ksrm

বাংলার সময়কোটচাঁদপুরে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হলেন তৃতীয় লিঙ্গের পিংকি

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচিত হয়েছেন তৃতীয় লিঙ্গের প্রার্থী ছাদিয়া আক্তার পিংকি খাতুন।
সোমবার (১৪ অক্টোবর) রাতে রিটানিং কর্মকর্তা রোকনুজ্জামান এ ফলাফল ঘোষণা করেন। নির্বাচনে ৩ জন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। তিনি পেয়েছেন ১২ হাজার ৮৮০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী রিনা খাতুন পেয়েছে ১২ হাজার ১৩৯ ভোট।
জানা যায়, কোটচাঁদপুর উপজেলার দোড়া ইউনিয়নের সোয়াদি গ্রামের নওয়াব আলী সন্তান পিংকি খাতুন। বর্তমানে কোটচাঁদপুর উপজেলা শহরে একটি ভাড়া বাসায় বসবাস করেন। ছোটকাল থেকেই মানুষের উপকারে অবদান রেখে চলেছেন তিনি। সমাজের অবহেলিত জনগোষ্ঠীর একজন সদস্য হলেও তিনি থেমে থাকেননি। তিনি দুস্থ, অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। গত ৩ বছর আগে কোটচাঁদপুর উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক হিসেবে নির্বাচিত হন তিনি। সেখান থেকেই তিনি স্বপ্ন দেখেন উপজেলা নির্বাচনে অংশ নিয়ে মানুষের সেবা করার। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের মনোনয়ন জমা দেওয়ার পর থেকে তিনি শুরু করেন জনসংযোগ।
উপজেলার পাঁচটি ইউনিয়নের প্রতিটি গ্রামে গ্রামে গিয়ে তিনি ভোট প্রার্থনা করে। তার আশা ছিল তিনি নির্বাচিত হবে। অবশেষে সোমবার রাতে তার স্বপ্ন পূরণ হয়। নির্বাচিত হওয়ার পর মঙ্গলবার সকাল থেকে উপজেলা শহরের বিভিন্ন দোকান, ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠানসহ সাধারণ মানুষের সাথে কথা বলেন তিনি। প্রকাশ করেন কৃতজ্ঞতা।
এদিকে পিংকি নির্বাচিত হওয়ায় খুশি ওই এলাকার ভোটাররা। নজরুল ইসলাম নামের এক ভোটার বলেন, পিংকি হিজরা হলেও তিনি সমাজের মানুষের জন্য কাজ করেছেন। এজন্য তাকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেছি। তিনি আগামীতে আরও ভালোভাবে মানুষের সেবা করবেন এটা আমরা আশা করি।
সাহেদ উদ্দিন নামের একজন বলেন, পিংকি বিজয় এত সহজ ছিল না। তার কর্মীরা যখন মানুষের কাছে ভোট চেয়েছেন তখন এক শ্রেণির মানুষ তাদেরও ‘হিজড়া’ বলে কটূক্তি করেছেন। তবে আজ সেই কষ্ট দূর হয়েছে।
আজ সকালে পিংকি খাতুনের সাথে কথা হলে তিনি বলেন, আপনাদের মত আমিও একজন মানুষ। সমাজের দুস্থ ও অসহায় মানুষের সেবা করার জন্য আমি নির্বাচন করেছি। কোটচাঁদপুরের জনগণ আমাকে নির্বাচিত করে তাদের সেবা করার সুযোগ করে দিয়েছে। এজন্য আমি তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।
তিনি বলেন, হিজরা সম্প্রদায়ের মানুষের অধিকার আদায়, সমাজের পিছিয়ে পড়া মানুষের উন্নয়নে আমি কাজ করতে চায়। দূর করতে চাই সকল বৈষম্য।
এ ব্যাপারে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) ঝিনাইদহ শাখার সভাপতি মানবাধিকার কর্মী আমিনুর রহমান টুকু বলেন, বাংলাদেশের উন্নয়ন ঘটছে। মানুষের মাঝে বৈষম্য দুর হচ্ছে যার বাস্তব উদাহরণ পিংকি খাতুন। কোটচাঁদপুরের মানুষ তাকে প্রতিনিধি হিসেবে নির্বাচিত করেছে। বাংলাদেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় যদি পিংকির মতো তৃতীয় লিঙ্গের মানুষ সমাজ উন্নয়নে অংশ নেয় আর ভোটাররা যদি তাদের সমর্থন করে, তবে বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে।
 

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop