ksrm

আন্তর্জাতিক সময়দরিদ্রদের ভাগ্য পরিবর্তন হয়েছে : নোবেলজয়ী অভিজিৎ

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
গেল ৩ দশকে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর ভাগ্য পরিবর্তন হয়েছে বলে মনে করেন বিশ্ব দারিদ্র্য বিমোচনে ফলপ্রসূ গবেষণার জন্য নোবেল পুরস্কার বিজয়ী বাঙালি অভিজিত ব্যানার্জি। তহবিল না থাকলেও দারিদ্র্য দূর করতে গবেষণা চালিয়ে যাওয়ার কথা জানান তিনি। নোবেল পুরস্কার জয়ের পর যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটসে অভ্যর্থনা অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন অভিজিত ব্যানার্জি। অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তব্যে ভারতের অর্থনৈতিক অবস্থার সমালোচনাও করেন তিনি।
মাত্র ৫৮ বছর বয়সেই এতো অর্জন। পোর ইকোনমিক্সের জন্য গেরাল্ড লিউব অ্যাওয়ার্ড, কেইল ইনস্টিটিউট থেকে বিশ্ব অর্থনীতির গবেষণার জন্য বার্নার্ড হার্মস প্রাইজ, সবশেষ নোবেল পুরস্কার। নিজ দেশসহ পুরো বিশ্ব অর্থনীতি নিয়ে গবেষণা প্রতিবেদন কিংবা বইয়ের সংখ্যাও কম নয়। দারিদ্র্য বিমোচনে লিখছেন অর্থনীতি বিষয়ক একের পর এক বই। তিনি অভিজিৎ বিনায়ক বন্দোপাধ্যায়। যিনি একক ও যৌথভাবে লিখেছেন পোর অব ইকোনমিক্স, অ্যা শর্ট হিস্ট্রি অব পোভার্টি মেজারমেন্ট, মেকিং এইড ওয়ার্ক, হ্যান্ডবুক অব ফিল্ড এক্সপেরিমেন্ট প্রথম খণ্ড, দ্বিতীয় খণ্ড, আন্ডারস্ট্যান্ডিং পোভার্টি, ভোটেলিটি অ্যান্ড গ্রোথ। ২০১৯ সালের অক্টোবরেই আসছে যৌথ বই ‘গুড ইকোনমিক্স ইন হার্ড টাইমস।’
অভিজিত ব্যানার্জি বলেন, আমাদের চারপাশে খারাপ খবরে ভরপুর। বিশেষ করে আন্তর্জাতিক ভূরাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে। এসব খারাপ খবরের মাঝে আশার কথা হলো, গেল তিন বছরে গরীব মানুষের ভাগ্য খুব দ্রুত পরিবর্তন হয়েছে। তবে অনেকে তা বুঝতেই পারেনি। যেমন যুক্তরাষ্ট্রের মানুষজন এখনো বিশ্বাস করে যে, দারিদ্র বাড়ছে। কিন্ত আসল ব্যাপার হলো বিশ্ব অর্থনীতিতে দুটো শ্রেণি খুব ভালো করেছে। এর মধ্যে এক অতি ধনী, অন্যটি অতি দরিদ্র।
কলকাতার প্রেসিডেন্সি কলেজেই অর্থনীতির হাতে খড়ি। এরপর থেকে অর্থনীতি নিয়েই পথচলা। তবে তিনি শুধু বিশ্ব দারিদ্র্য নিয়ে গবেষণা করছেন না, চিন্তিত নিজ দেশের অর্থনীতির জন্যও। গেল ২৫ বছর ধরে বিভিন্ন দেশ ঘুরে স্ত্রী এস্থার ডাফলোসহ কাজ করছেন তিনি।
অভিজিত ব্যানার্জি বলেন, আমরা গবেষণার জন্য কোনো অর্থ সঞ্চয় করে রাখিনি। গবেষণা কোনো কিছুর জন্য আটকে থাকেনি। যেভাবেই হোক নানা দেশে ঘুরে গবেষণা চালিয়ে গেছি। সেটার ফলও পেয়েছি। এ অর্জন ভবিষ্যতের জন্য অনেক বন্ধ দরকার খুলে দিয়েছে। পুরোপুরি নতুন কিছু করতে চাই না, কিন্ত দারিদ্র্য বিমোচনে গবেষণা করে যেতে চাই।
দেশের বিভিন্ন সংস্থার পাশাপাশি আন্তর্জাতিক অনেক সংস্থায় সম্মানের সাথে কর্মরত ছিলেন তিনি। বর্তমানে যুক্তরাষ্ট্রেরর ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজিতে আন্তর্জাতিক অর্থনীতির অধ্যাপক হিসেবে আছেন তিনি।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop