ksrm

মহানগর সময়একজনের ডেথ সার্টিফিকেট দুটি : হত্যা না ডেঙ্গু কোনটা আসল?

আফজাল হোসেন

fb tw
somoy
হত্যা নাকি ডেঙ্গুতে মৃত্যু এ নিয়ে তুলকালাম চলছে নারায়ণগঞ্জের দুটি গ্রামে। সরকারি ও বেসরকারি দুটি হাসপাতাল দুই ধরনের ডেথ সার্টিফিকেট দেয়ায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। নিহতের পরিবারের অভিযোগ, ৮ মাস আগের আঘাতে মৃত্যু হয়েছে মাহবুবের। আসামিপক্ষে বলছে, ওই আঘাতে মাহবুব সুস্থ হওয়ার পর ডেঙ্গুতে মৃত্যু হয় তার। মৃত্যুর আসল কারণ জানতে পুনরায় ময়নাতদন্তের প্রয়োজন বলে মনে করেন আইনজীবীরা।
এলাকাবাসী জানায়, রাস্তা করা নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় গত ৩১ ডিসেম্বর আহত হন মাহবুব। তার পরিবারের দাবি, এরপর থেকেই চিকিৎসাধীন ছিলেন তিনি। ৮ মাস চিকিৎসাধীন থাকার পর ঢাকা মেডিকেলে মারা যায় সে।
অন্যদিকে আসামিপক্ষ বলছেন, সে সময় আহত হলেও ২৩ আগস্ট ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে বেসরকারি একটি হাসপাতালে মৃত্যু হয় তার।
আশ্চর্যজনক বিষয় হলো মাহবুবের মৃত্যু নিয়ে ২ ধরনের রিপোর্ট পাওয়া গেছে। ঢাকা মেডিকেল বলছে মারাত্মক শারীরিক আঘাতের কারণে মৃত্যু হয় মাহবুবের। অন্যদিকে বেসরকারি হাসপাতালের রিপোর্ট বলছে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তার।
বাদীপক্ষের অভিযোগ, ডেঙ্গুর গুজব ছড়িয়ে হত্যার দায় এড়াতে চায় তারা।
হয়রানি করতেই ডেঙ্গুর মৃত্যুকে হত্যা হিসেবে চালানো হচ্ছে বলে দাবি আসামিপক্ষের।
মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা বলছেন, ঢামেকের রিপোর্টটি গ্রহণ করে আসামিদের বিরুদ্ধে হত্যার অভিযোগ আমলে নিয়েছে আদালত।
মৃত্যুর আসল কারণ জানতে মৃতদেহের পুনরায় ময়নাতদন্ত হওয়া উচিত বলে মনে করেন আইনজীবীরা।
মাহবুবের মৃত্যুর পর থেকে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে নারায়ণগঞ্জের সনমান্দি ইউনিয়নের টেমদি ও লেদামদী গ্রামে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop