ksrm

খেলার সময়ইরানী নারী‌দের গর্জনে প্রকম্পিত স্টেডিয়াম (ভিডিও)

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
'নারীরা বছরের পর বছর স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে পারতো না। আমার হৃদয়ে আজ আনন্দের বাতাস বয়ে যাচ্ছে। আগে আমরা টিভিতে খেলা দেখে কাঁদতাম কিন্তু আজ আমাদের চোখে আনন্দের অশ্রু। এটা হয়তো খুব কঠিন ম্যাচ না কিন্তু দিনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, কারণ প্রথমবারের মতো ইরানের নারীরা স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে পারছেন।' বলছিলেন ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের এক নারী ফুটবল সমর্থক। কত আবেগ এই কথায়! এমনই হাজারো নারীর আবেগ, হাসি কান্না আর ইতিহাসের সাক্ষী হয়ে থাকলো তেহরানের আজাদি স্টেডিয়াম।
চার দশকেরও বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের বাছাইপর্বে তেহরানের স্টেডিয়ামে মহিলাদের অনুমতি দেওয়া হয়েছিল। বৃহস্পতিবার (১০ অক্টোবর) প্রথমবারের মতো ইরানের হাজার হাজার নারী স্টেডিয়ামে বসে ফুটবল খেলা দেখেছেন।
আল জাজিরায় খবরে দেখা যায়, ইরানী নারীদের আবেগের সেই চিত্র। ভিডিওতে দেখা গেছে মাঠে বসে খেলা উপভোগ করার পাশাপাশি তারা নিজ দেশের পতাকা উড়িয়ে সেলফিও তুলেছেন। এদিন নারী‌দের গর্জনে প্রকম্পিত হয় ইরা‌নের স্টে‌ডিয়াম। অনেক দর্শক মাঠে বসে খেলা দেখার জন্য বাচ্চাদের নিয়েও হাজির হয়ে নিজের অনুভুতির কথা প্রকাশ করেছেন।
খেলা দেখার পর নিজেদের উল্লাসের কথা তুলে ধরেছেন দর্শকেরা। তারা জানান, কয়েক দশকের নিষেধাজ্ঞা কাটিয়ে আমরা স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখতে পারছি। সত্যি বেশ আনন্দিত আমরা।
স্টেডিয়ামে আসা এক নারী বলেন, আমি এখানে আসতে চেয়েছি, কারণ, এটা ঐতিহাসিক একটি ঘটনা। আমি এখানে আসার গল্প আমার ছেয়ে-মেয়ে এবং নাতি-নাতনিকে বলতে চাই।
আরেক নারী বলেন, আমি কোনোদিন ভাবিনি এটা হতে পারে। কিন্তু যখন শুনলাম আমরাও স্টেডিয়ামে যেতে পারবো অমি খুবই খুশি হয়েছি। আমি চাই এই অনুমতি আগামী দিনেও থাকবে। এটা শুধু এক ম্যাচের জন্য যেনো না হয়।
অফিসিয়ালি ৩ হাজার ৫০০ সিট নারীদের জন্য নির্ধারিত ছিলো। এই পরিমাণ নারী টিকিট কিনে স্টেডিয়ামে প্রবেশ করতে পেরেছেন। তবে অনেকেই টিকিট পাননি। কিন্তু স্টেডিয়ামের সামনে এসে জড়ো হন। পুলিশ বারবার ঘোষণা করে, টিকিট ছাড়া কাউকে দেখলেই তারা আটক করবেন। কিন্তু তাতেও কাজ হয়নি। শেষ পর্যন্ত আমাদের সবাইকে সুযোগ দেয়া হয় স্টেডিয়ামে প্রবেশের। চল্লিশ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতার স্টেডিয়ামে শেষ পর্যন্ত অধিকাংশই নারীদের দখলে ছিলো।
নারীদের গগনবিদারী চিৎকার বলে দিচ্ছিল এই দিনটির জন্য ইরানের নারীরা কতটা আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষা করছিলেন। স্টেডিয়ামের এসে দেশের জন্য, খেলোয়াড়দের জন্য তারা যে ভালোবাসা দেখিয়েছেন তার প্রতিদান দিতে মোটেও কার্পণ্য করেননি ফুটবলাররা।
২০২২ বিশ্বকাপের বাছাই পর্বের এ ম্যাচে কম্বোডিয়াকে তারা হারিয়েছে ১৪-০ গোলের বিশাল ব্যবধানে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop