির্যাতন ও মারধর করে নিচতলা ও দোতলার সিঁড়ির মাঝামাঝি স্থানে ফেলে রাখা হয়। পরে চিকিৎসক আবরারকে মৃত ঘোষণা করেন।
জানা গেছে, আবরার সামাজিকমাধ্যমে বেশ জনপ্রিয় ছিল। আবরারের শেষ স্ট্যাটাসসহ আরো বেশ কয়েকটি স্ট্যাটাস এরইমধ্যে ভাইরাল হয়ে গেছে। ৫ অক্টোবর বিকেলে দেয়া সেই স্ট্যাটাসে এখন পর্যন্ত তিন লাখ ১৫ হাজার মানুষ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। এছাড়া ৬৬ হাজারেরও বেশিবার শেয়ার করা হয়েছে।
৫ অক্টোবর দেয়া আবরারের শেষ স্ট্যাটাস ছিল...
 ‌'১.৪৭ এ দেশভাগের পর দেশের পশ্চিমাংশে কোন সমুদ্রবন্দর ছিল না। তৎকালীন সরকার ৬ মাসের জন্য কলকাতা বন্দর ব্যবহারের জন্য ভারতের কাছে অনুরোধ করল। কিন্তু দাদারা নিজেদের রাস্তা নিজেদের মাপার পরামর্শ দিছিলো। বাধ্য হয়ে দুর্ভিক্ষ দমনে উদ্বোধনের আগেই মংলা বন্দর খুলে দেওয়া হয়েছিল। ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে আজ ইন্ডিয়াকে সে মংলা বন্দর ব্যবহারের জন্য হাত পাততে হচ্ছে।
২.কাবেরি নদীর পানি ছাড়াছাড়ি নিয়ে কানাড়ি আর তামিলদের কামড়াকামড়ি কয়েকবছর আগে শিরোনাম হয়েছিল। যে দেশের এক রাজ্যই অন্যকে পানি দিতে চাই না সেখানে আমরা বিনিময় ছাড়া দিনে দেড় লাখ কিউবিক মিটার পানি দিব।
৩.কয়েকবছর আগে নিজেদের সম্পদ রক্ষার দোহাই দিয়ে উত্তরভারত কয়লা-পাথর রপ্তানি বন্ধ করেছে অথচ আমরা তাদের গ্যাস দিব। যেখানে গ্যাসের অভাবে নিজেদের কারখানা বন্ধ করা লাগে সেখানে নিজের সম্পদ দিয়ে বন্ধুর বাতি জ্বালাব।
হয়তো এসুখের খোঁজেই কবি লিখেছেন-
"পরের কারণে স্বার্থ দিয়া বলি
এ জীবন মন সকলি দাও,
তার মত সুখ কোথাও কি আছে
আপনার কথা ভুলিয়া যাও।"'
৩০ সেপ্টেম্বর আবরারের আরেকটি স্ট্যাটাস ভাইরাল হয়। সেটিতে এক লাখ পাঁচ হাজার মানুষ প্রতিক্রিয়া জানায়। প্রায় চার হাজার জন সেই স্ট্যাটাস শেয়ার করেন।
স্ট্যাটাসটি হলো-
'কে বলে হিন্দুস্তান আমাদের কোন প্রতিদান দেয়না। এইযে ৫০০ টন ইলিশ পাওয়ামাত্র ফারাক্কা খুলে দিছে। এখন আমরা মনের সুখে পানি খাবো আর বেশি বেশি ইলিশ পালবো। ইনশাল্লাহ আগামী বছর এক্কেবারে ১০০১ টন ইলিশ পাঠাবো।'
২৮ সেপ্টেম্বর আরেকটি স্ট্যাটাস দেন আববার। ৮৬ হাজারের বেশি মানুষ তাতে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন এবং প্রায় দুই হাজার জন শেয়ার করেছেন স্ট্যাটাসটি। স্ট্যাটাসটিতে যা লিখেছেন আবরার-
'একটা সময় ভাবতাম অনেক উচ্চশিক্ষিত একটা মেয়ে বিয়ে করব। তার অনেক গুণ থাকবে। কিন্তু একদিন আমি বুয়েটে চান্স পাইলাম। অতঃপর হলের ডাইনিং এ খাইতে গেলাম। এখন আমার একটাই ইচ্ছা- আমার বউ রান্না করতে পারলেই হবে।
#ignore_discrimination'
গত ২১ সেপ্টেম্বর আবরার স্ট্যাটাসে একটি নিউজ শেয়ার করে লেখেন, আমিও ইতিহাস গড়তে চাই। সেই স্ট্যাটাসে ৩৩ হাজার জন প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন এবং অনেকেই তা শেয়ার করেছেন।
এর আগে গত ১৮ আগস্ট আবরার একটি ভিডিও পোস্ট করেন। ভিডিওতে দেখা যায়, পানিতে ডুব দিচ্ছেন আবরার। সেই ভিডিওতে প্রতিক্রিয়া জানায় ২৪ হাজারের বেশি মানুষ।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop