ksrm

আন্তর্জাতিক সময়‘অভিশংসন তদন্ত নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা’

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
প্রতিনিধি পরিষদের অভিশংসন তদন্ত, নির্বাচন প্রভাবিত করার চেষ্টা ছাড়া আর কিছুই নয় বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।
সেইসঙ্গে আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে সম্ভাব্য প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী জো বাইডেনের বিরুদ্ধে আবারো বিষোদগার করেছেন তিনি।
ট্রাম্পের সঙ্গে তাল মিলিয়ে রিপাবলিকান সিনেটর মিট রমনি বলেছেন, প্রেসিডেন্টের অভিশংসনের বিষয়ে এখনই মাথা ঘামাতে চান না তিনি।
অন্যদিকে ডেমোক্র্যাট নেতা বার্নি স্যান্ডার্স দাবি করেছেন, বর্তমান ট্রাম্প প্রশাসন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি দুর্নীতিগ্রস্ত।
পুরো যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে যখন বিরোধীরা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিশংসনের দাবিতে অনড়, তখন সমর্থকরা তার পক্ষে রাস্তায় নেমেছেন।
শুক্রবার প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের লুজিয়ানা সফর উপলক্ষে জড়ো হন কয়েক হাজার বাসিন্দা। তারা ট্রাম্পের পক্ষে নানা স্লোগান দেওয়ার পাশাপাশি গানের মাধ্যমে তাকে স্বাগত জানান।
স্থানীয়রা বলছেন, বাইডেন এখনো আগামী নির্বাচনের জন্য মনোনীত হননি। তাই তার বিরুদ্ধে তদন্ত আহ্বান, কোনোভাবেই নির্বাচন প্রভাবিত হবে না।
প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাধারণ জনগনের কথাই বলছেন। তিনি সত্য সবার সামনে তুলে ধরছেন। ২০২০ সালের নির্বাচনেও আমরা তাকেই চাই।
সমর্থকদের এমন অভ্যর্থনার পর তাদের উদ্দেশে লেক চার্লসে বক্তব্য দেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তুলে ধরেন নিজের বিরুদ্ধে শুরু হওয়ার অভিশংসন তদন্তের নানা দিক। দাবি করেন, আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচন প্রভাবিত করতেই অভিশংসন তদন্ত শুরু করেছে প্রতিনিধি পরিষদ। ডেমোক্র্যাট নেতা জো বাইডেন এবং তার ছেলে হান্টারের পক্ষ নেওয়ায় মার্কিন গণমাধ্যমেরও সমালোচনা করেন ট্রাম্প।
ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, আমি শুধু জানতে চাই হান্টার কোথায়? সে মিলিয়ন মিলিয়ন ডলার নিয়ে পালিয়েছে। তাহলে তার বিরুদ্ধে কেন তদন্ত হবে না? কিন্তু মিথ্যা নিউজের মাধ্যমে জো বাইডেন এবং তার ছেলেকে রক্ষা করার চেষ্টা চলছে। গণমাধ্যম দ্বৈতনীতির মাধ্যমে পুরো বিষয়টিই প্রভাবিত করতে চাইছে।
ট্রাম্পের সঙ্গে সুর মিলিয়েছেন রিপাবলিকান দলীয় জ্যেষ্ঠ সিনেটর মিট রমনিও। শুক্রবার তিনি বলেন, ট্রাম্পকে অভিশংসন নিয়ে মাথা ঘামানোর মতো সময় এখনো আসেনি। একইসঙ্গে তিনি ডেমোক্র্যাট নেতা জো বাইডেন এবং তার ছেলে হান্টারের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের স্বপক্ষে বক্তব্য দেন।
মিট রমনি বলেন, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে বিদেশি সরকারের কাছ তদন্তের আবেদন আসলেই ভুল। কিন্তু অভিযোগের কারণে তাদের তদন্তের মুখোমুখি হতে হবেই, এ বিষয়ে কোন প্রশ্নের অবকাশ নেই।
এরমধ্যেই ডেমোক্র্যাট নেতা বার্নি স্যান্ডার্স দাবি করেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে বর্তমান ট্রাম্প প্রশাসনই সবচেয়ে বেশি দুর্নীতিগ্রস্ত।
বার্নি স্যান্ডার্স বলেন, আমি মনে করি, ট্রাম্প এমন একজন প্রেসিডেন্ট যিনি সংবিধান বোঝেন না, আইন বোঝেন না। প্রেসিডেন্ট মনে করেন, তিনি সব আইনের ঊর্ধ্বে। আর এ কারণেই তার প্রশাসন দুর্নীতিগ্রস্ত হয়ে পড়েছে।
সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট ও ডেমোক্র্যাট নেতা জো বাইডেন এবং তার ছেলে হান্টারের বিরুদ্ধে তদন্তের জন্য ইউক্রেনের প্রেসিডেন্টকে আহ্বান জানানোর একটি ফোনালাপ ফাঁস হওয়ার পর, ট্রাম্পের বিরুদ্ধে অভিশংসন তদন্তের সিদ্ধান্ত নেয় মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদ।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop