ksrm

অন্যান্য সময়পোকামাকড়ের ঘর বসতি কেন দরকার পৃথিবীতে

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
হঠাৎ একদিন পৃথিবীর সব পোকা যদি মরে যায় বা বিলুপ্ত হয়ে যায়, তাহলে কী হবে কোনোদিন ভেবে দেখেছেন?
আজকের পৃথিবীতে বাস করে প্রায় ১০ লাখ প্রজাতির পোকামাকড়। বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বৈচিত্র্যময় প্রাণী তারা। জাতিসংঘের জীববৈচিত্র্য বিষয়ক একটি সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে, আগামী কয়েক দশকের মধ্যে পোকামাকড়ের মোট প্রজাতির ৪০ শতাংশ হারাতে চলেছি আমরা। এর প্রভাব ঠিক কতটুকু সমস্যা বয়ে আনবে মানুষের স্বাভাবিক জীবনযাপনে, তা অনেকেরই অজানা।
এ কথা সত্যি যে, পোকামাকড় না থাকলে আমাদের জীবনযাত্রা অনেক সহজ হয়ে উঠবে। মশা থাকবে না, তাই ডেঙ্গু-ম্যালেরিয়ার মতো রোগের ভয় থাকবে না, দুনিয়ার সবচাইতে কষ্টকর কাজ মশারি টাঙানো, সেটাও করতে হবে না। মাথায় উকুন হবে না। ঘরে তেলাপোকা থাকবে না। জমিতে কীটনাশক ছড়াতে হবে না।
কিন্তু বিশ্বাস করুন আর নাই-ই করুন, এসবের চেয়েও বড় কথা হলো, পৃথিবীর সব পোকা মরে গেলে আমাদেরও না খেয়ে মরতে হবে।
এর কারণ, পৃথিবীর অধিকাংশ উদ্ভিদের বংশবিস্তারের জন্য পরাগায়ন হতে হয়। আর এর জন্য দরকার হয় পোকামাকড়ের। বিপুল পরিমাণে পরাগায়নের জন্য মৌমাছি, প্রজাপতি এবং অন্যান্য পোকার ওপরই আমাদের ভরসা করতে হয়। পোকা না থাকলে এসব গাছ নিশ্চিহ্ন হয়ে যাবে একটা সময়। এর মাঝে ধান ও গমের মতো প্রধান খাদ্যগুলো আছে। আবার আমরা যেসব গবাদি পশু, হাঁস-মুরগি এবং মাছ খাই তাদেরও খাবার আসে বিভিন্ন গাছ থেকে। সুতরাং পোকা না থাকলে এই বিপুল পরিমাণ খাদ্যে ঘাটতি পড়বে, মানুষ না খেয়ে মারা পড়বে। প্রচুর পরিমাণে স্তন্যপায়ী এবং পাখি বিলুপ্ত হয়ে যাবে।
গমের মতো নিত্য প্রয়োজনীয় ফসলের চাষে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পোকামাকড়ের। পরাগায়নের কাজ সম্ভব হবে না যদি বিশেষ কিছু প্রজাতির পোকা হারিয়ে যায়। চীনের কিছু অংশে শ্রমিকরা এই পরাগযোগের কাজ করলেও দেখা যাচ্ছে যে এর ফলে ফসলের দাম বাড়ছে কয়েকগুণ।
শুধু গম নয়, পোকামাকড় হারিয়ে গেলে পৃথিবী হারাবে কফি। কফির চাষ বা বিশেষ কিছু ফলের উৎপাদনের ক্ষেত্রেও পরাগযোগের গুরুত্ব বিশাল।
পোকামাকড়ের গুরুত্ব এই পৃথিবীতে শুধু চাষে সাহায্য করা নয়, একাধিক অন্যান্য প্রাণীর দৈনন্দিন খাবারের তালিকাতেও রয়েছে তারা। আচমকা তারা হারিয়ে গেলে রীতিমত অভুক্ত থাকবে বেশ কিছু পশুপাখি।
পোকামাকড় না থাকলে আমাদের খাদ্যচক্র ব্যাহত হওয়ার পাশাপাশি দেখা দিতো পরিবেশ বিপর্যয়। যদি ফাঙ্গাস, ব্যাকটেরিয়া, নানা ধরনের ছোট পোকা না থাকত, তাহলে বন জঙ্গলগুলো মৃত গাছপালা এবং মৃত পশুপাখি দিয়ে ভরে যেত- যেগুলো কোনোদিন না পচে লক্ষ লক্ষ বছর ধরে জমতে জমতে বন জঙ্গল ভরে যেত। সেগুলো পচতো না, ফলে মাটিতে এবং বায়ুমণ্ডলে নাইট্রোজেনসহ অনেক প্রয়োজনীয় জৈব পদার্থ তৈরি হতো না। একসময় নতুন গাছপালা জন্মাবার জন্য প্রয়োজনীয় জৈবপুষ্টি শেষ হয়ে যেত।
গুবরে পোকা চিরকালই গল্প-উপন্যাসে হাসিঠাট্টার চরিত্র। কিন্তু এই গুবরে পোকা লুপ্ত হয়ে গেলে চারপাশ হয়ে উঠবে দুর্গন্ধযুক্ত, নোংরা। কারণ এই পোকার মূল কাজই হলো নিজের চারপাশের আবর্জনা পরিষ্কার করা।
এছাড়াও পশম, মধু ও বেশ কিছু ওষধি গাছের চাষের ক্ষেত্রে পোকার ভূমিকা অপরিহার্য।
কেন হারিয়ে যাচ্ছে পোকামাকড়? জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে দ্রুত পাল্টাচ্ছে পৃথিবীর আবহাওয়া। তার সাথে তাল মেলাতে ব্যর্থ হচ্ছে অনেক পোকামাকড়। ফলে, অবলুপ্তির পথে এগিয়ে যাচ্ছে তারা।
শুধু তাই নয়, পৃথিবীজুড়ে বাড়ছে মনোকালচার বা একক কৃষির জনপ্রিয়তা। এর সাথে বাড়ছে ক্ষেতে কীটনাশক ও অন্যান্য বিষাক্ত সারের ব্যবহারও। এর ফলেও মারা যাচ্ছে স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি পোকা।
বিশেষজ্ঞদের মতামত, একক কৃষি ও কীটনাশকের ব্যবহার কমালে বদলাতে পারে চিত্র। পাশাপাশি, ফুল বাগান করার জন্য উৎসাহিত করে তুলতে হবে সাধারণ মানুষকে।
এই চিন্তার ভিত্তিতে ইতিমধ্যেই বেশ কিছু জায়গায় শুরু হয়েছে ‘পোকার হোটেল’ নামের এক অভিনব পরিকল্পনা, যা আসলে বাসায় পোকামাকড়ের জন্য নির্দিষ্ট একটি স্থান। এই হোটেলের বিক্রি ক্রমেই বাড়ছে ইউরোপে।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop