ksrm

লাইফস্টাইলব্যবস্থাপনায় দক্ষতা বাড়াতে করণীয়

সময় সংবাদ

fb tw
somoy
ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা, কর্মজীবন ব্যক্তি জীবন সব ক্ষেত্রেই সাফল্যে বয়ে আনে। ভালো ব্যবস্থাপনা জ্ঞান কর্মজীবনে সাফল্য যোগ করবে।  এছাড়া ব্যক্তি জীবনেও সকলের কাছে করে তুলবে  গ্রহণযোগ্য। তাই ব্যবস্থাপনায় দক্ষতা আনাটা জরুরি। কিছু দিক খেয়াল রেখে চলতে পারলে এই গুনটা রপ্ত করা সম্ভব। জেনে নিন কিভাবে এই দক্ষতা বাড়াবে।
প্রেরণাদায়ক স্বভাব: জীবনে সাফল্যের স্বাদ প্রায়শই একা ভোগ করা যায় বটে, কিন্তু সব কয়টা কাজ কখনো একা করা যায় না। বিশেষ করে যখন আপনি একটা প্রতিষ্ঠানের অংশ, আপনার কর্মক্ষেত্রে আরো অনেকজন রয়েছে, তখন আপনারা একটা দল। একজন ভালো ব্যবস্থাপক তার কর্মীদের সবসময় অনুপ্রেরণা দেয় কাজে উন্নতি করতে। কাজ চাপিয়ে না দিয়ে একেকজনের দক্ষতাগুলো চিহ্নিত করা, সে অনুযায়ী তাদের কাজে লাগানো, ভালো কাজের যথাযথ প্রশংসা আর সম্মাননা দেয়া, আপনার ব্যবস্থাপনা ক্ষমতাকে কার্যকর করতে এই বিষয়গুলোও কিন্তু আবশ্যিক।
সময়ানুবর্তী হওয়া: নিজেও সময় মেনে চলুন আর আপনার কর্মীদেরও সেই শিক্ষা দিন। একদিকে বেশি সময় নিয়ে ফেললে আরেকদিকে অন্য কাজের বেলায় যে সময় কম পড়বে, সে খেয়াল থাকা চাই। কাজের ছোট ছোট ভাগের জন্য সময় নির্ধারিত করে দিন আর সেটা মেনে চলুন, যাতে পুরো কাজটা ঠিক সময়ে সম্পন্ন হয়।
যোগাযোগে দক্ষতা: কর্মক্ষেত্রে সবার সাথেই ভালো একটা যোগাযোগ বজায় না রাখতে জানলে আপনার ব্যবস্থাপনার অনেকটাই মাটি হবে। প্রতিষ্ঠানের কর্মীবৃন্দ এবং অন্যান্য ব্যবস্থাপক যারা আছেন, প্রতিষ্ঠানের বাইরে যাদের সাথে কাজের প্রয়োজন আছে, একজন ভালো ব্যবস্থাপক তাদের সকলের সাথেই যোগাযোগে থাকবে। সব ধরণের তথ্য জানার জন্য এটা জরুরি। তাছাড়া একটা প্রতিষ্ঠানের সব শ্রেণীর কর্মজীবীদের মাঝে সেতুবন্ধন হিসেবেও কাজ করতে হয় ব্যবস্থাপককে। কথার মাধ্যমে এবং লিখিত যোগাযোগ মাধ্যমেও দক্ষতা থাকা তাই আবশ্যক জ্ঞান।
সমস্যার সমাধান করা: প্রবলেম সলভিং স্কিল বা সমস্যা সমাধানের দক্ষতা, এটা ভালো ব্যবস্থাপনা জ্ঞানের মূল কথাগুলোর মাঝে একটা। কোনো একটা কাজ সম্পন্ন করতে গিয়ে যদি সামনে আসা সমস্যাই না সমাধান করা গেলো, তবে তেমন ব্যবস্থাপকের সুনাম কমবে বৈ বাড়বে না। তাছাড়া প্রতিষ্ঠানে একটা সমস্যা তৈরি হয়ে তা সবার কাছে প্রকট হবার আগেই সেটি চিহ্নিত করা এবং সমাধানের পদক্ষেপ নেয়া- এগুলো একজন যোগ্য ব্যবস্থাপকের গুণ।
নতুনত্বের পরখ: বাজারে কোন জিনিসটা নতুন আসছে, সেটা প্রতিষ্ঠানের জন্য কারা ভালো তৈরি করে দিতে পারে, কোন সেবাটা আগের চেয়ে ভিন্ন হবে, এইসব দিকে সজাগ দৃষ্টি থাকা চাই একজন দক্ষ ব্যবস্থাপকের। প্রতিযোগিতার বাজারে নতুন কিছুতে পিছিয়ে থাকলে পিছেই পড়ে থাকতে হবে, না নাম থাকবে আর না লাভ। তাই বর্তমান বাজারের হালচাল জেনে রাখা আর প্রতিষ্ঠানকে সে ব্যাপারে অবগত রাখা ব্যবস্থাপকের দায়িত্ব।

আরও সংবাদ

বাংলার সময়
বাণিজ্য সময়
বিনোদনের সময়
খেলার সময়
আন্তর্জাতিক সময়
মহানগর সময়
অন্যান্য সময়
তথ্য প্রযুক্তির সময়
রাশিফল
লাইফস্টাইল
ভ্রমণ
প্রবাসে সময়
সাক্ষাৎকার
মুক্তকথা
বাণিজ্য মেলা
রসুই ঘর
বিশ্বকাপ গ্যালারি
বইমেলা
উত্তাল মার্চ
সিটি নির্বাচন
শেয়ার বাজার
জাতীয় বাজেট
বিপিএল
শিক্ষা সময়
ভোটের হাওয়া
স্বাস্থ্য
ধর্ম
চাকরি
পশ্চিমবঙ্গ
ফুটবল বিশ্বকাপ
ভাইরাল
সংবাদ প্রতিনিধি
বিশ্বকাপ সংবাদ
Latest News
আপনিও লিখুন
ছবি ভিডিও টিভি
মোবাইল অ্যাপস ডাউনলোড করুন
GoTop